বিশ্বের সবচেয়ে দামী স্যান্ডউইচে আসলে কী আছে?
আন্তর্জাতিক
বিশ্বের সবচেয়ে দামী স্যান্ডউইচে আসলে কী আছে?
নিউইয়র্কের এক রেস্তোরাঁয় এমন এক স্যান্ডউইচ পাওয়া যায়, যার দাম ২২ হাজার টাকারও বেশি! এমন দামের জেরে এই স্যান্ডউইচটিকে বিশ্বের সবথেকে দামী স্যান্ডউইচ বলেও স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। খবর সিএনএন।

ছবি: ইন্টারনেট
ছবি: ইন্টারনেট
রেস্তোঁরার পক্ষ থেকে এর নাম দেয়া হয়েছে ‘কুইন্টেসসেন্সিয়াল গ্রিলড চিজ স্যান্ডউইচ’। সাধারণত দুটি পাউরুটির মাঝে পুর ভরে দিলেই স্যান্ডউইচ তৈরি হয়ে যায়। এই ‘কুইন্টেসসেন্সিয়াল স্যান্ডউইচ’-টিও আলাদা কোনো পদ্ধতি মেনে তৈরি করা হয়নি। শুধু এর প্রতিটি উপাদান তৈরি হয়েছে অত্যন্ত দামী কিছু খাদ্য সামগ্রী দিয়ে। সেই তালিকায় প্রথমেই রয়েছে পুলমান শ্যাম্পেন ব্রেড। এ বিশেষ পাউরুটিই হল কুইন্টেসসেন্সিয়ালের প্রধান উপকরণ। বলা হয়, এই পাউরুটির মধ্যে খাদ্যযোগ্য সোনার গুড়োও মেশানো থাকে। সেইসঙ্গে থাকে খুবই দামী এক শ্যাম্পেন। কুইন্টেসসেন্সিয়াল বানানোর সময় এই বিশেষ পাউরুটির উপর প্রথমেই মাখানো হয় ট্রাফল মাখন। এরপর এর ভিতরে পুর হিসবে দেওয়া হয় কাশিওকাভালো নামে এক বিশেষ চিজ।

ছবি: ইন্টারনেট
ছবি: ইন্টারনেট
এখানেই শেষ নয়। এই স্যান্ডউইচ পরিবেশনের সময় দেয়া হয় এক বিশেষ ধরনের সসও। যা তৈরি করা হয় দক্ষিণ আফ্রিকার বিশেষ লবস্টার-টোমেটো সস দিয়ে। প্রায় ৪৮ ঘন্টা আগে রেস্তোরাঁয় অর্ডার দিলে তবেই তারা কুইন্টেসসেন্সিয়াল বানানোর সামগ্রী আনাতে পারেন। তবে সেখানেও রয়েছে সমস্যা। এর ভিতর যে বিশেষ চিজ ব্যবহার করা হয় তা এমন এক গরুর দুধ থেকে তৈরি হয় যা সবসময় পাওয়া অসম্ভব। ইতালির এক বিশেষ প্রজাতির গরু, যা বছরে কেবল দু মাসই দুধ দেয় তার থেকেই তৈরি হয় সেই চিজ। তাই সারাবছর কাসিওকাভালো চিজ না পাওয়াটাই স্বাভাবিক। একই ভাবে ট্রাফল মাখনও নাকি সবসময় সহজলভ্য থাকে না।
আন্তর্জাতিকএক্সক্লুসিভযুক্তরাষ্ট্র
আরো পড়ুন