তামান্না ভাটিয়া: পুরুষ শাসিত গ্রামের এক নারী বডিবিল্ডারের গল্প
বিনোদন
তামান্না ভাটিয়া: পুরুষ শাসিত গ্রামের এক নারী বডিবিল্ডারের গল্প
তামান্না ভাটিয়া দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেও বলিউডে সেভাবে এখনও জায়গা পাকা করতে পারেননি। বলিউডের সিনেমায় তার যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০১৩ সালে অজয় দেবগনের বিপরীতে 'হিম্মতওয়ালা' সিনেমার মাধ্যমে। এরপর ২০১৫ সালে 'বাহুবলি' মুক্তির পর থেকেই 'অবন্তিকা'য় মজে বলিউড। হুহু করে বাড়তে থাকে তার অনুরাগীর সংখ্যাও। 
এসএস রাজামৌলির ছবিতে শুধু তার সৌন্দর্যই নয়, বীর যোদ্ধার ভূমিকায় নজর কাড়েন তামান্না। ফলে সে সময় অনেকেই ভেবেছিলেন, বাহুবলির সাফল্যের পর তামান্নার জন্য বলিউডের দরজা আরও খুলে যাবে; কিন্তু তা হয়নি। দীর্ঘ বিরতির পর মধুর ভান্ডারকরের 'বাবলি বাউন্সার' ছবির মাধ্যমে এবার বাউন্সার হাঁকাতে চান অভিনেত্রী। এরই মধ্যে মুক্তি পাওয়া ছবির ট্রেলারে অন্তত সেই ইঙ্গিত পাওয়া গেল। মধুর ভান্ডারকর এর আগে 'চাঁদনি বার', 'পেজ থ্রি', 'করপোরেট', 'হিরোইন', 'ট্রাফিক সিগন্যাল', 'ফ্যাশন'-এর মতো হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। তার প্রতিটি ছবিতে উঠে এসেছে এক অজানা দুনিয়ার কথা। 
তাই তার 'বাবলি বাউন্সার' ঘিরে ছবিপ্রেমীদের প্রত্যাশা এখনই শুরু হয়ে গেছে। ছবির ট্রেলারে এবার গ্ল্যামারাস নায়িকার পরিবর্তে 'পেহেলওয়ান' রূপে দেখা গেল এই অভিনেত্রীকে। ছবিটির প্রথম ঝলক সামনে আসতেই উচ্ছ্বসিত অভিনেত্রীর অনুরাগী মহল। আগামীকাল অনলাইন মাধ্যম ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তি পাবে ছবিটি। হিন্দি ছাড়াও তামিল ও তেলেগু ভাষাতেও দেখা যাবে 'বাবলি বাউন্সার'। মধুর ভান্ডারকরের এই সিনেমায় তুলে ধরা হয়েছে নারীর ক্ষমতায়ন। পুরুষ বডিবিল্ডার ও বাউন্সারে ভরা একটি গ্রামের এক নারী বডিবিল্ডারের গল্প- যার নাম বাবলি। যে গোলাকার রুটি বানাতে না জানলেও জিমে সবচেয়ে ভারী ওজন তুলে নেয় সহজেই। অবশেষে সে নিজের পায়ে দাঁড়ায় এবং তার জীবন বদলে যায়। তামান্না ছাড়া এই সিনেমায় আরও অভিনয় করেছেন সৌরভ শুক্লা, অভিষেক বাজাজ ও সাহিল বৈদ্য।
কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছবির দুটি পোস্টার শেয়ার করেন। যেখানে তাঁকে 'দাবাং লেডি'রূপে দেখা গেছে। ছবির নাম থেকে শুরু করে তার দাঁড়ানোর ভঙ্গিই বলে দিচ্ছে- এই মেয়ে ডাকাবুকো না হয়ে যায় না! ছবির ক্যাপশনে তামান্না লিখেছেন- 'বাওয়াল শুনেছ নাকি? এবার বাবলি বাউন্সারের সময় এসেছে? সে কি ভাঙা হৃদয় জোড়া লাগাবে নাকি প্রচুর হাড় ভেঙে বেড়াবে? জানা যাবে আগামীকাল।' নতুন এই ছবি নিয়ে তামান্না বলেন, 'যখন প্রথম এই ছবির চিত্রনাট্য শুনি, তখন থেকেই ছবিটির মুক্তির জন্য অপেক্ষা করে আছি। আমার বিশ্বাস, ছবিটি সব শ্রেণির দর্শকের ভালো লাগবে। আর মধুর ভান্ডারকরের ছবি মানেই যেন উষ্ণ আলিঙ্গন। আমি বরাবরই তাঁর কাজের ভক্ত।'
তামান্না আরও বলেন, 'এই ছবিতে আমি হরিয়ানি জাঠের এক নারীর ভূমিকায় অভিনয় করেছি। চরিত্রটি হৃদয়ের খুব কাছের। কারণ, আমার ভাবি হরিয়ানি জাঠ। তাই বাবলি চরিত্রটি করতে তিনি আমাকে অনুপ্রাণিত করেছেন। শারীরিক ছাড়াও চরিত্রটির জন্য মানসিক প্রস্তুতিও নিতে হয়েছে; হরিয়ানি আদবকায়দা রপ্ত করতে হয়েছে। আমি দক্ষিণের মেয়ে নই; তবু তামিল, তেলেগু ভাষা শিখে দক্ষিণীদের মন জয় করেছি। আশা করছি, এবার উত্তরের মানুষের মন জয় করতে পারব।'
বিনোদন
আরো পড়ুন