তুরস্কের যে দাবি মেনে নিলো সুইডেন
আন্তর্জাতিক
তুরস্কের যে দাবি মেনে নিলো সুইডেন
প্রথমবারের মতো কোনো ব্যক্তিকে তুরস্কে প্রত্যর্পণে রাজি হয়েছে সুইডেন। সম্প্রতি মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমাদের সামরিক জোট ন্যাটোতে যোগদানের আবেদন করে ইউরোপের নর্ডিক অঞ্চলের দুই দেশ ফিনল্যান্ড ও সুইডেন। কিন্তু ন্যাটোর একমাত্র মুসলিম রাষ্ট্র তুরস্ক এতে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। 
আঙ্কারার অভিযোগ, ফিনল্যান্ড ও সুইডেন তাদের দেশের ‘সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয়’। বহু নাটকীয়তার পর জুনের শেষ সপ্তাহে মাদ্রিদে ন্যাটোর সম্মেলনে কয়েকটি শর্তে ফিনল্যান্ড সুইডেনের ন্যাটোতে অন্তর্ভুক্তির পথে বাধা না হওয়ার চুক্তি সই করে আঙ্কারা। তবে তুরস্কের শর্ত ছিল–সুইডেন তাদের দেশে আশ্রয় নেয়া সন্ত্রাসীদের প্রত্যর্পণ করবে। কাতারের সংবাদ সংস্থা আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) আঙ্কারার কাছে এক ব্যক্তিকে তুলে দিতে সম্মত হয়েছে স্টকহোম। আল জাজিরা জানায়, ব্যাংক কার্ড জালিয়াতির দায়ে তুরস্কের আদালত ৩০ বছর বয়সী সেই ব্যক্তিকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে। যদিও তিনি এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, খ্রিস্টান ধর্মগ্রহণ, তুরস্কের সেনাবাহিনীতে কাজ করতে অস্বীকৃতি জানানো এবং কুর্দি বংশোদ্ভূত হওয়ার কারণে তার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ তোলা হয়েছে। সুইডেনের বিচারবিষয়ক মন্ত্রী মর্গান জনসন জানিয়েছেন, ২০১৩ এবং ২০১৬ সালে এই যুবক তুরস্কের আদালতে প্রতারণার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। সুইডেনের সুপ্রিম কোর্ট তার বিষয়টি নিরীক্ষা করেছে এবং এই উপসংহার টেনেছে যে– তাকে তুরস্কে প্রত্যর্পণে কোনো বাধা নেই।
আন্তর্জাতিকতুরস্কসুইডেনফিনল্যান্ডন্যাটো
আরো পড়ুন