Link copied.
খালেদা জিয়া
cover

জ্বর নেই, ভালো আছেন খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া করোনার টিকা নেওয়ার পরে যে সামান্য জ্বর এসেছিল সেটা এখন আর নেই। তিনি মোটামুটি ভালো আছেন। মঙ্গলবার রাতে খালেদা জিয়ার চিকিৎসক টিমের সদস্য বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বাংলানিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন। ডা. জাহিদ বলেন, ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে যে জ্বর এসেছিল সেটা এখন আর নেই। গত দু’দিন আগেই তিনি জ্বরমুক্ত হয়েছেন। তবে আগের যে সমস্যাগুলো ছিল সেগুলো আছে। হাসপাতাল থেকে বাসায় আনার সময় যে অবস্থা ছিল তার চেয়ে ভালো আছেন কিনা জানতে চাইলে ডা. জাহিদ বলেন, জি উনি এখন মোটামুটি ভালো। তবে পুরোপুরি ভালো হলে তো উনি হুইল চেয়ারে উঠতেন না, সেটাও আপনাদের বিবেচনা করতে হবে। উনিতো কারাগারে যাওয়ার আগে হেঁটে গিয়েছিলেন। কিন্তু কারাগার থেকে যেদিন ছাড়া পেলেন বা কারাগারে থাকা অবস্থায়ইতো তার হুইল চেয়ারে চলাফেরা করতে হয়েছে। তার মানে কোনো মানুষ যখন হুইল চেয়ারে উঠেন তখন তাকে সুস্থ বলা যায় না।

cover

তিন গরু দুই খাসি কোরবানি দিয়েছেন খালেদা জিয়া

ঈদের দিন তিনটি গরু ও দুটি খাসি কোরবানি দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার এ তথ্য জানিয়েছেন।দিদার বলেন, ম্যাডামের স্টাফদের জন্য তার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দুটি গরু কোরবানি দেয়া হয়েছে এবং বাসায় একটি গরু ও দুটি খাসি কোরবানি দিয়েছেন।

cover

টিকা নিয়ে জ্বরে আক্রান্ত খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মডার্নার টিকা নিয়ে জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁর স্বাস্থ্যের বর্তমান পরিস্থিতির বিষয়ে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) কভিড-১৯ থেকে মুক্ত হওয়ার পর এখন মোটামুটি ভালো আছেন। টিকা নেওয়ার কারণে সামান্য জ্বর এসেছে তাঁর। বুধবার (২১ জুলাই) রাতে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কথা শুনে তাকে দেখতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় যান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা। এ সময় তারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। দীর্ঘ এক বছর পর নেতারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পেয়েছেন বলে জানান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

coverশীর্ষ খবর

করোনার টিকা নিলেন খালেদা জিয়া

করোনা মুক্ত হওয়ার ২ মাস ১৩ দিন পর করোনার টিকা নিলেন বিএনপি চেয়ারপারস বেগম খালেদা জিয়া। ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের পরীক্ষা শেষে সোমবার (১৯ জুলাই) বিকেল ৪টায় রাজধানীর গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের টিকা কেন্দ্রে তিনি মডার্নার টিকা নেন। এর আগে বেলা সাড়ে ৩টায় গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা’ থেকে ছোট ভাই শামীম এস্কান্দারের গাড়িতে চড়ে তিনি হাসাপাতালের উদ্দেশে রওনা হন। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত কর্তকর্তারা সে সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

cover

দুপুরে করোনার টিকা নেবেন খালেদা জিয়া

রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে করোনার টিকা নেবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আজ সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুরে মহাখালীতে অবস্থিত হাসপাতালটিতে গিয়ে টিকা নেয়ার কথা রয়েছে তার। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবীর খান এ তথ্য জানিয়েছেন। শায়রুল বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আজ দুপুর ২টার দিকে রাজধানীর গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে করোনার টিকা নিতে যাবেন।

cover

পেয়েছেন এসএমএস, বাসায় টিকা নিতে চান খালেদা জিয়া

করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণে মোবাইল ফোনে এসএমএস পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তবে টিকা কেন্দ্রে গিয়ে নয়, বাসায় টিকা নিতে চান তিনি। গত ৯ জুলাই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘সুরক্ষা’ ওয়েবসাইটে টিকার জন্য নিবন্ধন ফরম পূরণ করার ৯ দিন পর টিকা নেওয়ার নির্ধারিত তারিখ উল্লেখ করে তাকে এসএমএস দেওয়া হয়। বিএনপি চেয়ারপারসনেরমিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গুলশানের নিজ বাসভবন ফিরোজায় করোনা টিকা নিতে চান খালেদা জিয়া। করোনার এ অবস্থায় বাইরে যাওয়া কোনোভাবেই নিরাপদ নয় বলে মনে করছেন তার চিকিৎসকরা।

cover

টিকা নিতে নিবন্ধন করেছেন খালেদা জিয়া

করোনার টিকা নেওয়ার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘সুরক্ষা’ ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তবে এখন পর্যন্ত তাকে টিকা দেওয়ার তারিখ জানানো হয়নি। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্যতম ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, ম্যাডাম মহাখালীর ন্যাশনাল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে টিকা নেবেন। এরআগে ৯ জুলাই ‘সুরক্ষা’ ওয়েবসাইটে টিকার জন্য নিবন্ধন ফরম পূরণ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। তবে টিকার দেওয়ার তারিখ নিবন্ধন ফরমে উল্লিখিত মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে এসএমএস করে জানিয়ে দেওয়া হয়। তবে এখন পর্যন্ত ওই এসএমএস পাননি বিএনপি নেত্রী। এরআগে তিনি করোনা পজিটিভ হয়েছিলেন। হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে তিনি করোনা মুক্ত হন।

coverশীর্ষ খবর

খালেদা জিয়ার ক্ষমা চাওয়া প্রশ্নই আসে না: বিএনপি

'দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়া ছাড়া খালেদা জিয়ার সু-চিকিৎসার জন্য বিদেশ যাওয়ার সুযোগ নেই’ -আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের এ বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বিএনপি। দলটির কেন্দ্রীয় দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, যিনি কোনো অপরাধই করেন নাই তার ক্ষমা চাওয়ারও প্রশ্নই আসে না। বৃহস্পতিবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। আইনমন্ত্রীর বক্তব্য সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে বলে দাবি করে প্রিন্স বলেন, খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার ক্ষেত্রে সরকার ইচ্ছাকৃত প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে।

cover

খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসা দিতে ১৫৫৭ সাংবাদিকের বিবৃতি

দেশের ১৫৫৭ সাংবাদিক এক যুক্ত বিবৃতিতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন। তারা খালেদা জিয়াকে আদালতে স্থায়ী জামিন প্রদানের মাধ্যমে জেল থেকে মুক্তি দেয়ারও দাবি জানান। বিবৃতিদাতারা বলেন, খালেদা জিয়া মারাত্মক অসুস্থ। তাঁর শারীরিক অবস্থা বর্তমানে খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। এ পরিস্থিতিতে তাঁর চিকিৎসা নিয়ে কখনো রাজনীতি কেনোমতেই বাঞ্ছনীয় নয়। বিবৃতিতে বলা হয়, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বয়স এখন ৭৬ বছর। এই প্রবীণ বয়সেও তিনি জেলবন্দী। অবশ্য সরকারের বিশেষ অনুমতিতে শর্তযুক্ত মুক্তিতে তিনি এখন নিজ বাসভবনে অবস্থান করছেন। নানা রোগাক্রান্ত হয়ে তিনি অত্যন্ত অসুস্থ। বিবৃতিদাতারা বলেন, দীর্ঘ চার বছর তাঁর যথাযথ কোনো চিকিৎসা হয়নি। কারাগারে অমানবিক পরিবেশেও তিনি অনেক নতুন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

cover

শঙ্কামুক্ত নন খালেদা জিয়া: মির্জা ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসক জানিয়েছে দেশনেত্রী করোনা থেকে মুক্ত হলেও এখনো শঙ্কামুক্ত নন। তিনি বলেন, কোভিড পরবর্তী বেশ কিছু জটিলতায় ভুগছেন তিনি। উনার পোস্ট কোভিড জটিলতা থেকে কিছুটা উন্নতি হয়েছে। এটাকে বড় ধরনের উন্নতি বলার সুযোগ নেই। তাই তাকে এখনি বিপদমুক্ত বলা যাচ্ছে না। মঙ্গলবার (২২ জুন) দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা জানান।

coverশীর্ষ খবর

বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া

রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে দীর্ঘ ৫৪ দিন পর বাসায় ফিরেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। শনিবার রাত সোয়া ৮টার দিকে হাসপাতাল থেকে গুলশানের ভাড়া বাসা ‘ফিরোজা’য় পৌঁছান তিনি। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, হাসপাতালে বেশিদিন থাকলে ইনফেকশনের শঙ্কা থাকে। তাই তাকে (খালেদা জিয়া) বাসায় নেওয়ার সিদ্ধান্ত দিয়েছে তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড। এর আগে গত ৩ জুন বিকালে তাকে হাসপাতালের সিসিইউতে (করোনারি কেয়ার ইউনিট) থেকে কেবিনে নেওয়া হয়। গত ১১ এপ্রিল বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর ২৭ এপ্রিল তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে ৩ মে তার শ্বাস কষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে স্থানান্তর করা হয়। ৮ মে তৃতীয় দফা নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা ফল নেগেটিভ আসে।

cover

ফুসফুস-কিডনি জটিলতায় জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন খালেদা জিয়া

ফুসফুস ও কিডনি জটিলতার কারণে বার বার জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা জানাতে গিয়ে সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, চিকিৎসকদের কাছ থেকে যতটুকু জেনেছি তার (খালেদা জিয়া) হার্টের সমস্যা আছে, সেই সমস্যা না গেলে তার লাঞ্চে পানি এসে, সেটা বন্ধ হবে না। যেটা তারা (চিকিৎসক) মনে করছেন যে, কিডনি ইজ নট ফাংশনিং প্রোপারলি। তার লিভারও ঠিকভাবে কাজ করছে না। যে কারণে জ্বর চলে গেলে আবারও আসছে। গতকাল তার জ্বর এসছিলো।

cover

আবারও খালেদা জিয়ার শরীরে জ্বর

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শরীরে রোববার সকালে আবারও জ্বর আসে। বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন বেগম জিয়ার মেডিকেল বোর্ডের একজন চিকিৎসক। তিনি বলেন, সকাল থেকে ম্যাডামের শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা বেশি ছিল। বিকাল থেকে তাপমাত্রা একশোর মধ্যে ওঠানামা করছে। মেডিকেল বোর্ডের বৈঠক হয়েছে। সেখানে চিকিৎসকরা তার কিছু পরীক্ষা এবং নতুন ওষুধ দিয়েছেন। গত ২৭শে মে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিলেন খালেদা জিয়া। গত ২৭ এপ্রিল খালেদা জিয়া এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। ৬ দিন পর ৩ মে তিনি শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে তাঁকে জরুরিভাবে করোনারি কেয়ার ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। এভারকেয়ার হাসপাতালের হৃদ্রোগ বিশেষজ্ঞ শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা চলছে।

coverশীর্ষ খবর

খালেদা জিয়ার জন্মদিন সংক্রান্ত নথি হাইকোর্টে দাখিলের নির্দেশ

জাতীয় শোক দিবস ১৫ আগস্টে বিএনপি চেয়ারপারস খালেদা জিয়া জন্মদিন পালনের বিষয়ে যাবতীয় নথি দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৬০ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এসব নথি দাখিল করতে বলেছেন আদালত। এছাড়াও ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন বন্ধে সংশ্লিষ্টদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবেনা, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। রবিবার (১৩ জুন) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী।

cover

কয়েকদিনের মধ্যে বাসায় ফিরবেন খালেদা জিয়া

রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে একমাসের বেশি সময় ধরে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তার বাসায় নেওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসকেরা। শনিবার (৫ জুন) বিকালে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ তথ্য বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের অবহিত করেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বৈঠকে অংশ নেওয়া একাধিক সদস্যের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য পাওয়া গেছে। স্থায়ী কমিটির এক সদস্য জানান, বৈঠকে বিএনপির চেয়ারপারসনের শারীরিক বিষয়টি তুলে ধরেন মির্জা ফখরুল। তার শারীরিক উন্নতির বিষয়টি তিনি সদস্যদের জানান। একইসঙ্গে বেগম খালেদা জিয়ার কিডনি ও হার্টে জটিলতা থাকলেও কিছুদিন পর তাকে বাসায় নেওয়া যাবে, এমন সম্ভাবনার কথাও জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। তারা জানান, কিছুদিনের মধ্যে বাসায় যাওয়ার ছাড়পত্র পাবেন বেগম জিয়া।


Ridmik News is the most used news app in Bangladesh. Always stay updated with our instant news and notification. Challenge yourself with our curated quizzes and participate on polls to know where you stand.

news@ridmik.news
support@ridmik.news
© Ridmik Labs, 2018-2021