দুর্নীতির চাঞ্চল্য সব খবর | Corruption News | Ridmik News
দুর্নীতি
৪১ ফিলিং স্টেশনকে সাড়ে ১৬ লাখ টাকা জরিমানা
মেয়াদ নেই লাই‌সেন্সের। অনিয়মে চলছে ব্যবসা। বাড়তি দাম নিয়েও পরিমাপে কারচুপি করছে ফিলিং স্টেশনগুলো। দেশের ৩২ জেলায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে এমন অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এসব অপরাধে সারা দেশে ৪১ ফিলিং স্টেশনকে ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আজ রোববার (৭ আগস্ট) অধিদফতরের উপ-পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, জ্বালানি তেলের মূল্য বেড়েছে ৪০ থেকে ৪২ শতাংশ। এই বাড়তি দাম নিয়েও কারচুপি করে ওজনে কম দিচ্ছে স্টেশনগুলো। দাহ্য পদার্থ বিক্রির লাইসেন্স বা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নেই। অনেকের আছে তাও লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে, হালনাগাদ করেনি। এছাড়া বেশি দামে জ্বালানি তেল বিক্রি করতে নির্ধারিত সময়ের আগেই ফিলিং স্টেশন বন্ধ রেখেছে। এসব অপরাধের দায়ে ৪১ ফিলিং স্টেশনকে ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই দিন বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়ের ৫৯ জন কর্মকর্তার নেতৃত্বে ঢাকাসহ দেশের ৫৫টি জেলায় বাজার তদারকি কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। দেশব্যাপী ৫৬টি বাজার ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পরিচালিত তদারকি করা হয়।
ড. ইউনূসের কোম্পানির দুর্নীতি তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশ
ড. মুহম্মদ ইউনূসের গ্রামীণ টেলিকমের দুর্নীতি তদন্তের জন্য দুদককে নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের কোম্পানি বেঞ্চ। গ্রামীণ টেলিকমের বিরুদ্ধে কর্মচারী-শ্রমিকদের আদালতের কাছে দুটি অভিযোগ ছিলl ১) কর্মচারী-শ্রমিকরা তারা কোম্পানির লভ্যাংশ থেকে তাদের ন্যায্য প্রাপ্য পাচ্ছিলো না, ২) কোম্পানির লভ্যাংশ/ডিভিডেন্ট ড۔ ইউনূসের কিছু ভুঁইফোড় কোম্পানির অনুকূলে পাঠানো হচ্ছিলো, যা অবৈধ এবং অর্থ পাচারের শামিলl এর মধ্যে শ্রমিকরা তাদের প্রাপ্য পেয়েছে মর্মে শ্রমিকদের আইনজীবী আদালতে আবেদন করেl আবেদন করেছিল নন প্রসিকিউশনেরl এই নিয়ে ইউনূসের বিরুদ্ধে ঘুষ প্রদানের গুরুতর অভিযোগ রয়েছেl ২৬ কোটি টাকা অবৈধভাবে লেনদেনের অভিযোগ রয়েছেl অভিযোগ আছে যে, ড۔ ইউনুস এই ঘুষ কেলেঙ্কারির সাথে সরাসরি যুক্তl আজ বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিচারপতি মো. খুরশিদ আলম সরকারের হাইকোর্টের কোম্পানী বেঞ্চ এই বিষয়ে দুদককে তদন্ত করার নির্দেশনা দেনl
নর্থ সাউথের দুই ট্রাস্টির জামিন আবেদন হাইকোর্টে
নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের দুই সদস্য জামিন চেয়ে হাইকোর্টের আবেদন জানিয়েছেন। তারা হলেন- বেনজীর আহমেদ ও মোহাম্মদ শাহজাহান। বুধবার (৩ আগস্ট) তারা হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ আবেদন করেন বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। এর আগে গত ২ আগস্ট একই অভিযোগের মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের দুই সদস্য এম এ কাশেম ও রেহানা রহমানকে কেন জামিন প্রদান করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে মামলার বিবাদীদের এ রুলে জবাব দিতে বলা হয়। তাদের জামিন আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন। প্রসঙ্গত, গত ১২ মে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।
অর্থ আত্মসাৎ: নর্থ সাউথের দুই ট্রাস্টিকে জামিন প্রশ্নে রুল
নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের দুই সদস্যকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। তারা হলেন- এম এ কাশেম ও রেহানা রহমান। তবে তাদেরকে কেন জামিন প্রদান করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে মামলার বিবাদীদের এ রুলে জবাব দিতে বলা হয়েছে। তাদের জামিন আবেদনের শুনানি শেষে মঙ্গলবার (২ আগস্ট) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহ মঞ্জুরুল হক ও ব্যারিস্টার সাঈদ আহমেদ রাজা। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। এর আগে গত ১২ মে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।
দুদকের মামলায় হাজী সেলিমের জামিন শুনানি ২৩ অক্টোবর
অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের দায়ের করা মামলায় ১০ বছরের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে সংসদ সদস্য (এমপি) হাজী মোহাম্মদ সেলিমের জামিন আবেদন ও লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) শুনানির জন্য আগামী ২৩ অক্টোবর দিন নির্ধারণ করেছেন আপিল বিভাগ। জামিন চেয়ে হাজী সেলিমের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার (১ আগস্ট) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন। আদালতে হাজী সেলিমের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা। অন্যদিকে দুদকের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। এর আগে, ২০০৭ সালের ২৪ অক্টোবর হাজী সেলিমের বিরুদ্ধে লালবাগ থানায় অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ মামলায় ২০০৮ সালের ২৭ এপ্রিল তাকে দুই ধারায় ১৩ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। ২০০৯ সালের ২৫ অক্টোবর এ রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন হাজী সেলিম। ২০১১ সালের ২ জানুয়ারি হাইকোর্ট এক রায়ে তার সাজা বাতিল করেন।
ডেল্টা লাইফের প্রশাসক নিয়ে আপিলের চূড়ান্ত শুনানি ৭ আগস্ট
বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) কর্তৃক পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে প্রশাসক নিয়োগ অবৈধ ঘোষণা করা হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আগামী ৭ আগস্ট চূড়ান্ত শুনানির দিন নির্ধারণ করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এর ফলে নির্ধারিত দিন পর্যন্ত ওই প্রশাসকের স্বপদে থাকতে আপাতত কোন বাধা রইলোনা। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে করা আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ রোববার (৩১ জুলাই) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন। আদালতে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স এর পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মো. মোস্তাফিজুর রহমান খান ও ব্যারিস্টার কারিশমা জাহান। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ (এসকে) মোরশেদ। এর আগে, ২০২১ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি আইডিআর’র সাবেক সদস্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। তার মাসিক সম্মানী ধরা হয় চার লাখ টাকা। পরে ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে কর্তৃপক্ষ রিট দায়ের করে।
রিজেন্ট সাহেদের জামিন
ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে পদ্মা ব্যাংকের (সাবেক ফারমার্স ব্যাংক) পৌনে ৩ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামান ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। ২০২০ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর ঋণের নামে জালিয়াতি করে পদ্মা ব্যাংকের (সাবেক ফারমার্স ব্যাংক) পৌনে তিন কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ করিম, বাবুল চিশতীসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক (দুর্নীতি দমন কমিশন)। দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শাহাজাহান মিরাজ বাদী হয়ে কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১-এ মামলা করে দুদক। দুদক জানায়, পরস্পর যোগসাজশে অসৎ উদ্দেশ্যে ক্ষমতার অপব্যবহার, বিশ্বাস ভঙ্গ করে অর্থ স্থানান্তর ও রূপান্তরের মাধ্যমে ঋণের নামে পদ্মা ব্যাংকের এক কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন, যা চলতি বছরের ১৫ জুলাই পর্যন্ত সুদ-আসলে দাঁড়ায় দুই কোটি ৭১ লাখ টাকা।
সস্ত্রীক ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলার রায় আজ
সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ হত্যা মামলায় ফাঁসির আসামি ও টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ এবং তার স্ত্রী চুমকি কারনের দুর্নীতির মামলার রায় ঘোষণা হবে বুধবার (২৭ জুলাই)। গত ১৭ জুলাই প্রদীপ-চুমকি দম্পতির বিরুদ্ধে দায়ের করা দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার জন্য এদিন ধার্য করেছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ মুন্সী আবদুল মজিদের আদালত।
ডেসটিনির সাবেক কর্মকর্তাকে জামিন দেননি হাইকোর্ট
দুর্নীতির মামলায় কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ডেসটিনির সাবেক কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম খান রুবেলকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। তবে বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে তার করা আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে বিচারিক আদালতে তাকে জরিমানার আদেশ স্থগিত করেছেন আদালত। বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে করা আপিল ও জামিন আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এম. মাঈনুল ইসলাম। দুদকের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। এর আগে ২০১২ সালের ৩১ জুলাই দুদকের উপ পরিচালক মো. মোজাহার আলী সরদার ও সহকারী পরিচালক মো. তৌফিকুল ইসলাম রাজধানীর কলাবাগান থানায় ডেসিটিনির কর্তাব্যক্তিসহ অন্যদের বিরুদ্ধে ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি এবং ডেসটিনি ট্রি প্লান্টেশন প্রজেক্টের অর্থ আত্মসাতের দুটি মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ৫ মে দুদক আদালতে উভয় মামলার অভিযোগপত্র দেয়া হয়।
দেশের সবচেয়ে বড় অপরাধ হচ্ছে ব্যাংক খাতে: হাইকোর্ট
দেশের সবচেয়ে বড় অপরাধ হচ্ছে ব্যাংক খাতে বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খন্দকার মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন। আদালত বলেন, দেশের সবচেয়ে বড় অপরাধ হচ্ছে ব্যাংক খাতে। এভাবে চললে দেশ এগোবে কিভাবে? ব্যাংকাররা দেশটাকে পঙ্গু করে দিচ্ছে। ব্যাংকিং খাতকে এভাবে চলতে দেয়া যায়না। পরে আসামীদের উদ্দেশ্যে আদালত বলেন, আপনাদের জেলে পাঠাতাম কিন্তু টাকার পরিমান কম হওয়ায় আত্মসমর্পনের সুযোগ দেয়া হলো। আদালতে আসামীদের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মাঈনুল ইসলাম। অন্যদিকে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। এছাড়াও রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।
রেলে অব্যবস্থাপনা: সচিবের ডাকে রেলভবনে মহিউদ্দিন রনি
বাংলাদেশ রেলওয়েতে অনিয়ম, দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে আন্দোলন করা মহিউদ্দিন রনিকে ডেকেছেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. হুমায়ুন কবির। সচিবের সঙ্গে দেখা করতে রনি এখন রেলভবনে অবস্থান করছেন। সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে তিনি রেলভবনে যান। এসময় তার সঙ্গে আরও কয়েকজন সহযোগী ছিলেন। তারা সবাই রেল সচিবের সঙ্গে আলোচনা করতে ভেতরে প্রবেশ করেছেন। আলোচনা শেষে রেল সচিব ও রনি সংবাদ মাধ্যমে কথা বলবেন বলে জানা গেছে। এর আগে, বিকেল চারটার দিকে রনি তার সহযোগীদের নিয়ে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে স্মারকলিপি দিতে। কার্যালয়ের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের উপ দফতর সম্পাদক সায়েম খান।
সোনালী ব্যাংকের সাবেক এমডিসহ ৯ জনের ১৭ বছর কারাদণ্ড
দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় সোনালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবিরসহ ৯ জনকে ১৭ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে সোয়া কোটি টাকা আত্মসাতের দায়ে ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ইকবাল হোসেন রোববার (২৪ জুলাই) এ রায় দেন। দণ্ডিত অপর আটজন হলেন- সোনালী ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) মাইনুল হক, জিএম ননী গোপাল নাথ ও মীর মহিদুর রহমান, ডিজিএম শেখ আলতাফ হোসেন, এজিএম কামরুল হোসেন খান ও সাইফুল হাসান এবং প্যারাগন নীট কম্পোজিট লিমিটেডের এমডি সাইফুল ইসলাম রাজা ও পরিচালক আব্দুল্লাহ আল মামুন। এদের মধ্যে শেখ আলতাফ হোসেনকে সরকারি কর্মচারীদের সম্পত্তি আত্মসাতের দায়ে ৫ বছরের কারাদণ্ড এবং প্রতারণার দায়ে তিন বছরের সাজা ভোগ করতে হবে। প্রত্যেক আসামিকে সরকারি কর্মচারীদের সম্পত্তি আত্মসাতের দায়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড এবং প্রতারণার দায়ে আরও সাত বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ৯ আসামিকে ১ কোটি ২৫ লাখ ৭০ হাজার ২২০ টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে যা প্রত্যেকের কাছ থেকে সমহারে রাষ্ট্রের অনুকুলে আদায় করা হবে।
ড. ইউনুসের বিরুদ্ধে দুর্নীতি তদন্তে দুদকে আবেদন
শ্রমিকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তদন্তে নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে দুদকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দিয়েছে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতর। শনিবার (২৩ জুলাই) দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। দুদকে দেয়া অভিযোগে বলা হয়, ১৯৯৬ সাল থেকে গ্রামীণ টেলিকমের বেশিরভাগ লেনদেনই সন্দেহজনক। শুধু তাই নয়, আইএলওতে দেয়া শ্রমিকদের অর্থপাচারের অভিযোগেরও তদন্ত চায় সংস্থাটি। গত ১৪ জুলাই করা সেই অভিযোগপত্রে বলা হয়, ২০১০ সাল থেকে ২০২১-২২ অর্থবছর পর্যন্ত গ্রামীণ টেলিকম কোম্পানির শ্রমিক কর্মচারীদের মধ্যে নিট মুনাফার ৫ শতাংশ লভ্যাংশ বণ্টনে অনিয়ম হয়েছে। গ্রামীণ টেলিকমের সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোতে এখন পর্যন্ত প্রায় ২ হাজার ৯৭৭ কোটি টাকা সন্দেহজনক লেনদেন হয়েছে, পুরো বিষয়টির বিস্তারিত অনুসন্ধান প্রয়োজন। কারণ শ্রমিকদের নির্দিষ্ট শেয়ার দেয়ার কথা থাকলেও বঞ্চিত করেছেন ড. ইউনূস। অভিযোগে আরও বলা হয়, গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনে ৪৫ কোটি ৫২ লাখ টাকা দেয়ার কথা থাকলেও দেয়নি। এখানেও দেশের স্বার্থ বিঘ্নিত হয়েছে। এদিকে, গত ১৭ জুলাই অভিযোগ গ্রহণ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। এখন চলছে যাচাই বাছাই। যদি অভিযোগ গ্রহণ করা হয় তবে এর প্রাথমিক অনুসন্ধান শুরু করবে দুদক। প্রয়োজনে ড. ইউনূসকেও দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানা যায়।
ভূমির কুতুবের জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত
জালিয়াতির মাধ্যমে ১০ কাঠার একটি প্লট আত্মীয়দের নামে বরাদ্দ করে আত্মসাতের মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত ভূমি মন্ত্রণালয়ের তৎকালীন প্রশাসনিক কর্মকর্তা কুতুব উদ্দিন আহমেদকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। আগামী ৮ আগস্ট পর্যন্ত জামিন আদেশ স্থগিতেরর পাশাপাশি সেদিন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনারির দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। বুধবার (২০ জুলাই) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন চেম্বার জজ আদালত এ আদেশ দেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। এর আগে ২০১৮ সালের ৮ এপ্রিল রাজধানীর গুলশান থানায় কুতুব উদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের উপ পরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম। পরে তাকে গ্রেফতার করে দুদক। কুতুব উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি সরকারি কর্মকর্তা হওয়া সত্ত্বেও ভুয়া আমমোক্তারনামার মাধ্যমে গুলশানে ১০ কাঠার একটি প্লট তার শ্বশুরসহ কয়েকজনের নামে বরাদ্দ করেন। ওই মামলায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কুতুব উদ্দিন আহমেদকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত।
ভূমির সাবেক কর্মকর্তা কুতুবের জামিন স্থগিত চায় দুদক
জালিয়াতির মাধ্যমে ১০ কাঠার একটি প্লট আত্মীয়দের নামে বরাদ্দ করে আত্মসাতের মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত ভূমি মন্ত্রণালয়ের তৎকালীন প্রশাসনিক কর্মকর্তা কুতুব উদ্দিন আহমেদকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। রোববার (১৭ জুলাই) আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে এ আবেদন করা হয়েছে বলে দুদকের আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান জানিয়েছেন। এরআগে, ২০১৮ সালের ৮ এপ্রিল রাজধানীর গুলশান থানায় কুতুব উদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের উপ পরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম। পরে তাকে গ্রেফতার করে দুদক। কুতুব উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি সরকারি কর্মকর্তা হওয়া সত্ত্বেও ভুয়া আমমোক্তারনামার মাধ্যমে গুলশানে ১০ কাঠার একটি প্লট তার শ্বশুরসহ কয়েকজনের নামে বরাদ্দ করেন। ওই মামলায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কুতুব উদ্দিন আহমেদকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত। এরপর গত ১৬ মার্চ নিম্ন আদালতের সাজার বিরুদ্ধে কুতুবের আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন হাইকোর্ট। পরে তার আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট তাকে ৬ মাসের জামিন দেন। সেই জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন জানিয়েছে দুদক।