Link copied.
মিয়ানমার
cover

DVB calls on Thailand not to deport its journalists to Myanmar

Three Myanmar journalists and two activists are set to appear in a court in Thailand on Tuesday charged with “illegal entry” as the reporters’ news organisation urged the authorities not to deport them to Myanmar because their lives would be at risk. The group was detained during a “random search” in the northern city of Chiang Mai on Sunday, DVB said in a statement. “DVB strongly urges the Thai authorities not to deport them back to Burma, as their life will be in serious danger if they were to return,” said Aye Chan Naing, DVB’s executive director and chief editor. The generals who seized power from Myanmar’s democratically elected government on February 1 have cracked down on the country’s independent media, forcing organisations to stop broadcasts and publication, and arresting dozens of journalists.

cover

Myanmar military bans satellite TV, charges Japanese journalist

Myanmar’s military-controlled media has announced a ban on satellite television dishes, saying outside broadcasts threaten national security, as the generals who seized power in a coup on February 1 charged a Japanese journalist with spreading false news. “Satellite television is no longer legal. Whoever violates the television and video law, especially people using satellite dishes, shall be punished with one year imprisonment and a fine of 500,000 kyat ($320),” MRTV state television said on Tuesday. “Illegal media outlets are broadcasting news that undermines national security, the rule of law and public order, and encouraging those who commit treason.” The generals, led by army chief Min Aung Hlaing, arrested elected leader Aung San Suu Kyi and members of her government on February 1 as they seized power, ending Myanmar’s sluggish progress towards democracy.

cover

Myanmar risks coming to standstill as violence worsens

The UN special envoy on Myanmar told the Security Council on Friday that in the absence of a collective international response to the country's coup, violence is worsening and the running of the state risks coming to a standstill, according to diplomats who attended the private meeting. Christine Schraner Burgener briefed the 15-member council from Thailand, where she has been meeting with regional leaders. She still hopes to travel to Myanmar - where a February 1 military coup ousted an elected government led by Aung San Suu Kyi - but the military is yet to approve a visit. Pro-democracy protests have taken place in cities and towns across the country since the coup.

cover

গৃহযুদ্ধের পথে হাটছে মিয়ানমার

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হয়ে উঠছে। গণতন্ত্রকামীদের প্রবল বিক্ষোভের পর এবার বার্মিজ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে বেশ কয়েকটি বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সংগঠন। ফলে দেশটিতে গৃহযুদ্ধের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাতে জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার মিয়ানমারের বিমানবাহিনীর ঘাঁটিতে রকেট হামলা চালানো হয়। সেনাবাহিনীর সূত্রে খবর পাওয়া যায়, মাগওয়ে শহরের বিমানবাহিনীর ঘাঁটিতে আছড়ে পড়ে চারটি রকেট। এছাড়াও মধ্য মিয়ানমারের মেইকটিলা বিমানবাহিনীর ঘাঁটিতেও আঘাত হানে পাঁচটি রকেট। এই হামলার দায় এখনও কেউ স্বীকার করেনি বলে জানিয়েছে টাটমাদাও বা বার্মিজ সেনাবাহিনী। এই ঘটনার নেপথ্যে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন ‘কাচিন ইন্ডিপেনডেন্স আর্মি’র (কেআইএ) হাত আছে বলে মনে করা হচ্ছে।

cover

মিয়ানমারের ওপর ইইউর আরও নিষেধাজ্ঞা

মিয়ানমারে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ওপর হত্যাযজ্ঞ ও নিপীড়ন অব্যাহত রাখায় দেশটির ১০ সেনা কর্মকর্তা ও সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত দুটি প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। ১ ফেব্রুয়ারি সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে দেশজুড়ে বিক্ষোভ, ধর্মঘট ও অসহযোগ আন্দোলন চলছে। এ আন্দোলনে জান্তার হাতে ৭৩৭ গণতন্ত্রপন্থি নিহত হয়েছেন। গ্রেপ্তার হয়েছেন তিন হাজারের বেশি মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে সোমবার নতুন করে নিষেধাজ্ঞা দেয় ইইউ। এদিকে, জান্তার হাতে আটক ছয় তরুণ বিক্ষোভকারীর রক্তাক্ত ও বীভৎস ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। তাদের হেফজাতে নিয়ে ভয়াবহ নির্যাতন চালায় সেনাবাহিনী। এতে ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। ইইউর ভার্চুয়াল সভায় জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস বলেন, মিয়ানমারের জান্তা সহিংসতা অব্যাহত রেখেছে। এতে দেশটি 'মৃত্যু প্রান্তরে' পরিণত হচ্ছে। এ কারণে তাদের সমঝোতার টেবিলে আনার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

cover

মিয়ানমারে রাতভর অভিযানে নিহত ৬০

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতভর অভিযান চালিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। এসময় তাদের নির্বিচার গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে ৬০ জন। তবে ভুক্তভোগী পরিবার বা স্থানীয়রা নিহত সবার মরদেহ সংগ্রহ করতে পারেনি, সেগুলোর বেশিরভাগই নিরাপত্তা বাহিনী নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিক্ষোভ দমনে জান্তা বাহিনী বন্দুকের পাশাপাশি মেশিনগানের গুলি, গ্রেনেড এবং মর্টার ব্যবহার করেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। মার্কিন সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত সংবাদমাধ্যম রেডিও ফ্রি এশিয়ার (আরএফএ) এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, শুক্রবার মিয়ানমারের বাগো শহরে গুলিবৃষ্টি চালিয়েছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী। রাজপথে বিক্ষোভকারীদের ব্যারিকেডও তুলে নিয়েছে তারা। এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, আমাদের এলাকার লোকজন জানত ওরা আসবে এবং এর জন্য রাতভর অপেক্ষা করছিল।

cover

Myanmar military sentences 19 to death, says anti-coup protests dwindling

Nineteen people have been sentenced to death in Myanmar for killing an associate of an army captain, the military owned Myawaddy TV station said on Friday, the first such sentences announced in public since a February 1 coup and crackdown on protesters. The report said the killing took place on March 27 in the North Okkalapa district of Yangon, Myanmar's biggest city. Martial law has been declared in the district, allowing courts martial to pronounce sentences. The military rulers who overthrew an elected government said on Friday that a protest campaign against its rule was dwindling because people wanted peace, and that it would hold elections within two years, the first timeframe it has given for a return to democracy. Troops fired rifle grenades at anti-coup protesters on Friday in the town of Bago, near Yangon, witnesses and news reports said. At least 10 people were killed and their bodies piled up inside a pagoda, they said.

cover

মিয়ানমারে বিক্ষোভে জুতার ব্যবহার, অভিনেতা গ্রেপ্তার

মিয়ানমারের সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে এবার প্রতিবাদ হিসেবে জুতা ব্যবহার করলেন অধিকারকর্মীরা। অন্যদিকে আরও একজন মডেল ও অভিনেতা পাইং তাখোন’কে গ্রেপ্তার করেছে নিরাপত্তা রক্ষাকারীরা। তাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে তা জানা যায়নি। বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে আজ বৃহস্পতিবার পাইং তাখোনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদিকে ইয়াঙ্গুনে নিহত বিক্ষোভকারীদের ফুল দিয়ে স্মরণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে বিক্ষুব্ধ লোকজন সেখানে জুতা রেখে যান প্রতিবাদ হিসেবে। বুধবারও গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীদের প্রতি প্রকাশ্যে গুলি ছুড়েছে সেনাবাহিনী। এতে কমপক্ষে ১৫ জন নিহত ও কয়েক ডজন মানুষ আহত হয়েছেন। সব মিলে নিহতের সংখ্যা প্রায় ৬০০। আটক করা হয়েছে কমপক্ষে ২৮৪৭ জনকে। শত শত মানুষের বিরুদ্ধে ইস্যু করা হয়েছে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা। এ সপ্তাহে সামরিক জান্তা দৃষ্টি দিয়েছে আন্দোলেনে প্রভাবশালী, বিনোদন জগতের তারকা, আর্টিস্টস ও মিউজিশিয়ানদের দিকে।

cover

Myanmar's UK envoy says military attache has 'occupied' embassy

Myanmar's ambassador in London has spent the night in his car after saying he was locked out of his embassy. Kyaw Zwar Minn said staff were asked to leave the building by Myanmar's military attaché on Wednesday night, and he was told he was no longer the country's representative. Myanmar's military seized power in a coup on 1 February, sparking weeks of protests and escalating violence. Kyaw Zwar Minn has called for ousted leader Aung San Suu Kyi to be released. More than 500 people - including dozens of children - have been killed so far as pro-democracy protesters demand a return to power of elected leader Ms Suu Kyi and her National League for Democracy (NLD) party.

coverশীর্ষ খবর

মিয়ানমারে গুলিতে নিহত ৭, চীনা কারখানায় আগুন

মিয়ানমার সেনাবাহিনী বুধবারও অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে গুলি চালিয়েছে। এতে অন্তত আরও সাতজন বিক্ষোভকারী নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম থেকে জানা গেছে। এদিকে এ দিন বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গুনে একটি চীনা মালিকানাধীন কারখানায় আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। একইসঙ্গে চীনা পতাকাও পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। মিয়ানমারজুড়ে বিক্ষোভ, ধর্মঘট, অসহযোগের মতো আন্দোলন কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছেন গণতন্ত্রপন্থীরা। এরমধ্যে দেশটির সামরিক শাসক কর্তৃপক্ষ বলছে, নাগরিক ‘অবাধ্যতার আন্দোলন’ মিয়ানমারকে ‘ধ্বংস করে দিচ্ছে’। মিয়ানমারে প্রায় দুই মাস ধরে চলা বিক্ষোভে অন্তত ৫৮০ জন নিহত হয়েছেন নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে। গত ১ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে রক্তপাতহীন সেনা অভ্যুত্থানের পর বিক্ষোভ চলতেই আছে। বিরোধীদের দমন করার জন্য সামরিক বাহিনী প্রাণঘাতী শক্তি ব্যবহার করলেও দেশব্যাপী বিক্ষোভ ও ধর্মঘট অব্যাহত।

cover

7 killed in Myanmar as troops open fire on protesters

Myanmar troops fired at anti-coup protesters on Wednesday, killing at least seven people and wounding several, media said, as activists defied a bloody crackdown and internet blockade by the ruling junta. More than 580 people have been killed, according to an activist group, in the turmoil in Myanmar since a February 1 coup that ended a brief period of civilian-led democracy. Nationwide protests and strikes have persisted since then despite the ruling military's use of lethal force to quell the opposition. Security forces opened fire on Wednesday on protesters in the north-western town of Kale as they demanded the restoration of Aung San Suu Kyi's civilian government, a resident told Reuters. News outlets cited witnesses saying there were casualties and repeated gunfire. The Mizzima and Irrawaddy news outlets said five people were killed and several wounded.

cover

মিয়ানমারে অভ্যুত্থান-বিরোধী বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৭০

মিয়ানমারে অভ্যুত্থান-বিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। তাদের দমাতে কড়া অবস্থানে রয়েছে সেনাসরকার। এই অবস্থায় মিয়ানমারে সামরিক শাসনবিরোধী বিক্ষোভে সশস্ত্র ও নিরাপত্তা বাহিনীর সহিংস অবস্থানে দেশটিতে সোমবার পর্যন্ত অন্তত ৫৭০ জন নিহত হয়েছে। এদিকে, বিক্ষোভ শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত দুই হাজার সাত শ’ ২৮ জনকে বন্দী করেছে সামরিক জান্তা। এছাড়া গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে আরও ৪৪৩ জনের বিরুদ্ধে। সাধারণ নাগরিকদের ঘরে ঘরে হানা দিচ্ছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী, বাদ যাচ্ছেন না সেলিব্রেটিরাও। উল্লেখ্য, গত ১ ফেব্রুয়ারি হঠাৎই শাসনক্ষমতা নিজেদের হাতে তুলে নেয় মিয়ানমার সেনাপ্রধান। এই অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে পথে নামে দেশের আমজনতা।

cover

৪০ সেলিব্রেটির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মিয়ানমার জান্তার

মিয়ানমারে জান্তা শাসনের বিরোধিতা করায় প্রায় ৪০ জন সেলিব্রেটিকে গ্রেপ্তারের জন্য পরোয়ানা জারি করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এই দলে সামাজিক মাধ্যম তারকা, সংগীতশিল্পী, মডেল রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর মধ্যে মতবিরোধ প্ররোচিত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। এরপর থেকে দেশটিজুড়ে বিক্ষোভ ও অসহযোগ আন্দোলন চলছে। এসব বিক্ষোভ দমনের নামে নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞ চালায় জান্তানিয়ন্ত্রিত নিরাপত্তা বাহিনী। দুই মাসের বিক্ষোভে মৃত্যুসংখ্যা বেড়ে ৫৫৭ হয়েছে। অধিকার সংস্থা অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স (এএপিপি) এই তথ্য জানিয়েছে। আর আটক করা হয়েছে ২ হাজার ৬৫৮ জনকে।

cover

মিয়ানমারে আরও ৫ আন্দোলনকারীকে গুলি করে হত্যা

মিয়ানমারে গণতন্ত্রপন্থীদের আন্দোলনে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে আরও পাঁচজনকে হত্যা করেছে সামরিক জান্তার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটিতে সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে এ নিয়ে সাড়ে পাঁচ শতাধিক বেসামরিক মানুষকে হত্যা করল মিয়ানমারের জান্তা সরকার। শনিবার দেশটির তিনটি শহরে এ গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে মধ্যাঞ্চলীয় শহর মোনিওয়াতে ৩ জন, বাগো শহরে একজন এবং দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর থাতোনে একজন মারা যান পুলিশের গুলিতে। আন্দোলনকারীরা সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, শনিবার মোনিওয়া শহরে বিক্ষোভ মিছিলে নির্বিচারে গুলি চালায় জান্তা সরকারের পুলিশ বাহিনী। এ সময় তারা স্টান গ্রেনেড নিক্ষেপ করেও আতঙ্ক ছড়ায়। এ পর্যন্ত ৫৫০ জনকে গুলি করে হত্যা করেছে জান্তা সরকারের পুলিশ বাহিনী, এদের মধ্যে ৪৬ শিশুও রয়েছে।

cover

‘গেরিলা হামলার’ ডাক মিয়ানমারের বিক্ষোভকারীদের

মিয়ানমারের ক্ষমতা দখলকারী সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে সামনের দিনগুলোতে ‘গেরিলা’ পদ্ধতিতে ধর্মঘট অব্যাহত রাখতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশটির গণতন্ত্রকামী বিক্ষোভকারীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতভর মোমবাতি জ্বালিয়ে সামরিক জান্তার ক্ষমতা দখলের প্রতিবাদের সময় এই আহ্বান জানান বিক্ষোভকারীরা। আজ শুক্রবার থেকে দেশটিতে ইন্টারনেটের ওপর সামরিক জান্তার দেওয়া নতুন বিধিনিষেধের মধ্যেই সংগঠিত হওয়ার উপায় বের করার চেষ্টা করছে। অভ্যুত্থানবিরোধী বিভিন্ন গোষ্ঠী এখন নিজেদের মধ্যে রেডিও তরঙ্গ, অফলাইন ইন্টারনেটের কায়দাকানুন ও মোবাইল বার্তার মাধ্যমে নিউজ এলার্ট সরবরাহকারীদের নাম্বার বিনিময় করে ইন্টারনেট ব্ল্যাকআউটকে পাশ কাটানোর চেষ্টা করছে। কর্তৃপক্ষ নতুন বিধিনিষেধ দেওয়ায় দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার এ দেশটিতে এখন কেবল ফিক্সড-লাইনেই ইন্টারনেট সেবা চালু আছে, তারবিহীন ব্রডব্যান্ড যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।


Ridmik News is the most used news app in Bangladesh. Always stay updated with our instant news and notification. Challenge yourself with our curated quizzes and participate on polls to know where you stand.

news@ridmik.news
support@ridmik.news
© Ridmik Labs, 2018-2021