Link copied.
বিশ্ববাজারে একচেটিয়াভাবে রাজত্ব কায়েম করছে যে ১০ তেল-গ্যাস কোম্পানি
cover
করোনা মহামারির সময়ে তেল-গ্যাস কোম্পানিগুলো মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীনে পড়ে। ২০১৯ সালের তুলনায় বিশ্বব্যাপী জ্বালানীর ব্যবহার কমেছে প্রায় ৪.৫ শতাংশ। ২০২০ সালের এপ্রিলে জ্বালানীর চাহিদা কমেছে প্রায় ৯ শতাংশ। বড় বড় তেল-গ্যাস কোম্পানিগুলো মহামারিকালে বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়েছে। এদিকে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে শীতের তীব্রতা বাড়ার আগেই ভয়াবহ জ্বালানী সংকট মোকাবিলা করছে পৃথিবী। বড় বড় তেল কোম্পানিগুলো করোনার ধকল কাটিয়ে উঠায় জ্বালানী তেলের দাম করোনা পূর্ব সময়ে ফিরে যাচ্ছে। কোম্পানির বর্তমান বাজার মূল্য হিসেবে মার্কেট ক্যাপ ডট কমের গবেষণায় উঠে এসেছে বিশ্বের শীর্ষ ২০ তেল-গ্যাস কোম্পানির নাম। সেখান থেকে শীর্ষ ১০টি কোম্পানির বিস্তারিত তথ্য দেয়া হলো। বিষয়টি সম্পর্কে এজন্য জানা জরুরি, যেহেতু অনেক দেশের উৎপাদন প্রক্রিয়া অনেকাংশে নির্ভরশীল তেল-গ্যাসের ওপর। 
সৌদি আরামকো
cover
প্রথম স্থানে থাকা সৌদির রাষ্ট্রীয় তেল-গ্যাস কোম্পানি আরামকো বিশ্বের পাঁচটি ট্রিলিয়ন ডলার কোম্পানির অন্যতম।মার্কেট ক্যাপ অনুযায়ী বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম এই কোম্পানির বাজার মূল্য ১৯৭৯ বিলিয়ন (প্রায় দুই ট্রিলিয়ন) ডলার। তবে আরামকো এই অবস্থানে হটাৎ করেই আসেনি। ৮৮ বিলিয়ন ডলার নেট মুনাফায় ২০১৯ সালে আরামকো বিশ্বের সবচেয়ে লাভজনক কোম্পানির তকমা অর্জন করে। ২০২০ সালে মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপল এই তকমা দখল করে নিলেও ২০২১ সালে তেলের দাম বাড়ায় ফের আরামকো শীর্ষস্থান লাভ করতে পারে। ২০২০ সালের তথ্য অনুযায়ী আরামকো প্রতিদিন ৯.২ মিলিয়ন ব্যারেল ক্রুড ওয়েল উৎপাদন করে।
এক্সোনমোবিল
cover
বিগ ওয়েল কোম্পানিরগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে আছে আমেরিকার এক্সোনমোবিল। ২০১৫ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত গায়ানার উপকূলে ১৮টি তেলকুপ আবিষ্কার করেছে এই মার্কিন কোম্পানি, যেগুলোতে আট বিলিয়ন ব্যারালেরও বেশি তেল মজুদ আছে। এক্সোনমোবিলের বাজার মূল্য ২৫৭.৩০ বিলিয়ন ডলার। 
শেভরন
cover
আরেক মার্কিন কোম্পানি শেভরন ২০৫.২৯ বিলিয়ন ডলার নিয়ে তৃতীয় স্থান দখলে রেখেছে। এ কোম্পানির আয় বৃদ্ধির গতি তুলনামূলক অনেক বেশি বলে বাজার বিশেষজ্ঞরা জানান। 
শেল
cover
১৭৫.২৮ বিলিয়ন ডলার নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে নেদারল্যান্ডসের কোম্পানি ‘শেল’। ২০১৬ সালে ‘ক্লিন এনার্জি’তে ৩.২ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করে এই ডাচ কোম্পানিটি। 
পেট্রো-চায়না
cover
পঞ্চম স্থানে থাকা চায়নার রাষ্ট্রীয় তেল-গ্যাস কোম্পানি পেট্রো-চায়নার বাজার মূল্য ১৬২.৫৫ বিলিয়ন ডলার। ২০২০ সালে ২৮১ বিলিয়ন ডলারের তেল বিক্রি করে রেভিনিউ আয়ে (বিক্রিতে) বিশ্বের শীর্ষ কোম্পানির স্থান দখল করেছিলো পেট্রো-চায়না। 
টোটাল এনার্জিস
cover
ষষ্ঠ স্থানে আছে ফ্রান্সের টোটাল এনার্জিস, কোম্পানিটির বাজার মূল্য ১৩০.৫৬ বিলিয়ন ডলার। রেভিনিউ আয়ে অন্যান্য কোম্পানির চেয়ে কোনোক্রমে পেছিয়ে নেই এই কোম্পানি।  
গ্যাজপ্রোম
cover
সপ্তম স্থানে আছে রাশিয়ার গ্যাস কোম্পানি গ্যাজপ্রোম। বিশ্বের শীর্ষ এই গ্যাস কোম্পানিতে পৃথিবীর ১৬ শতাংশ গ্যাস মজুদ আছে।
কনকো-ফিলিপস
cover
অষ্টম স্থানে থাকা মার্কিন কোম্পানি কনকো-ফিলিপসের বাজার মূল্য ৯৫.৯৩ বিলিয়ন ডলার। বিশ্ব বাজারে এই কোম্পানির রেভিনিউ হু হু করে বাড়ছে। 
বিপি
cover
যুক্তরাজ্যের কোম্পানি বিপি ৯৩.৯৭ ডলার নিয়ে নবম স্থান দখল করেছে।
রজনেফট
cover
দশম স্থানে থাকা রাশিয়ার কোম্পানি রজনেফটের বাজার মূল্য ৮৪.০৭ বিলিয়ন ডলার। ফসিল জ্বালানীর কারণে বড় বড় তেল কোম্পানিগুলোই বিশ্বের গ্রিনহাউজ গ্যাস নিঃসরণের জন্য সবচেয়ে বেশি দায়ী। সৌদির আরামকো বিশ্বের সবচেয়ে বেশি গ্রিনহাউজ গ্যাস নিঃসরণকারী কোম্পানি। বিপি, এক্সনমোবিল, গ্যাজপ্রোম, শেভরন এবং অন্যান্য তেল-গ্যাস কোম্পানিগুলোও এই তালিকায় শীর্ষস্থানে আছে। ভবিষ্যতে কার্বন নিঃসরণ কমিয়ে আনতে ফসিল জ্বালানীর উপর নির্ভরতা কমাতে হবে। তবে এই মুহুর্তে বিশ্বে জ্বালানী সংকটের কারণে এখনই তেল-গ্যাস ইন্ডাস্ট্রিকে পুরোপুরি বাদ দেয়া সম্ভব নয়।

Ridmik News is the most used news app in Bangladesh. Always stay updated with our instant news and notification. Challenge yourself with our curated quizzes and participate on polls to know where you stand.

news@ridmik.news
support@ridmik.news
© Ridmik Labs, 2018-2021