আন্দোলন | Ridmik News
আন্দোলন
গাজীপুরে বেতন-বোনাসের দাবিতে পোশাক কারখানায় শ্রমিকদের অবস্থান
গাজীপুর সিটির ভোগড়া এলাকায় জিম এন্ড জেসি কম্পোজিট কারখানায় এক মাসের বেতন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে শ্রমিকেরা কারখানায় অবস্থান করছেন। রোববার (পহেলা মে) দুপুরে কারখানার ভেতরে অবস্থান নেয়া শ্রমিকরা জানায়, গতকাল শনিবার (৩০ এপ্রিল) এই কারখানায় বেতন দেয়ার কথা থাকলেও মালিকপক্ষ কাউকে বেতন বোনাস দেয়নি। এরপর থেকে তারা কারখানার ভিতরে অবস্থান নেয়। ঈদের আগে শ্রমিকরা বেতন বোনাস না পেয়ে এখনো বাড়ি যেতে পারেনি। তাই বাধ্য হয়ে কারখানার ভেতরে অবস্থান নিতে হয়েছে। এ বিষয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার জাকির হাসান জানান, শ্রমিকদের বেতন বোনাস দেওয়ার বিষয়ে মালিকপক্ষের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে। বিকেলের মধ্যে শ্রমিকদের পাওনা যাতে পরিশোধ করা হয় সেই ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
দিনাজপুর থেকে সব রুটে যান চলাচল বন্ধ
দিনাজপুর থেকে সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন শ্রমিকরা। জানা গেছে, সিএনজিচালক কর্তৃক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের এক নেতাকে মারধরের প্রতিবাদে বাস চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। বুধবার (২০ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টা থেকে মির্জাপুর বাস টার্মিনালসহ বিভিন্ন এলাকায় সড়কে আড়াআড়িভাবে বাস ও ট্রাক রেখে অবরোধ করেছেন পরিবহন শ্রমিকরা এই অবরোধের ফলে সড়কের দুপাশের কয়েক কিলোমিটার জুড়ে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। যাতে ছোট যানবাহনগুলোও আটকা পড়েছে। হঠাৎ করে এমন কর্মসূচির ফলে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। শ্রমিকদের অভিযোগ, বুধবার বিকালে দিনাজপুর শহরের বালুয়াডাঙ্গা বাসস্টান্ডে এক যাত্রীকে অটোরিকশা থেকে নামিয়ে বাসে উঠিয়ে নেন এক বাস হেলপার। এ সময় অটোরিকশার চালকরা সেই হেলপারকে মারধর করেন। ঘটনাটি সমাধানের জন্য বাসস্ট্যান্ড শাখা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু এগিয়ে আসলে তাকেও মারধর করেন অটোরিকশা চালকরা। এক পর্যায়ে ডাবলুর মাথায় আঘাত করা হয়। কোতয়ালি থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, ‘শ্রমিকরা একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। সেটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এরপরও কেন আন্দোলন, সে বিষয়ে শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে আলোচনার চেষ্টা করা হচ্ছে।’
যেভাবে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয় নিউ মার্কেট এলাকায়
টানা দুই দিন দফায় দফায় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী ও নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী-কর্মচারীদের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। কেউ শিক্ষার্থীদের চাঁদাবাজি, কেউবা কমদামে পণ্য কেনা নিয়ে সংঘর্ষ বলে ধারণা করছেন। অনুসন্ধানে জানা গেছে, নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের সূত্রপাত ওই মার্কেটের দুটি ফাস্টফুডের দোকানের কর্মীদের নিজেদের বিরোধ থেকে। সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, মার্কেটের চার নম্বর গেটের ওয়েলকাম ফাস্টফুডের কর্মচারী বাপ্পী ও ক্যাপিটালের কর্মচারী কাওসারের মধ্যে সন্ধ্যায় কথা কাটাকাটি থেকেই সংঘাতের শুরু। দুটি দোকানের মালিক আপন চাচাতো ভাই। ইফতারের সময় নিউমার্কেটের ভেতরে হাঁটার রাস্তায় টেবিল পেতে বসে ইফতারের ব্যবস্থা করে ফাস্টফুডের দোকানগুলো। মূলত এ বিরোধের সূত্রপাত ওয়েলকাম ফাস্টফুডের দুই কর্মচারীর মধ্যে। বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে কাওসারকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে বাপ্পী ওই জায়গা থেকে চলে যায়। এরপর রাত ১১টার দিকে বাপ্পীর সমর্থক ১০-১২ জন যুবক আসেন নিউ মার্কেটে। এসময় তারা হাতে রামদা নিয়ে আসে। তারা ক্যাপিটাল দোকানটিতে গিয়ে কাওসারের সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়ায়।
ছোট্ট সুখের সংসারে আজ বিষাদের গল্প
নাহিদ, পেশায় কুরিয়ার সার্ভিসের ‘ডেলিভারিম্যান’। কামরাঙ্গীরচরের রনি মার্কেটের পাশে দেওয়ানবাড়িতে ছোট্ট একটি ঘরে সংসার পেতেছিলেন ছয় মাস আগে বিয়ে করা নববধূ ডালিয়াকে নিয়ে। প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবারও কুরিয়ারের কাজে বের হয়েছিলেন নাহিদ। কে জানত, ওই যাওয়াই তার শেষ যাওয়া হবে! মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী ও নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের মধ্যে পড়েন নাহিদ। বেধড়ক মারধরে জ্ঞান হারিয়ে দীর্ঘ সময় রাস্তায় পড়েছিলেন। পরে শুভ নামের এক ব্যক্তি আহত অবস্থায় নাহিদকে ঢামেকে নিয়ে যান। বিকেলে নাহিদের পরিবার খবর পান সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সূত্রে। ততক্ষণে নাহিদ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের লাইফ সাপোর্টে। রাত ৯টা ৪০ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মাত্র ৬ মাস আগে বিয়ে করে সুখের সংসার পেতেছিলেন নাহিদ। কোনো অপরাধ না করেই প্রাণ গেল তার। শুধু নাহিদের জীবনই নয় পরিবার, নববধূ ডালিয়ার স্বপ্ন ও আহ্লাদ রূপ নিয়েছে বিষাদে। নিহত নাহিদের মামাত ভাই মো. নাজিম জানান, নাহিদের বাবার নাম নাদিম হাসান। তিনি ম্যাটাডোর ইন্ডাস্ট্রিতে চাকরি করেন। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে নাহিদ সবার বড়।
নিউমার্কেটে সংঘর্ষে রক্ষা পেল না রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্সও
নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী এবং ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে চলমান সংঘর্ষে অন্তত দুটি অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সংঘর্ষের এক পর্যায়ে রোগী নিয়ে যাওয়ার পথে নিউ মার্কেটের সামনে একটি অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর শিকার হয়। ব্যবসায়ী ও দোকানের কর্মীরা অ্যাম্বুলেন্সটি ভাঙচুর করেন। ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন, অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকা কলেজের আহত একজন শিক্ষার্থী ছিল। সেটি ভাঙচুর করেছেন ব্যবসায়ী ও দোকানকর্মীরা। সোমবার দিবাগত রাতের সংঘর্ষের জেরে সকাল থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলে নিউ মার্কেট এলাকায়।
রণক্ষেত্র নিউমার্কেট, রাজধানীতে তীব্র যানজট
রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীদের দফায় দফায় সংঘর্ষের কারণে ব্যস্ত এলাকা মিরপুর সড়কে যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে আশপাশের এলাকাগুলোতে। মোহাম্মদপুর থেকে ফার্মগেট-কারওয়ান বাজার সড়কে তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। এই সংঘর্ষের জেরে কোনো কোনো সড়কে আবার গণপরিবহন সংখ্যা কম বলেও জানা গেছে। মানুষজন হেঁটে বা অন্য কোনো উপায়ে গন্থব্যে যাচ্ছেন। এদিকে নিউমার্কেট ও সায়েন্সল্যাব এলাকা দিয়েও যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। আর এই চাপ গিয়ে পড়ছে ঢাকার ব্যস্ত অনেক সড়কে। বিজয় সরণি সড়কেও যানজট দেখা গেছে। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সংসদ ভবনের সামনের সড়কে বাসের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। একেকটি বাসকে আধা ঘণ্টারও বেশি সময় দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। ফার্মগেট থেকে কারওয়ান বাজারের দিকেও প্রায় একই অবস্থা বিরাজ করছে। একে তো তীব্র গরম, এর ওপর ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাসে বসে থাকা; চরম অস্থিরতায় হাঁসফাঁস করছে যাত্রী সাধারণ। সকালে রাজধানীর বছিলা থেকে বাইকে করে সাতরাস্তায় অফিসে রওনা হয়েছিলেন মিরাজ বাপ্পি নামে একজন বেসরকারি চাকরিজীবী। ফার্মগেটে হলিক্রস স্কুল সড়কেই তাকে আধাঘণ্টার মতো আটকে থাকতে হয়। তিনি বলেন, অন্যদিন অফিসে যেতে ৩০ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ মিনিট সময় লাগলেও আজ সোয়া দুই ঘণ্টার বেশি সময় লেগেছে। তবে এ বিষয়ে ট্রাফিক পুলিশের কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
ফের নিউমার্কেট সড়কে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা
রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে আজ মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সকাল থেকে নিউমার্কেট এলাকা অবরোধ করে রেখেছে শিক্ষার্থীরা। এতে নিউমার্কেটের সকল দোকানপাট বন্ধের সঙ্গে সড়কের উভয় পাশে যানবাহন চলাচলও বন্ধ হয়ে গেছে। গতকাল সোমবার (১৮ এপ্রিল) রাত ১২টার দিকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। উত্তেজনা চলে ভোর পর্যন্ত। এ ঘটনার জের ধরে নিউমার্কেট খুলতে না দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা। এদিকে, ঢাকা কলেজের আজ সব ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে কলেজের সব শিক্ষককে সকাল ১০টায় ক্যাম্পাসে উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এ অনুরোধ জানিয়েছেন। এর আগে, সংঘর্ষের শুরুর দিকে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা শুরু করে। এ সময় উভয় পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা ব্যর্থ হলে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার শেল ছোড়ে পুলিশ। এক পর্যায়ে সংঘর্ষ থামলেও নিউমার্কেট এলাকাজুড়ে রাতভর উত্তেজনা বিরাজ করে।
ধর্মঘটে গাজীপুরে আটকে আছে ট্রেন
বেতন-ভাতা (মাইলেজ) সংক্রান্ত দাবি মেনে না নেয়ায় সারাদেশে ধর্মঘট পালন করছেন ট্রেন চালকরা। বুধবার (১৩ এপ্রিল) ভোর ৬টা থেকে তারা ট্রেন চলাচল বন্ধ রেখেছেন। এতে গাজীপুরের জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনসহ বিভিন্ন স্টেশনে উত্তরবঙ্গ থেকে আসা একতা এক্সপ্রেসসহ আটকে আছে কয়েকটি ট্রেন। ট্রেনের চলাচল কারী যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়ে বিকল্প পথে চলাচল করছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এই কর্মবিরতি চলবে বলে জানান চালকরা।
সারাদেশে ট্রেন চলাচল বন্ধ, ভোগান্তিতে যাত্রীরা
ভাতা ও পেনশন দা‌বি‌তে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন রেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এতে দেশজুড়ে বন্ধ রয়েছে ট্রেন চলাচল। আর তাতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রীরা। কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেনের জন্য ভোর থেকে শত শত মানুষ অপেক্ষা করছেন। কিন্তু কোনো ট্রেন না চলায় পড়েছেন বিপদে। বুধবার (১৩ এপ্রিল) ভোর থেকে সারা দেশে ট্রেন চলাচল বন্ধ রেখেছেন চালকরা। জানা যায়, পূর্ব নির্ধারিত মাইল-এজ বা ভাতা বাতিল করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবিতে সারা দেশে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে রেলওয়ে রানিং স্টাফ কর্মচারী ঐক্য পরিষদ। কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের দায়িত্বরত মাস্টার আফসার উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, 'রেলওয়ে রানিং স্টাফ কর্মচারীদের দাবি-দাওয়া নিয়ে ড্রাইভাররা ট্রেন চালানো বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে সারা দেশেই ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। সকাল ৬টা থেকে দেশের সব জায়গায় একযোগে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। এ বিষয়ে আলোচনা চলছে। সমাধান হলে ট্রেন চলাচল শুরু হবে'। অন্যদিকে, এক যাত্রী জানান, 'রমজান মাসে রোজা থেকে এ ধরনের হয়রানি কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। ধর্মঘট করতে চাইলে আগে থেকে ঘোষণা দিয়ে করতো। কিন্তু কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই এভাবে ট্রেন বন্ধ করে আমাদেরকে কষ্ট দিচ্ছে রেলওয়ে'।
টিকা নিতে গিয়ে মারধরের শিকার জাবির ২ শিক্ষার্থী, সড়ক অবরোধ
ঢাকার সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কেন্দ্রে করোনাভাইরাসের টিকা নিতে গিয়ে মারধরের শিকার হওয়ার অভিযোগ করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইজন শিক্ষার্থী। এ ঘটনার বিচারের দাবিতে প্রায় এক ঘণ্টা ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের শতাধিক আবাসিক ছাত্র। মারধরের শিকার দুই শিক্ষার্থী হলেন-বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের মো. ইমন এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের মো. মাজেদ। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৪তম ব্যাচের এবং বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের আবাসিক ছাত্র। আহত অবস্থায় তারা সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। অবরোধকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, রোববার (১০ এপ্রিল) বেলা একটার দিকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কেন্দ্রে টিকা নিতে যান ইমন ও মাজেদ। তারা লাইনে থাকা অবস্থায় বেলা একটায় টিকাদান কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়। এ সময় অপেক্ষারত টিকাপ্রত্যাশীদের অনেকে লাইন শেষ হওয়া পর্যন্ত টিকা দেয়ার অনুরোধ জানান। টিকাদানকারী স্বাস্থ্যকর্মীরা এতে রাজি না হলে তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে চারজন স্বাস্থ্যকর্মী মিলে ইমন ও মাজেদকে মারধর করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অভিযোগ শুনেছি। আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।’
পাঁচ দাবিতে রংপুরে বাস ধর্মঘট
পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ পাঁচ দফা দাবিতে রংপুর থেকে ঢাকাগামী দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রেখে ধর্মঘট শুরু করেছেন পরিবহন শ্রমিকরা। হঠাৎ শুরু হওয়া এই কর্মবিরতিতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রী সাধারণ। মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) ভোর ৬টা থেকে কর্মবিরতি পালন করছেন শ্রমিকরা। বেলা ১১টা পর্যন্ত রংপুর নগরীর কামারপাড়া ঢাকা কোচস্ট্যান্ড থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। তবে কর্মবিরতির আওতামুক্ত রয়েছে এনা এবং শাহ্ ফতেহ আলী পরিবহন। এদিকে, কর্মবিরতির বিষয়টি অস্বীকার করেছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের রংপুর বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ। সরেজমিনে দেখা গেছে, কামারপাড়া ঢাকা কোচস্ট্যান্ডে অলস সময় কাটাচ্ছেন চালক ও শ্রমিকরা। কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি বন্ধ রাখা হয়েছে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধ রাখায় বিপাকে পড়েছেন আগে থেকে টিকিট কেটে রাখা যাত্রীরা। শ্রমিকরা জানান, বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, সড়কে পুলিশি হয়রানি বন্ধ করাসহ পাঁচ দফা দাবিতে তারা ভোর থেকে কর্মবিরতি পালন করছেন। এ নিয়ে ঢাকায় পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের বৈঠকে বসার কথা রয়েছে। সেখান থেকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে।
খুলনায় কর্মবিরতিতে ট্যাংকলরি শ্রমিকরা, ১৫ জেলায় তেল সরবরাহ বন্ধ
ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের এক নেতার ওপর হামলার প্রতিবাদে জ্বালানি তেল সরবরাহ বন্ধ রেখে খুলনায় কর্মবিরতি পালন করছেন ট্যাংকলরি শ্রমিকরা। মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) সকাল আটটা থেকে তারা এ কর্মবিরতি শুরু করেছেন। কর্মবিরতির কারণে খুলনা ও ফরিদপুর অঞ্চলের ১৫টি জেলায় তেল সরবরাহ বন্ধ আছে। খুলনা বিভাগীয় ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মীর মোকসেদ আলী জানান, গতকাল সোমবার (২৯ মার্চ) দুপুরে কাশিপুর বাংলার মোড়ে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে ইউনিয়নের লাইন সম্পাদক আল আমিনকে গুরুতর জখম করে। আজ সকাল থেকে পদ্মা-মেঘনা-যমুনা ডিপো থেকে তেল উত্তোলন বন্ধ রয়েছে। হামলাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় না আনা পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য এ কর্মসূচি চলবে। খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় আল আমিনের ভাই জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখ ও ১০ থেকে ১২ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে গতকাল রাতে মামলা করেছেন। জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার অভিযান চলছে।
দুই কৃষকের আত্মহত্যা, রেখে যাওয়া ২ শিশুর মুখে খাবার দিচ্ছেন প্রতিবেশীরা
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় কীটনাশক পান করে মারা যাওয়া দুই কৃষকের একজন হলেন অভিনাথ মারান্ডি (৩৬)। অভিনাথ যেই সংসারের জন্য নিজের জীবন দিয়েছেন, সেই সংসারে তিনি রেখে গেছেন স্ত্রী আর দুই সন্তান। দুই ছেলের মধ্যে একজনের বয়স ৫, অন্যজনের ১০ বছর। সন্তানদের মুখে দু'বেলা খাবার তুলে দিতে জমিতে ধান চাষ করলেও তাদের জন্য কোনো সম্পদ রেখে যেতে পারেননি অভিনাথ। এদিকে, স্বামীকে হারিয়ে শোকে কাতর হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন অভিনাথের স্ত্রী রোজিনা হেম্রবম। গেল পাঁচদিন খাবারের মুখ দেখেননি রোজিনা। তার দুই সন্তানকে প্রতিবেশীরা ডেকে নিয়ে তিন বেলা খাওয়াচ্ছেন বলে জানান গ্রামের বাসিন্দা আমির হাঁসদা। এদিকে, আদিবাসী কৃষক অভিনাথ মার্ডি ও রবি মার্ডি হত্যার প্রতিবাদে এবং অভিযুক্ত নলকূপ অপারেটর সাখাওয়াত হোসেনের দ্রুত গ্রেফতার ও সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে সোমবার (২৮ মার্চ) দুপুরে নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করা হয়েছে।
গ্যাস-বিদ্যুৎ-তেল-পানিসহ সকল দ্রব্যমূল্য কমানোর দাবি
গ্যাস-বিদ্যুৎ-তেল-পানিসহ সকল দ্রব্যমূল্য কমানোর দাবি জানিয়েছে নতুনধারা বাংলাদেশ (এনডিবি) নামক একটি সংগঠন। তারা বলছে, করোনার আঘাতে মানুষ যখন বিপর্যস্ত, তখন দ্রব্যমূল্যের পাগলা ঘোড়া’র ধাক্কায় মানুষের দৈনন্দিন জীবন চরম হুমকির মধ্যে পড়েছে। এর মধ্যেই ‘মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা’ হিসেবে সরকার আবারও গ্যাসের দাম বাড়ানোর পায়তারা করছে। শুক্রবার (২৫ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে আমজনতার রুটি-রুজি-জীবন-জীবিকার কথা ভেবে ব্যয়ভার কমিয়ে আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে, বেকারত্ব ঘোচানোর জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়াসহ বিভিন্ন ইস্যু বাস্তবায়নের দাবিতে আমরা রাজপথে নামতে বাধ্য হয়েছি। স্বাধীনতার মাসে, পবিত্র রমজানকে কেন্দ্র করে ব্যবসায়ীদের অন্যায়ভাবে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি থামাতে রাষ্ট্রকে কার্যকর পরিকল্পিত পদক্ষেপ নিতে হবে। একই সাথে ক্রয় ক্ষমতা বেড়েছে বলে বলে মন্ত্রী-এমপি-জনপ্রতিনিধিদের ষড়যন্ত্রময় মিথ্যে কথা থামাতে হবে।
ভেজাল খাবার কারবারীদের শাস্তির দাবি
অতিমুনাফা লোভী অসাধু ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত অর্থের লোভে খাদ্যে বিভিন্ন প্রকার ভেজাল মিশ্রিত করে। যা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর। তাই, ভেজাল খাবার কারবারীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে 'নিরাপদ খাদ্য চাই' নামক সংগঠন। শুক্রবার (২৫ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কৃত্রিমভাবে রং ধরে রাখতে এবং ক্রেতার আকর্ষন বাড়াতে ফল, শাক সবজি, মাছ, মাংসে ফরমালিন ও বিভিন্ন স্প্রে ব্যবহার করে থাকে। যা মানব দেহের জন্য মারাত্বক ঝুঁকি, এতে মৃত্যুও ঘটাতে পারে। আসন্ন রমজানে সকল খাদ্যদ্রব্য ও ভোগ্যপণ্য ভেজালমুক্ত রাখতে নিরাপদ খাদ্য আইন ও ফরমালিন নিয়ন্ত্রণ আইন অবিলম্বে বাস্তববায়ন করতে হবে। সিয়াম সাধনার মাস রমজানে জনস্বাস্থ্যের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সরকারকে কঠোরভাবে প্রণীত আইনের যথাযথ প্রয়োগ করতে হবে। দেশের প্রায় সকল ভোগ্যপণ্যের মধ্যে ভোজাল ঢুকে গেছে। অধিক লাভের আশায় অধিকাংশ ব্যবসায়ী ও উৎপাদকরা খাদ্যে ভেজাল মেশাচ্ছে। শক্ত হাতে এগুলো প্রতিরোধ করা সম্ভব না হওয়ায় তা এখন ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।