Link copied.
বন্দুকযুদ্ধ
coverশীর্ষ খবর

টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

কক্সবাজারের টেকনাফের পাহাড়ি এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) ভোরে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ২০ হাজার ইয়াবা, বিদেশি পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব। নিহতরা হলেন- ডাকাত সরদার মাদক ব্যবসায়ী কেফায়েত উল্লাহ ও কোরবান আলী প্রকাশ আঙ্গুল কাটা শফিক। তাৎক্ষণিকভাবে কেফায়েত উল্লাহ ও কোরবান আলীর বিস্তারিয় পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে তাদের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে একাধিক মামলা রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি নিত্যনন্দন দাশ জানান, শুক্রবার ভোরের দিকে মাদক ও অস্ত্র নিয়ে একটি ডাকাত দল দমদমিয়া পাহাড়ে অবস্থান করছে এমন খবরে অভিযানে যায় র‌্যাব। আভিযানিক দলের অবস্থান টের পেয়ে ডাকাত দলের সদস্যরা গুলি চালাতে থাকে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থল থেকে কেফায়েত উল্লাহ ও কোরবান আলীর মরদেহ পাওয়া যায়।

coverশীর্ষ খবর

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুপক্ষের গোলাগুলিতে নিহত বেড়ে ৭

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুপক্ষের গোলাগুলি ও সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে সাতজন হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। তাদের মধ্যে চারজনকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার ভোরে উখিয়ার ১৮নং ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন— আজিজুল হক (২২), ইব্রাহিম (১৭), মো. আমিন (৩০), মো. ইদ্রিস (৩২), হাফেজ নুর হালিম (৪৫), মৌলভী হামিদুল্লাহ (৫০) ও নুর কায়সার (১৫)। এ ঘটনায় অস্ত্রসহ মুজিবুর রহমান নামে একজনকে আটক করেছেন ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। ৮ আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের এসপি শিহাব কায়সার খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

coverশীর্ষ খবর

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষে সংঘর্ষ-গোলাগুলি, নিহত ৪

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে চার রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে।এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্ততপক্ষে ৭জন। আজ শুক্রবার ভোরে উখিয়ার ১৮নং ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় অস্ত্রসহ মুজিবুর রহমান নামে একজনকে আটক করেছেন ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসপি শিহাব কায়সার খান। তিনি বলেন, কী কারণে দুই গ্রুপ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। অস্ত্রসহ একজনকে আমরা আটক করেছি। চারজন নিহত হয়েছেন। আরও ৭ জনকে আহত অবস্থায় এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

cover

বিজিবির সাথে গোলাগুলিতে মাদক কারবারি নিহত

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে মাদককারবারিদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের করইবুনিয়া পাহাড়ের সীমান্তবর্তী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তার নাম ও পরিচয় জানা যায়নি। তবে তার বয়স আনুমানিক ৪০-৪৫ হবে। বিজিবির দাবি, নিহত যুবক মাদককারবারি। এ সময় বিজিবির এক সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি দেশীয় তৈরি শটগান ও দুটি কার্তুজ জব্দ করা হয়েছে। পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় আহত বিজিবি সদস্যকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

cover

কক্সবাজারে র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে মাদক কারবারি নিহত

কক্সবাজারের উখিয়ায় র‍্যাবের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে জাহাঙ্গীর আলম নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে ১০ হাজার ইয়াবা ও ৩টি কার্তুজ ১টি এলজি উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উখিয়ার জালিয়াপালং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালীর ঘোনারপাড়া এলাকার আবুল মনসুরের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৬) র‍্যাব-১৫ সিনিয়র সহকারী পরিচালক মিডিয়া এন্ড অপারেশন আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

cover

নাফ নদে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান প্রবেশকালে কক্সবাজারের টেকনাফের নাফনদের কিনারায় বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির পরিচয় এখনও শনাক্ত করা যায়নি। আজ রোববার ভোরে টেকনাফের নাফনদী সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে। টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, মিয়ানমার জলসীমানা থেকে নৌকাযোগে টেকনাফের নাফনদী সীমান্ত দিয়ে প্রবেশেকালে কয়েকজন মাদক পাচারকারীকে বিজিবির টহলদল চ্যালেঞ্জ করে। ইয়াবা পাচারকারীরা বিজিবি সদস্যদের উপর অতর্কিতভাবে গুলিবর্ষণ করে। আত্মরক্ষার্থে বিজিবি সদস্যরাও গুলিবর্ষণ করে। এক পর্যায়ে একজন গুলিবিদ্ধ হন। পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে ৩ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি লম্বা বন্দুক পাওয়া যায়। বিজিবির এই কর্মকর্তা জানান, গুলিবিদ্ধ ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় সরকারি কর্তব্যে বাধা এবং অবৈধ মাদক পাচারের দায়ে থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে।

cover

নারায়ণগঞ্জে ডাকাত-পুলিশ গোলাগুলি, পুলিশসহ আহত ৫

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ডাকাত ও পুলিশের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় এক পুলিশ গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন পাঁচজন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে উপজেলার গোপালদী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ সদস্যকে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা শেষে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত পৌনে ১টার দিকে বাজারের প্রায় সকল দোকান-পাট বন্ধ ছিল। এরই মধ্যে ৩টি স্বর্ণের দোকানে ভেতরে বসে দোকানের কর্মচারীরা কাজ করছিল। ঘটনার সময় স্পিডবোড ও ট্রলার দিয়ে ২০/২৫ জন মুখোশধারী ডাকাত দল এক সাথে ৩টি দোকানে হানা দেয়। এ সময় খবর পেয়ে গোপালদী বাজারের ডিউটিরত পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়। ডাকাত দল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি শুরু করে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি করে। ৫-৭ মিনিট চলে ডাকাত-পুলিশ গুলিবিনিময়।

coverশীর্ষ খবর

কেরানীগঞ্জে র‍্যাবের সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে' দুই ডাকাত নিহত

রাজধানীর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ঝিলমিল আবাসিক এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে র‍্যাব-১০ এর সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে' দুই যুবক নিহত হয়েছে। র‍্যাব জানায়, আজ ভোরে একটি ডাকাত দল আবাসিক এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলের সদস্যরা আতর্কিত গুলি চালায়। এ সময় র‍্যাব পাল্টা গুলি করলে ডাকাত দলের দুই সদস্য গুরুতর আহত হয়। আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের নাম পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তাদের বয়স আনুমানিক ৩০/২৮ বছরের মধ্যে।

cover

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা যুবক নিহত

কক্সবাজারের সীমান্ত জনপদ টেকনাফে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত মো. নুরু মিয়া (৪০) জাদিমুড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ২৭ নং সি ব্লকের মৃত আবুল বাশারের ছেলে। টেকনাফ র‌্যাব ১৫ সিপিসি-১ মিডিয়া কর্মকর্তা এএসপি বিমান চন্দ কর্মকার জানান, বুধবার দিনগত রাতে ২৭ নং রোহিঙ্গা শিবিরে পাহাড়ের পাদদেশে ডাকাত দলের মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে- খবর পেয়ে অভিযানে যায় র‌্যাব। এ সময় ডাকাত দল র‌্যাবের উপস্থিত টের পেয়ে এলোপাতাড়ি গুলি বর্ষণ করে। এতে র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হন। পরে র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। তিনি জানান, ডাকাত দল পিছু হটলে ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলিভর্তি ম্যাগজিনসহ তিনটি ওয়ান শুটার গান, দুটি তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এ সময় সেখান থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবকেকে উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

cover

ময়মনসিংহে 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ২

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে র‍্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুইজন নিহত হয়েছে। র‍্যাবের দাবি, নিহতরা দুষ্কৃতিকারী। তবে তাদের নাম পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। র‍্যাব-১৪’র সিও লে. কর্ণেল আবু নাঈম মো. তালাত জানান, টহল টিমের উপর গুলিবর্ষণ করলে আত্মরক্ষার্থে র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এতে দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত অবস্থায় ঘটনাস্থলে পড়ে ছিল। পরে তাদেরকে স্থানীয় হাসাপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। তিনি আরও জানান, গতরাতে র‍্যাব সদস্যরা নিয়মিত টহল দেয়ার সময় গফরগাঁও-ভালুকা সড়কের গফরগাঁওয়ে হাটুরিয়া এলাকায় অবস্থান করা একদল দুষ্কৃতিকারী টহল টিমকে লক্ষ্য করে গুলি করে। আত্মরক্ষার্থে র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। পরে দুস্কৃতিকারীরা পালিয়ে গেলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ওই দুইজনকে পাওয়া যায়। এসময় দুইজন র‍্যাব সদস্যও আহত হন বলে জানান তিনি।

coverশীর্ষ খবর

গাজীপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত

গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পশ্চিম থানার হাজী মাজার বস্তি এলাকায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের (র‌্যাব-১) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন অস্ত্রধারী মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। সোমবার (৩১ মে) দিনগত রাতে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে। তবে প্রাথমকিভাবে নিহত ওই মাদক ব্যবসায়ীর বিস্তারিত নাম পরিচয় জানা যায়নি। র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক আ ন ম ইমরান খান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাতে টঙ্গী পশ্চিম থানার হাজী মাজার বস্তি এলাকায় অভিযানে যায় র‌্যাব। এরপর ঘটনাস্থলে গেলে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি করে মাদক ব্যবসায়ীরা। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব পাল্টা গুলি করলে অজ্ঞাতনামা একজন অস্ত্রধারী মাদক বিক্রেতা নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিন, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

cover

Pallabi murder: Another accused killed in 'gunfight'

Yet another accused in Shahinuddin murder case has been killed in a reported gunfight with police in Dhaka's Pallabi area. The gunfight took place early Sunday, just two days after Md Manik, accused no 5 in the case, was killed in another gunfight with Rapid Action Battalion (RAB) in Mirpur area. The deceased is Md Monir, whom the law enforcers were searching for in connection with the murder. Law enforcers said Monir and Manik were seen in CCTV footage hacking 33-year-old businessman Shahinuddin in broad daylight in Dhaka's Pallabi area recently in front of his child.

coverশীর্ষ খবর

ছেলের সামনে বাবাকে কোপানো সেই মনির ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

রাজধানীর পল্লবীতে নিজ সন্তানের সামনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শাহীন উদ্দিন হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি মো. মনির বন্ধুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়, শাহীনের ঘাড়ে একের পর এক কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে মনির। রোববার (২৩ মে) সকালে গোয়েন্দা মিরপুর জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (এডিসি) মো. সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রাত আড়াইটার দিকে পল্লবীর সাগুফতা হাউজিং এলাকায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের মিরপুর বিভাগের একটি জোনাল টিমের সঙ্গে বন্ধুকযুদ্ধে গুরুতর আহত হয় মো. মনির। পরে তাকে উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

cover

Pallabi murder case accused killed in ‘gunfight’

An accused in the case of murdering a man at Pallabi in Bangladesh’s capital Dhaka was killed in a ‘gunfight’ with members of Rapid Action Battalion in the early hours of Friday. The accused, Manik, was killed in a ‘gunfight’ with RAB at Eastern Housing area in the capital, said RAB assistant director for media, Emran Khan told. Earlier, RAB arrested four people, including former lawmaker and Islami Democratic Party Chairman MA Awal, in the case filed for the hacking the man, Sahin Uddin, to death on May 16 in the capital's Pallabi area. Sahin, 33, was hacked to death in front of his 7-year-old child in broad daylight. The three other arrested are Hassan, Jahurul Islam Babu, and Sumon Bepari.

coverশীর্ষ খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গুলিতে ৫ জন নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার নন্দনপুরে পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের সাথে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে ৫ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে জেলা সদর হাসপাতালে তাঁদের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নুরুল আমিন, বাছির মিয়া ও ছাদেক মিয়া নামে চারজনকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বিকালে নন্দপুর বাজার এলাকায় পুলিশ ও বিজির সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ বাধে। এ সময় বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হন। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পর্যায়ক্রমে ৫ জনকে মৃত ঘোষণা করেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সবাই গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন। আবাসিক চিকিৎসক রানা নুরুস শামস সাংবাদিকদের জানান, এখন পর্যন্ত আহত হয়ে আসা ৫জন মারা গেছেন। এ ব্যাপারে পুলিশের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।


Ridmik News is the most used news app in Bangladesh. Always stay updated with our instant news and notification. Challenge yourself with our curated quizzes and participate on polls to know where you stand.

news@ridmik.news
support@ridmik.news
© Ridmik Labs, 2018-2021