Link copied.
profile
আমির হোসেন টিটু
৬৩সংবাদ
৫৪অনুসরণকারী
অনুসরণ করছেন

cover

কোন খাবারে বাড়ে বিবাহিতদের শারীরিক সক্ষমতা?

জীবনযাপন
৭ দিন আগে

জীবনযাপনের প্রতিটি পদের নির্ধারক হল খাদ্যাভ্যাস। রোজের জীবন কেমন ভাবে কাটবে, তার অনেকটাই নির্ভর করে এর উপর। সঙ্গমের ইচ্ছা তখনই বাড়বে, শরীর যখন সব দিক থেকে সুস্থ থাকবে। এর পাশাপাশি, কাজের ক্ষমতাও যথেষ্ট থাকবে। কী খেলে এই সব দিক ঠিক থাকবে, তা জেনে নেওয়া প্রয়োজন। চিকিৎসকদের একাংশ বলে থাকেন, যে সব খাবার খেলে হৃদ্‌যন্ত্র সুস্থ থাকে, সে সব খেলেই বাড়ে সঙ্গমের ইচ্ছা এবং ক্ষমতাও। জেনে নেওয়া যাক সঙ্গমের ইচ্ছা বাড়াতে কোন খাবার খাওয়া যেতে পারে। মাংস: যে কোনও ধরনের মাংসেই থাকে প্রোটিন। এ ছাড়াও, মাংসে থাকে অনেকটা পরিমাণ জিঙ্ক। তা-ও এ ক্ষেত্রে খুব জরুরি। তাতে রক্ত চলাচল বাড়ে। শরীর সতেজ থাকে। সঙ্গমের ইচ্ছাও বাড়ে। আপেল: আপেলে কুয়ারসেটিন নামক একটি পদার্থ থাকে। তা যৌন চাহিদা বাড়ায়। রেড ওয়াইন: রেড ওয়াইনে থাকে নানা রকম অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। ফলে এটি খেলে শরীরে রক্তচলাচল বাড়ে। সঙ্গে বাড়ে যৌন ইচ্ছাও।

cover

চুয়াডাঙ্গায় তিন মাসের বাছুরের মূল্য ২ লাখ টাকা

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় নেপালি জাতের একটি বাছুর ২ লাখ টাকায় বিক্রি বিক্রি করে রীতিমতো সাড়া ফেলেছেন ঐ উপজেলার বয়রা গ্রামের লাল্টু মল্লিক। তরুণ উদ্যোক্তা লাল্টু মল্লিক ঐ গ্রামের জিয়ারত মল্লিকের ছেলে। এত দামে বাছুর বিক্রির ঘটনায় এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। বাছুরটি দেখতে ভিড় জমাচ্ছে উৎসুক জনতা। লাল্টু মল্লিক বলেন, ২০ বছর ধরে নেপালি জাতের একটি গাভি লালন-পালন করছি। সম্প্রতি গাভিটি একটি বাছুর প্রসব করে। বর্তমানে বাছুরের বয়স সাড়ে তিন মাস। গত শনিবার ২ লাখ টাকায় বছুরটি কেনেন পার্শ্ববর্তী চাঁদপুরের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম। বাছুরটি এখনো লাল্টু মল্লিকের বাড়িতেই আছে। এক মাস পর সেটি নিয়ে যাবেন ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মশিউর রহমান বলেন, তরুণ উদ্যোক্তা লাল্টুর সাফল্যের কথা আমি শুনেছি। খামার উন্নয়নে তাকে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে। তার মতো কেউ গরুর খামার করতে চাইলে সহযোগিতা করা হবে।

cover

রেললাইনের পাশে পিঠা বিক্রি করেই ঢাকায় জমি কিনলেন রাশিদা!

প্রবল ইচ্ছা, ধৈর্য, পরিশ্রম থাকলেই জীবনে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব। আর সেই লক্ষ্যে পৌঁছে জীবনের বাস্তবতা প্রমাণ করলেন রাশিদা বেগম। মগবাজারে রেললাইনের পাশেই পিঠা বিক্রি করে রাশিদা রাজধানীতে কিনেছেন এক খণ্ড জমি। সেই সঙ্গে সন্তানদেরও করাচ্ছেন লেখাপড়া। মালিবাগ মোড় থেকে রেললাইন ধরে মগবাজারের দিকে দুই মিনিট হাঁটলেই বাম পাশে দেখা মিলবে রাশিদা বেগমের। বিকেল ৫টায় তার নিজস্ব দোকান খোলেন, বন্ধ করেন রাত ৯টা সাড়ে ৯টার মধ্যে। তিনটি মাটির চুলার মধ্যে একটিতে ভাপা পিঠা ও অন্য দুটিতে চিতই পিঠা বানায় রাশিদা। প্রতিটি ভাপা ১০ টাকা ও চিতই পিঠার দাম ৫ টাকায় বিক্রি করেন। এই সময়ের মধ্যে প্রতিদিন এক থেকে দেড় হাজার টাকার পিঠা বিক্রি করেন তিনি। রাশিদা বলেন, বিয়ার পরপরই পিঠা বিক্রি শুরু করছি। স্বামী-স্ত্রী দুজনে মিলে খাটাখাটি শুরু করি। আমার স্বামীর আগে একটা রিকশা ছিল। দুজনের পরিশ্রমে এখন তার একটা ছোট ফার্নিচারের দোকান আছে। আমিও গত ১১ বছর ধরে পিঠা বিক্রি করছি।  দীর্ঘ কিংবা স্বল্প যেকোনো ভাবেই সংজ্ঞায়িত হোক না কেন, রজধানীর বুকে এক টুকরো থাকার জায়গা করতে তার পরিশ্রমটা ১১ বছরের।

cover

দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে ১ টাকায় শিঙাড়া বিক্রি করছেন সচিন!

দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে শিঙাড়া বিক্রি করছেন দিনাজপুর শহরের গুদুরী বাজার এলাকার সচিন কুমার ঘোষ। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত মাত্র ২ ঘণ্টা শিঙাড়া বিক্রি করেন তিনি। সচিনের শিঙাড়ার বিশেষত্ব হলো আকারে ও দামে। ছোট আকৃতির এই শিঙাড়ার মূল্য নিচ্ছেন মাত্র ১ টাকা। সচিন কুমার ঘোষ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, যাদের পাঁচ টাকা দামের শিঙাড়া কেনার সামর্থ্য নেই, কিন্তু মুখরোচক এই খাবারটি খেতে মন চায় আমি তাদের জন্যই বানাই। ছোটবেলায় এক টাকায় চারটি শিঙাড়া কিনেছি। সেখানে এখন একটির দাম ৫ টাকা থেকে ৮ টাকা। সব ধরনের ক্রেতাই তার দোকানে আসেন বলে তিনি জানান। দোকানে শিঙাড়া খেতে আসা ক্রেতারা জানান, ২০০৪ সাল থেকে সচিন দোকানের শিঙাড়া বিক্রি করছেন। এই দোকানে মাত্র ১ টাকায় শিঙাড়া পাওয়া যাচ্ছে এটা অবিশ্বাস্য ও অকল্পনীয়।

cover

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীর অনশন!

বরিশালসারাদেশ
১৯ দিন আগে

বরিশালের হিজলা উপজেলার বড়জালিয়া ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে বসেছে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সকালে ওই ছাত্রী অনশন শুরু করে। অনশনকারী বড়জালিয়া ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামে পূর্ব শ্রীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী। তাদের দুজনের বাড়ি একই গ্রামে। অনশনকারী ছাত্রীর দাবি, গত এক বছর ধরে ওই ছেলের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক চলেছে। তারা একে অপরকে ভালোবাসে। তবে এ খবর তার বাবা-মা জানার পর অন্যত্র বিয়ে দিতে পাত্র ঠিক করেছে। বিষয়টি সে জানতে পেরে প্রেমিককে অবহিত করে। কিন্তু তার প্রেমিক বেকার বলে এ মুহূর্তে বিয়ে করা সম্ভব না বলে জানিয়ে দেয়। তাই প্রেমিকের অভিভাবকদের রাজি করাতে অনশন করছে বলে জানিয়েছে প্রাথমিকের এ ছাত্রী। এসআই আরিফ হোসেন জানিয়েছেন, অনশনকারীর বাবার কোনও অভিযোগ না থাকায় আইনি পদক্ষেপ নিতে পারিনি।

cover

শপথ নিলেন উত্তরা প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিতরা

উত্তরা প্রেসক্লাবের (২০২১-২০২২ সেশন) আগামি এক বছরের জন্য দায়িত্বভার বুঝে নিতে শপথ গ্রহণ করেছেন ক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটির সদস্যরা। মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর ২০২১) উত্তরার একটি পার্টি সেন্টারে তারা শপথ নেন। শপথ নেন সভাপতি রাসেল খান ও সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন। এছাড়াও শপথ নেন উত্তরা প্রেসক্লাব ২০২১-২২ সেশনের নবনির্বাচিত কমিটির অন্যান্য সদস্যরা। শপথ বাক্য পাঠ করান বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি আবু জাফর সূর্য। শপথগ্রহণ শেষে নবনির্বাচিত কমিটিকে ক্ষমতাপত্র বুঝিয়ে দেন উত্তরা প্রেসক্লাবের সাবেক আহ্বায়ককাজী রফিক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য ও মাইটিভির বার্তা প্রধান মাহমুদ আল ফয়সাল ও উত্তরা প্রেসক্লাবের সদস্যবৃন্দ।

cover

স্ত্রীকে ফিরে পেতে গাছে গাছে স্বামীর ২৫টি বিলবোর্ড!

নরসিংদী শহরের নাগরিয়াকান্দি এলাকায় বৃদ্ধা মাকে নিয়ে বসবাস করেন ইজিবাইক চালক মজিবর রহমান। কয়েক বছর আগে রায়পুরা উপজলোর মরজাল কামারটকে এলাকার নজরুল ইসলামের বড় মেয়ে সুমি বেগমের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক শেষ পর্যন্ত বিয়েতে গড়ায়। প্রায় দেড়মাস আগে মজিবর রোজগারের সন্ধানে ইজিবাইক নিয়ে বের হয়ে বাড়ি ফিরে দেখেন প্রিয়তমা স্ত্রী ঘরে নেই। মার কাছ থেকে জানতে পারেন- সুমি তার বাবার বাড়ি চলে গেছেন। পরদিন ছুটে যান শ্বশুরবাড়ি। সেখানেই সুমির সন্ধান পান। স্ত্রীকে আনতে চাইলেও বাধা দেন শাশুড়ি লিলি বেগম। এ সময় জানতে পারেন- শাশুড়ি ফুসলিয়ে সুমিকে তার স্বামীর বাড়ি থেকে নিয়ে আসেন। পরিবারের বড় হওয়ায় সুমিকে শিবপুর উপজেলার বিসিক আমতলার একটি গার্মেন্টে চাকরি দেন মা লিলি বেগম। স্ত্রী না আসায় মজিবর একপ্রকার পাগলপ্রায় হয়ে পড়েন। প্রিয়তমা স্ত্রীকে ফিরে পেতে নরসিংদী শহর ও সুমির সম্ভাব্য যাতায়াত পথসহ বিভিন্ন স্থানে ২৫টি বিলবোর্ড টানিয়েছেন মজিবর। তিনি বলেন, দীর্ঘ দেড় বছরের প্রেম, তারপর বিয়ে, সুমিকে অনেক ভালোবাসেন তিনি। বিয়ের দেড় বছরে একবারও ঝগড়া হয়নি। হয়নি কোনো গালমন্দও। তাকে না পেলে বাঁচবেন না।

cover

হজমশক্তি বৃদ্ধিতে কাঁচা হলুদ

স্বাস্থ্য
১ মাস আগে

স্বাস্থ্যের যত্ন নিতে কাঁচা হলুদ অত্যন্ত উপকারী একটি উপাদান। বিশেষ করে সকালে উঠে খালি পেটে একটু কাঁচা হলুদ খেলে নানা রকম রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এছাড়া কাঁচা হলুদ হজমশক্তি বাড়িয়ে খাবার পরিপাকে সাহায্য করে। নিয়মিত কাঁচা হলুদ খেলে যেসব স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যায়: কাঁচা হলুদের প্রধান উপাদান কারকিউমিন হাড়ের ক্ষয়কে রোধ করে। কাঁচা হলুদ হজমশক্তি বাড়িয়ে খাবার পরিপাকে সাহায্য করে। ইনফ্লেমেটরি ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকায় কাঁচা হলুদ বিভিন্ন ধরণের ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ থেকে খাদ্যনালীকে সুরক্ষিত রাখে। রক্তে শর্করার মাত্রাকে ঠিক রাখতে সাহায্য করে কাঁচা হলুদ। হলুদে থাকা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান দাঁতকে জীবাণু সংক্রমণ থেকে মুক্ত রাখে। দাঁতের মাড়িকে মজবুত করে তোলে। হলুদে প্রচুর পরিমাণে আয়রন আছে। রক্তে আয়রনের পরিমাণ কমে গেলে তা বাড়াতে ভূমিকা রাখে হলুদ। দীর্ঘ দিন যাবৎ যারা কোলেস্টরলের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য কাঁচা হলুদ ম্যাজিকের মত কাজ করবে।

cover

হঠাৎ রাতে ঘুম ভেঙে গেলে কেন সহজে ফের ঘুম না

জীবনযাপন
১ মাস আগে

রাত ৩টা থেকে ৪টা’র মধ্যে ঘুম ভেঙে যাওয়া অত্যন্ত স্বাভাবিক। আপনি একা নন, অনেকেরই নাকি এই ধরনের অভিজ্ঞতা হয়েই থাকে। কেন এমন হয়? বিশেষজ্ঞদের মতে, এই সময়ে শরীরের তাপমাত্রা বাড়া শুরু করে, ঘুম পাতলা হওয়া শুরু করে, ঘুমের হরমোন মেলাটোনিন ইতিমধ্যেই সবচেয়ে বেশি ক্ষরণ হয়ে গিয়েছে, করটিসোল হরমোন (মানসিক চাপ) বাড়া শুরু করে (আগামী দিনের জন্য শরীরকে প্রস্তুত করে)। ভোর হওয়া, বা দিনের আলো ফোটার মতো পারিপার্শ্বিক ঘটনার সঙ্গে এই সব বদলের খুব একটা যোগ সাধারণত থাকে না। শরীরের স্বাভাবিক নিয়মেই এই বদলগুলি ঘটতে থাকে। তাই শেষ রাতের দিকে ঘুম ভেঙে যাওয়া অত্যন্ত স্বাভাবিক ঘটনা। বিশেষজ্ঞরা বলেন, যে কোনও মানুষের সারা রাতে একাধিক বার ঘুম ভাঙে। কিন্তু ঘুম যখন গাঢ় হয়, তখন এই ঘুম ভেঙে যাওয়াগুলি খুব একটা টের পাওয়া যায় না। কিন্তু শেষ রাতে ঘুম পাতলা হওয়ায় আমাদের চেতনা অনেক বেশি সজাগ থাকে। মানসিক চাপ বেশি থাকলেও ঘুম ভেঙে যাওয়া নিয়ে অনেক বেশি সজাগ হয়ে যায় মস্তিষ্ক।

coverশীর্ষ খবর

মোস্তাফিজের পর মেহেদীর জোড়া আঘাত

মোস্তাফিজের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে মেহেদি হাসানের জোরা আঘাত। নিজের দ্বিতীয় ওভারে বিধ্বংসী ক্রিস গেইল এবং এরপর নিজের তৃতীয় ওভারে আরেক ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব শিমরন হেটমায়ারকে বিদায় করলেন বাংলাদেশি স্পিনার মেহেদী হাসান। এরআগে ইনিংসের তৃতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসেই সাফল্য পান মোস্তাফিজুর রহমান। এই কাটার মাস্টারের বলে মুশফিকুর রহিমের বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ক্যারিবীয় তারকা ওপেনার এভিন লুইস। শুক্রবার আরব আমিরাতের শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৮ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ৩৯ রান।

cover

গাজীপুরে মুরগির স্মার্ট খামার!

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বরইতলী গ্রামের বংশাই নদীর তীরে নিজ পৈতৃকভিটায় মুরগির স্মার্ট খামার গড়ে তুলেছেন ইমরুল হাসান। বুয়েট থেকে পাস করে কিছুদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতার পর দেশে-বিদেশে  টেলিকমিউনিকেশন সেক্টরে কাজ করেছেন। এরপর নিজ দেশে অর্গানিক খাবার যোগানের আশায় গড়ে তুলেছেন এ খামার। প্রকৌশলবিদ্যার অনেক কিছুই কাজে লাগাচ্ছেন খামারে। যেমন খামারের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ, আলো-বাতাসের পর্যাপ্ততা নির্ণয়, পানি ব্যবস্থাপনা। সবই নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে কম্পিউটারের মাধ্যমে। খামারের একটি অংশে ব্রয়লার মুরগি। মুরগিগুলোর চলাফেরার জন্য যথেষ্ট জায়গা রেখেছেন। এমনকি শেডের বাইরে উন্মুক্ত স্থানে ঘুরে বেড়াবার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। কোনোরকম অ্যান্টিবায়োটিক ছাড়াই শতভাগ অর্গানিক খাদ্য নিশ্চিত করছেন মুরগির জন্য। এছাড়া মুরগির রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে নিয়মিত আপেল সিডার ভিনেগার  খাওয়ানো হয়। মুরগিকে দানাদার খাবারের পাশাপাশি লাল শাক, শজনেপাতা ইত্যাদি খাবারও দেওয়া হয়। খামারের দ্বিতীয় অংশে ৩ হাজার কালার বার্ড অর্থাৎ সোনালি জাতের মুরগি আছে। তার পাশেই দেড় শ মুরগি একেবারেই উন্মুক্ত রেখে লালনপালন করছেন। নানাভাবেই পরীক্ষা নিরীক্ষা করে এগোচ্ছেন তিনি। গত ডিসেম্বরে শুরু করা এই অর্গানিক চিকেন খামার মাত্র ১০ মাসেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

cover

আতশবাজি, কেক কেটে একমাত্র ছাগলের জন্মদিন পালন!

প্রিয় পোষা একমাত্র ছাগলের জন্মদিন কেক কেটে, আতশবাজি ফাটিয়ে পালন করলেন এক যুবক। জানা গেছে, শুক্রবার রাতে টেকনাফের বাহারছড়া শামলাপুর বাজারে শতশত উৎসুক জনতাকে সঙ্গে নিয়ে নিজের আদরের পোষা ছাগলের জন্মদিন পালন করেন সাইফুল। এ সময় কেক কেটে উপস্থিত সকলকে মিষ্টিমুখ করানো হয়। কেক কাটার পর আতশবাজি পুড়িয়ে আনন্দে মেতে ওঠেন উপস্থিত সবাই। ছাগলের মালিক সাইফুল ইসলাম জানান, আমার পোষা ছাগলটির বয়স একবছর পূর্ণ হলো শুক্রবার। তাই নিজের ভালো লাগা থেকেই প্রিয় ছাগলটির জন্মদিন পালন করলাম।

cover

পুঁ‌জি ছাড়াই ৭ মাসে লাখপতি সাদিয়া মৌ!

এক্সক্লুসিভ
১ মাস আগে

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক দ্বিতীয় ব‌র্ষের শিক্ষার্থী সা‌দিয়া ইসলাম মৌ। সাত মাসেই হন মিলিয়নিয়ার। সা‌দিয়া ইসলাম মৌয়ের উ‌দ্যোক্তা হওয়ার গল্পের শুরুটা সহজ ছি‌ল না। কারণ, পুঁ‌জি নেই, তার ওপর ক‌রোনাকালীন প‌রি‌স্থি‌তি‌তে বাসা থে‌কে বাই‌রে বের হওয়ার অনুম‌তি নেই। তবুও তীব্র ইচ্ছাশ‌ক্তি ছিল। বন্ধুর কাছ থে‌কে ৪ হাজার টাকা ধার নিয়ে বাবা-মা‌কে বোঝা‌লেন, তারপর শুরু কর‌লেন। তৈরি করলেন একটা অনলাইন প্ল্যাটফর্ম। ধীরে ধীরে রংপুরে পরিচিত হলেন। এরপর তার বাবার চাকরি সূত্রেই রংপুর থেকে কুমিল্লায় গে‌লেন। কুমিল্লা এসে যুক্ত হয়ে গেলেন সেখানকার সেলার হিসেবে। কুমিল্লা এসে কাজ শুরু করলেন একদম নতুনভাবে। সেখানকার ঐতিহ্যবাহী খাদি পোশাক নিয়ে। খাদি কাপড়ের পাঞ্জাবি, শাড়ি, থ্রিপিস এগুলো তার প্রধান বিক্রির পণ্য। অল্প সময়ে অবাক করার মতো সাফল্য পেলেন। হলেন লাখপ‌তি। সা‌দিয়া ইসলাম মৌ ব‌লেন, ‘সাত মাসের ব্যবসায়ী জীবনে সেল করেছি প্রায় ২০ লাখ টাকা। সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। তি‌নি আমাকে পরিশ্রম করার মতো শক্তি দিয়েছেন, সুস্থ রেখেছেন। প্র‌তিকূলতা ছা‌পি‌য়ে এমন শূন্য থে‌কেই শুরুর গল্প ছিল।’

cover

কন্যাসন্তান হওয়ার খুশিতে অতিরিক্ত পেট্রোল দিচ্ছে পাম্প মালিক!

ভারতের মধ্যপ্রদেশের বেতুলে একটি পরিবারে কন্যা সন্তান জন্ম নিলে খুশিতে ৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ অতিরিক্ত পেট্রোল দিচ্ছেন পেট্রোল পাম্পের মালিক। এর কারণ উৎসব নয় বরং পরিবারে কন্যা সন্তানের জন্ম। বেতুলের রাজেন্দ্র সায়ানীর ভাতিজি শিখা গত ৯ অক্টোবর একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। কন্যার জন্মের সময়, সায়ানী পরিবারের আনন্দের সীমা ছিল না। কন্যাসন্তানের জন্মকে স্মরণীয় করে রাখতে সায়ানী পরিবার তাদের পেট্রল পাম্পে ১৩ অক্টোবর থেকে ১৫ অক্টোবর গ্রাহকদের অতিরিক্ত পেট্রোল দেয়। পেট্রোল পাম্পের অপারেটর রাজেন্দ্র সায়ানি বলেন, আমরা ছেলের জন্ম উদযাপন করি কিন্তু আমার ভাই মেয়ে কন্যাসন্তান পেয়েছে, এ বিষয়ে আমরা গ্রাহকদের সঙ্গে নিজেদের আনন্দ ভাগ করে নিয়েছি এবং তিনদিনের জন্য প্রতিদিন কয়েক ঘণ্টা যারা পেট্রোল কিনবেন, তাদের অতিরিক্ত জ্বালানি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

cover

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় থাকবে ‘জো বাইডেনের’ দুই বোন!

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার ক্রমশ বড় হয়ে উঠছে বহুল আলোচিত বাঘ শাবক জো বাইডেনের পরিবার। সবশেষ তাদের পরিবারে এসেছে আরও দু’টি শাবক। সে সূত্রে এখন জো বাইডেনের দুই বোন থাকবে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায়। চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. শাহাদাত হোসেন শুভ জানান, জো বাইডেন জয়ার প্রথম বাচ্চা। এখন তার আরও দুটি বাচ্চা হয়েছে। যাদের জো বাইডেনের বোন বলেই চিহ্নিত করা হয়েছে। এ নিয়ে জো বাইডেনের পরিবারের সদস্য সংখ্যা এখন চার। তাদের পাশাপাশি চিড়িয়াখানার খাঁচায় রাখা হয়েছে। গত ৫ বছরে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ১০টি বাঘ শাবকের জন্ম হয়েছে। মূলত ২০১৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ৩৩ লাখ টাকায় কিনে আনা বাঘ দম্পতি রাজ-পরী'র সংসারে প্রথম আসে জয়া। আর জয়ার পরিবারে প্রথম জন্ম নেয় জো বাইডেন। মা জয়া হিংস্র আচরণ করায় জো বাইডেন পালিত হয়েছিল চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডাক্তার শুভ'র কাছে। জয়ার সংসারে জন্ম নেয় দুর্লভ প্রজাতির সাদা বাঘ শুভ্রা। আর শুভ্রা'র বাচ্চাকেও এখন প্রতিপালন করতে হচ্ছে ডাক্তার শুভকে।


Ridmik News is the most used news app in Bangladesh. Always stay updated with our instant news and notification. Challenge yourself with our curated quizzes and participate on polls to know where you stand.

news@ridmik.news
support@ridmik.news
© Ridmik Labs, 2018-2021