আব্রামস ও লেপার্ড: রাশিয়ার বিরুদ্ধে কতটা ভয়ংকর ট্যাংকগুলো?
আন্তর্জাতিক
আব্রামস ও লেপার্ড: রাশিয়ার বিরুদ্ধে কতটা ভয়ংকর ট্যাংকগুলো?
জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ইউক্রেনকে তাদের তৈরি লেপার্ড-২ ট্যাংক দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এছাড়া ওয়াশিংটন ইউক্রেনে কয়েক ডজন এমআই-আব্রামস ট্যাংকস পাঠাতে যাচ্ছে। ইউক্রেন বলছে, বলছিল, রাশিয়ার বিরুদ্ধে সফলতার জন্য এসব ট্যাংক প্রয়োজন। আসলে কতটা ভয়ংকর জার্মানী ও যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি এসব অত্যাধুনিক ট্যাংকগুলো?
ছবি: আল জাজিরা
ছবি: আল জাজিরা
আল জাজিরার এক বিশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জার্মান এবং যুক্তরাষ্ট্রের তৈরিকৃত এই ট্যাংক অত্যাধুনিক মানের এবং সোভিয়েত আমলের ট্যাংকের থেকে অধিক শক্তিশালী হিসেবে গণ্য করা হয়। ডিজিটাল ম্যাগাজিন ব্রেকিং ডিফেন্সের কন্ট্রিবিউটিং এডিটর সিডনি ফ্রেডবার্গ আল জাজিরাকে বলেন, ‘জার্মানির লেপার্ড এবং আমেরিকার আব্রামস বস্তুতপক্ষে টুইন।’ জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য লেপার্ড-২ ট্যাংক ক্রস মাফাই কর্তৃক ১৯৭৯ সালে তৈরি করা হয়। অস্ট্রিয়া, কানাডা, চিলি, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, জার্মানি, গ্রিস, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, পোল্যান্ড, পর্তুগাল, সিঙ্গাপুর, সুইজারল্যান্ড, সুইডেন, স্পেন এবং তুরস্কের সেনাবাহিনীতে এই ট্যাংক ব্যবহৃত হচ্ছে।

অন্যদিকে এমআই আব্রামস ট্যাংক যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর জন্য জেনারেল ডাইনামিকস সিস্টেম কর্তৃক ১৯৭৮ সালে তৈরি করা হয়। মার্কিন সেনাবাহিনীর কাছে এটা ১৯৮০ সালে হস্তান্তর করা হয়। প্রতিরক্ষা ম্যাগাজিনের এডিটর ফ্রেডবার্গ বলেন, ‘ট্যাংক দুটো প্রায় একই। সুবৃহৎ যান, ব্যাপক সাঁজোয়াযুক্ত, সর্বপরি সোভিয়েত আমলের তৈরি অথবা রাশিয়ার বর্তমান ব্যবহৃত ট্যাংক থেকে এগুলো অধিক সুরক্ষিত। ইউক্রেনে ট্যাংক দেওয়ার প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়া বলেছে, পশ্চিমা ট্যাংকগুলো অন্যান্য সমরাস্ত্রের সঙ্গে পোড়ানো হবে। ট্যাংক সরবরাহকে নির্লজ্জ উসকানি অভিহিত করে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত বলেছেন, ‘রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে ইউক্রেন বিজয়ী হবে এই ভ্রান্তির জন্য পশ্চিমারা ভবিষ্যতে পরিতাপ করবে।’
রাশিয়ার জন্য হুমকি কিনা
জার্মানি বলছে তাদের মিত্র দেশ চাইলে ইউক্রেনে লেপার্ড ট্যাংক রপ্তানি করতে পারবে। ফলে রাশিয়ান বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়তে ইউক্রেনের অস্ত্রভান্ডার আরও সমৃদ্ধ হবে। রাশিয়া এই ঘটনায় প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। জার্মানিতে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত সের্গেই নেচেহেভ বলেছেন, জার্মান সরকারের এই সিদ্ধান্ত মারাত্মক ভয়ংকর। চলমান সংঘাতকে এটা নতুন লেভেলে নেবে। বুধবার রুশ রাষ্ট্রদূত নেচেহেভ এক বিবৃতিতে বলেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে বারবার এমন হচ্ছে। আমরা দেখছি ইউক্রেনের ঘনিষ্ঠ মিত্র সত্ত্বেও জার্মানি সংকটের কূটনীতিক সমাধানে আগ্রহী নয়। তাদের হৃদয় স্থায়ী উত্তেজনায় গেঁথে গেছে। কিয়েভে তারা অধিক পরিমাণে প্রাণঘাতী অস্ত্র দিয়ে উসকানি দিচ্ছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রসঙ্গ টেনে রুশ রাষ্ট্রদূত বলেন, তারা যুদ্ধপরবর্তী রাশিয়া-জার্মানির সমঝোতা ভুলে গেছে।
আন্তর্জাতিক
আরো পড়ুন