Link copied.
ধারণার চেয়েও অনেক বেশি রহস্যময় যে ১০ টি রোগ!
writer
৩১ অনুসরণকারী
cover
এমন অনেক অসুস্থতা আছে যা ডাক্তাররা প্রেসক্রিপশন প্যাড জুড়ে কলমের ছিমছাম আচড় দিয়ে নিরাময় করতে পারেন। কিন্তু কিছু অসুস্থতা সম্পর্কে আমরা যা বুঝি, তার চেয়েও বেশি কিছু আছে। যা এখনও পেশাদারদের স্তব্ধ করে দেয়, জনসাধারণকে বিভ্রান্ত করে এবং বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ভয়ানক রূপ ধারণ করে। 
এইডস
cover
প্রথম শনাক্ত হওয়ার পঁচিশ বছর পরেও, অ্যাকুইয়ার্ড ইমিউন ডেফিসিয়েন্সি সিনড্রোমের কোন প্রতিকার এখনও নেই। নেই কোন টিকা, নেই এর প্রতিকারযোগ্য চিকিৎসা পদ্ধতি। এইডস বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ঘাতকদের মধ্যে রয়ে গেছে, বিশেষ করে উন্নয়নশীল দেশে। রোগটি সম্ভবত শিম্পাঞ্জি থেকে মানুষে সংক্রামিত হয়েছে। এরপর থেকে এর প্রসার ঘটতে শুরু করে। সাম্প্রতিক গবেষণা এমনটাই নিশ্চিত করেছে। 
আলঝেইমার রোগ
cover
আলঝেইমার একটি অবক্ষয়কারী মস্তিষ্কের ব্যাধি যা এর প্রতিটি ভুক্তভোগীর মধ্যে ভিন্নভাবে প্রকাশ পায়। তবে একে বয়সকালের ভুলে যাওয়া রোগ বা বিভ্রমের সঙ্গে মিলালে হবে না। অনেক মানুষেরই অধিক বয়স হয়ে গেলে অনেক কিছু ভুলে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। আর আলঝেইমার মস্তিষ্কের মধ্যে ঘটা কোন কারণে হতে পারে, এর সঠিক কারণটি বোঝা যায় না, ধরাও পরে নি। এজন্য এটি কার্যকরভাবে চিকিৎসা করা যায় না। 
সাধারণ ঠান্ডা
cover
যদিও প্রতিবছর যুক্তরাষ্ট্রে আনুমানিক এক বিলিয়নের মত কেস আসে ডাক্তারদের কাছে সাধারণ ঠান্ডা নিয়ে। তারপরও ডাক্তাররা এখনও নাক-কান, কাঁশি-প্ররোচক সর্দি সম্পর্কে খুব কমই জানেন। এই নৈমত্তিক শারীরবৃত্তীয় অবস্থার একদম গোড়ার কারণ শত শত হতে পারে। অ্যান্টিবায়োটিক নয়, বরং মুরগির স্যুপ, সাধারণ ওষুধ ও সময় নেওয়া এসব প্রায়ই একমাত্র প্রেসক্রিপশন যা সাহায্য করে থাকে। 
এভিয়ান ফ্লু
cover
পাখিদের দ্বারা বাহিত শক্তিশালী ফ্লু ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের কোন প্রতিরোধ ক্ষমতা নেই। স্বাস্থ্যবিদদের আশঙ্কা রয়েছে যে এমন ফ্লু মানুষ থেকে মানুষের মধ্যে সংক্রমণ হতে পারে এমন একটি স্ট্রেনে রূপান্তরিত হতে পারে। মানুষের আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর হার প্রায় ৫০ শতাংশ। কিন্তু এখন পর্যন্ত এতে আক্রান্ত পাখির সাথে সরাসরি মেলামেশার দ্বারা মানুষ বেশি সংক্রমিত হয়েছে। একটি সাম্প্রতিক ঘটনাগুচ্ছ তা প্রকাশ করছে, তবে, এটি মানুষের মধ্যে এর বিস্তারের সাথে জড়িত বলে মনে হয়েছিল। 
পিকা
cover
পিকা রোগে আক্রান্ত লোকদের অ-খাদ্য পদার্থ যেমন ময়লা, কাগজ, আঠা এবং কাদামাটি খাওয়ার একটি অতৃপ্ত তাগিদ রয়েছে। যদিও ঘটনাটি একজনের শরীরের খনিজের অভাবের সাথে যুক্ত বলে বিশ্বাস করা হয়। কারণ শরীরে খনিজ ঘাটতি থাকায় শরীর অখাদ্য খাওয়ার চাহিদা প্রকাশ করে ঘাটতি মেটাতে চায়। তবে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা অদ্ভুত ব্যাধিটির প্রকৃত কারণ এবং কোন প্রতিকার খুঁজে পাননি। 
অটোইমিউন ডিসঅর্ডার
cover
লুপাস এবং এমএস এগুলোর মত দুর্দশার বাহকের জন্য একটি ক্যাচাল জিনিস হল অটোইমিউন ডিসঅর্ডার। এটি শরীরের অঙ্গ এবং স্বাভাবিক ক্রিয়াকলাপকে শত্রু আক্রমণকারী হিসেবে বিবেচনা করে। এটা একইসাথে দুঃখজনক এবং যথেষ্ট রহস্যময় নয় কি? এই যে শরীরের অভ্যন্তরে নিজের সুস্থ অঙ্গপ্রত্যঙ্গকে বহিরাগত মনে করে শরীর। এমনকি স্বাভাবিক কার্যকলাপকেও বাহ্যিক আক্রমণকারী বলে বিবেচনা করে! এতে করে সাধারণ ও স্বাভাবিক কার্যকলাপ বিঘ্নিত হয় এবং অসুস্থতা বাড়তে থাকে। এগুলি সাধারণত দীর্ঘস্থায়ী হয় এবং সর্বদা দুর্বল অবস্থার সৃষ্টি করে। এবং ডাক্তাররা এই রোগের রোগীদের লক্ষণগুলোর সামান্য সহজ করা ছাড়া আর তেমন কিছুই করতে পারেন না। 
সিজোফ্রেনিয়া
cover
বিশেষজ্ঞরা একে মানসিক ব্যাধিগুলির মধ্যে সবচেয়ে বিভ্রান্তিকর বলে মনে করেন। এই অবস্থা ভুক্তভোগীর বাস্তবতা এবং কল্পনার মধ্যে যৌক্তিকভাবে পার্থক্য করার ক্ষমতা হরণ করে। রোগীদের মধ্যে লক্ষণগুলি ব্যাপকভাবে বিস্তৃত এবং এর মধ্যে রয়েছে বিভ্রম, হ্যালুসিনেশন, বিশৃঙ্খল বক্তৃতা, অনুপ্রেরণার অভাব বা আবেগ, কিন্তু এই রোগের কোন নির্দিষ্ট চিকিৎসা পরীক্ষা নেই। রোগী নিজের মাথার ভেতরেই অন্যের কথা শোনে, সে মনে করে তার ভেতরেই আরেকজন কথা বলছে। সে তার কল্পনার ও বাস্তবের সংমিশ্রণ এমনভাবে ঘটায় যে তার নিজের কথা, শব্দ ও বাক্য গঠন খুব বেশি এলোমেলো ও গোলমেলে হয়ে যায়। এটাকে ওয়ার্ড সালাদ বলে। এই কঠিন পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণের নির্দিষ্ট কোন পদ্ধতির উদ্ভাবন ঘটে নি।

রোগীদের কেবল সাইকিয়াট্রিস্ট্রের শরণাপন্ন হতে উৎসাহ দেওয়া হয়। এই আবর্তন থেকে বের হতে আশেপাশের মানুষজনকে রোগীর প্রতি যথেষ্ট সহনশীল হতে হয়। থেরাপিস্টের পরামর্শ রোগীকে অনুসরণ করতে হয়। সবচেয়ে বড় কথা হল রোগীর প্রচন্ড মানসিক শক্তি ও স্থিরতা আনয়ন করতে হয় নিজেকে স্বাভাবিক করে তুলতে কিন্তু এমন জটিল মানসিক অবস্থায় সেটা কীভাবে সম্ভব তা ডাক্তাররা বের করতে পারেন নি এখনো। 
ক্রুজফেল্ড-জেকব রোগ
cover
এই বিরল মস্তিষ্কের ব্যাধিটির একটি সংস্করণ "ম্যাড কাউ" বা 'পাগল গরু' হিসেবে বেশি পরিচিত। এবং এটি দূষিত গরুর মাংস খাওয়ার ফলে সংক্রমিত হতে পারে। এর মধ্যে "Regular" CJD সর্বদা মারাত্মক, দ্রুত কাজ করে এবং এটি সবচেয়ে সাধারণ গঠন। তবে বেশিরভাগ রোগীদের মধ্যে কেন বিকাশ ঘটে তার কারণগুলি ডাক্তাররা এখনও খুঁজে পাননি। এবং এর প্রতিরোধও করতে সক্ষম হতে পারেন নি। 
দীর্ঘস্থায়ী ক্লান্তি রোগ
cover
দীর্ঘস্থায়ী ক্লান্তি হল একটি প্রথম শেণির এমইউপিএস (মেডিক্যালি অব্যক্ত শারীরিক লক্ষণ) রোগ। এর নির্ণয় শুধুমাত্র অন্যান্য সম্ভাবনার বাইরে থাকার উপর ভিত্তি করে। এটা কেবল সাধারণ একটু ক্লান্ত ক্লান্ত বোধ করা নয় বরং সাধারণের চেয়েও অনেক বেশি ক্লান্তি বোধ। সিএফএস রোগীরা প্রায়ই এক সময়ে সারা দিনের জন্য বিছানায় শুয়ে থাকেন। 
মর্জেলন রোগ
cover
এই রহস্যময় অসুস্থতা, যা সম্প্রতি আবার ফুটে উঠেছে, প্রায় সাই-ফাই লক্ষণ প্রদর্শন করে। ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন যে তাদের ত্বকে তীব্র উদ্ভট-হিজিবিজি দাগ দেখা দিচ্ছে। অদ্ভুত তন্তুযুক্ত দাগের প্রকাশ হয় যা খোলা ক্ষত থেকে সৃষ্টি হয়ে বেরিয়ে আসে। চিকিৎসা সম্প্রদায়ের কেউ কেউ এটিকে মানসিক রোগের সাথে তুলনা করেন। তারা বলে এই দাগের অস্তিত্ব রোগীর অত্যাধিক মানসিক বিকারের ফলে তার বিভ্রম হতে পারে। এর জন্য তারা "মানসিক রোগ" কে দায়ী করে। কিন্তু অন্যরা বলেন যে রোগীর উপসর্গগুলি খুবই বাস্তব। 
Reference:
https://www.livescience.com/11333-top-10-mysterious-diseases.html

Ridmik News is the most used news app in Bangladesh. Always stay updated with our instant news and notification. Challenge yourself with our curated quizzes and participate on polls to know where you stand.

news@ridmik.news
support@ridmik.news
© Ridmik Labs, 2018-2021