রেলস্টেশনে নিজের লেখা বই নিজে বিক্রি করে জীবন চালান টিপু সুলতান
শিক্ষা
রেলস্টেশনে নিজের লেখা বই নিজে বিক্রি করে জীবন চালান টিপু সুলতান
রাজধানীর বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ড ও রেল স্টেশনে এক লেখককে দেখা যায় নিজের লেখা বই নিজেই বিক্রি করছেন। চলন্ত গাড়িতেও অনেক সময় বই ফেরি করে বেড়ান তিনি। তার সাথে সাক্ষাৎ হয় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক মাহামুদুল হকের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তিনি লিখেছেন জীবন যুদ্ধে সংগ্রামরত হার না মানা বৃদ্ধের কাহিনী। পাঠকদের জন্য হুবহু তা তুলে ধরা হলো।
তার নাম টিপু সুলতান। বই লেখেন এবং রেল স্টেশনে বিক্রি করেন জীবন নির্বাহ করেন। তার প্রথম গ্রন্থ 'রেলপথে বাংলাদেশ" এক লক্ষ ২৩ হাজার কপি বিক্রি হয়েছে এ পর্যন্ত। হাতে ধরে আছেন এই গ্রন্থখানির নাম বোনাস। ইংরেজি শব্দ আয়ত্ব করার কৌশল সহজভাবে বিশ্লেষণ করেছেন ও বাংলা অর্থ দিয়েছেন। যেমন: Please অনুগ্রহ করা -- P বাদ দিলে Lease- ইজারা ---থেকে L বাদ দিলে Ease -- আরাম ----বা tease--disease--unease--plea--tease--disease-- unease--plea--lea--lean-অর্থাৎ একটা শব্দ ভেঙ্গে কয়েকটা শব্দ শেখানোর কৌশল৷ এরকম কয়েক হাজার শব্দ। আমি কমলাপুর রেলস্টেশনে ওয়েটিং রুমে বসে। এসময় তিনি আসলেন, বইয়ের ওপর স্মার্টলি প্রচার শুরু করলেন। আমি হাতে নিয়ে দেখলাম বোনাস গ্রন্থখানি। লেখককে জিজ্ঞেস করলাম দাম। বললেন ১৫০ টাকা। উৎসাহ দিতে আমার ছেলের জন্য এক কপি কিনলাম। ছেলের জন্য কল্যাণ কামনা করে অটোগ্রাফ দিলেন। তার প্রশংসা করলাম। আমার পরিচয় জানলেন। আমাকে অনুরোধ করলেন বইয়ের ব্যপারে কোন পরামর্শ থাকলে তা দিতে। তার ফোন নম্বর দিলেন। কয়েক মিনিটেই হৃদ্যতা। আমার প্রশংসা ও কেনা দেখে তার হাতে থাকা সব কপি অন্যান্য যাত্রীরা কিনে নিলেন। স্নাতক ডিগ্রিধারী কুষ্টিয়ার অধিবাসী ১৯৯৪ সালে ঢাকা আসেন এবং ১১ মাস ১০ দিন একটা কোম্পানিতে চাকরি করার পর তা ছেড়ে নিজেই একটা কোম্পানী খুলে ব্যবসা করেন। ২০১৭ সালে প্রথম বই রেলপথে বাংলাদেশ লেখেন যা তার জীবন-জীবিকার পথকে সুগম করে। এছাড়া বিভিন্ন মানচিত্র বিষয়ক আরো ৮ টি গ্রন্থ আছে। এখন তিনি লেখক ও নিজ গ্রন্থের বিক্রেতা। এভাবেই চলে জীবন। নিরন্তর ভালোবাসা লেখকের জন্য।
শিক্ষাএক্সক্লুসিভবেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়
আরো পড়ুন