দুর্নীতির চাঞ্চল্য সব খবর | Corruption News | Ridmik News
দুর্নীতি
সম্রাটের জামিন বাতিল, আত্মসমর্পনের নির্দেশ
অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের জামিন বাতিল করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তাকে ৭ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পনের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। দুদকের আবেদনের শুনানি নিয়ে বুধবার (১৮ মে) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজহারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে সম্রাটের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান।রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (১৭ মে) শুনানি শেষে দুদক আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান বলেন, শুনানিকালে মেডিকেল রিপোর্ট না দেখেই কীভাবে বিচারিক আদালত স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে সম্রাটকে জামিন দিলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট। গত ১১ মে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় জামিন পান ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।
এনামুল বাছিরের সাজা বাড়ানোর বিষয়ে হাইকোর্টের রুল
ঘুষ লেনদেনের মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশনের বরখাস্তকৃত পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরের সাজা কেন বাড়ানো হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। মামলার বিবাদীদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। দুদকের আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (১৭ মে) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট মো. খুরশীদ আলম খান। এর আগে ২০১৯ সালের ৯ জুন একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচারিত প্রতিবেদন অনুযায়ী ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে পরিচালিত দুর্নীতির অনুসন্ধান থেকে দায়মুক্তি পেতে দুদক পরিচালক বাছিরকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ দিয়েছিলেন ডিআইজি মিজান। ঘুষ লেনদেন সংক্রান্ত কথোপকথন রেকর্ড করে ওই চ্যানেলকে দিয়েছিলেন মিজান। ডিআইজি মিজানও এ বিষয়ে নিজেই গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেন। অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে বাঁচতে ঘুষ দিয়েছেন বলে তিনি দাবি করেন।
আরও ১০ দিনের রিমান্ডে পি কে হালদার
ভারতের পশ্চিমবঙ্গে গ্রেফতার হওয়া প্রশান্ত কুমার হালদারকে (পি কে হালদার) আরও ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (১৭ মে) প্রিভেনশন অব মানি লন্ডারিং অ্যাক্টের অধীনে কলকাতা নগর দায়রা আদালতে তাকে হাজির করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। আদালতে আর ১৪ দিনের রিমান্ডের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন জানায় ইডি। সিবিআই স্পেশাল কোর্টের বিচারক মাসুক হোসেইন খান ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন। আদালতের সরকারি আইনজীবী ও আসামিপক্ষের আইনজীবীরা শুনানিতে অংশ নেন। সরকারি পক্ষের আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী জানান, ১৪ দিনের বদলে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। অন্যদিকে আসামি পক্ষের দাবি চার দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের তিনটি বিষয়ে অনুমতি চেয়েছে ইডি। সেগুলো হলো- চার্জশিট ছাড়া হেফাজতে রেখে দেয়ার অনুমতি, দেশ ও দেশের বাইরে তদন্তের স্বার্থে যেখানে খুশি অভিযুক্তদের নিয়ে যাওয়ার অনুমতি এবং ঘটনার সঙ্গে সম্পর্কিত জড়িতদের জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি। প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে ভারতে পালিয়ে থাকা পি কে হালদারকে শনিবার দুপুরে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার অশোক নগরের একটি বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে ইডি। এদিন আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে চারজন বাংলাদেশি।
পি কে হালদারকে দেশে আনার বিষয়ে রুলের শুনানি ১২ জুন
ভারতে গ্রেফতার পি কে হালদারকে দেশে ফিরিয়ে আনতে ২০২০ সালের ১৯ নভেম্বর জারি করা রুলের ওপর আগামী ১২ জুন শুনানির দিন নির্ধারণ করেছেন হাইকোর্ট। তবে এ সময়ের মধ্যে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলার অগ্রগতি জানাতে দুদককে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তার গ্রেফতারের বিষয়টি নজরে আনার পর মঙ্গলবার (১৭ মে) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন মানিক। এর আগে ২০২০ সালের ৭ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের একই বেঞ্চে আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার পি কে হালদারের দেশে ফেরত আসতে কোনরকম গ্রেফতার না করার নির্দেশনা চেয়ে একটি আবেদন করে তার প্রতিষ্ঠান আইএলএফএসএল। সে আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত জানিয়েছিলেন- পি কে হালদার কবে, কখন, কীভাবে দেশে ফিরতে চান তা আইএলএফএসএল লিখিতভাবে জানালে সে বিষয়ে পরবর্তী আদেশ দেয়া হবে।
সম্রাটের জামিন বাতিল চেয়ে দুদকের আবেদনের শুনানি আজ
ক্যাসিনোকাণ্ডে ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের জামিন বাতিল চেয়ে করা দুদকের আবেদনের শুনানি আজ মঙ্গলবার (১৭ মে)। আজ হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজহারুল হক আকন্দের বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হবে। গতকাল সোমবার (১৬ মে) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজহারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চে সম্রাটের জামিন বাতিলের আবেদন করা হয়। দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, অপরাধের গুরুত্ব বিবেচনায় আমরা জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছি। মঙ্গলবার এ আবেদনের ওপর শুনানি হবে। এর আগে, সব মামলায় জামিন পাওয়ায় গত ১১ মে মুক্তি পান সম্রাট। দুদকের মামলায় তার তিন শর্তে ও ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় ৯ জুন পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।
পি কে হালদারকে দেশে আনতে রুলের শুনানি আজ
ভারতের পশ্চিমবঙ্গে গ্রেফতার হওয়া প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদারকে দেশে ফিরিয়ে আনতে রুলের শুনানি আজ হাইকোর্টের কার্যতালিকায় রয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের বেঞ্চে ২২ নম্বর ক্রমিকে রুলটি শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে ২০২০ সালের ১৮ নভেম্বর এ বিষয়ে রুল জারি করেছিলেন বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ। সোমবার (১৬ মে) সকালে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন বিষয়টি আদালতকে অবগত করেন এবং রুলটির শুনানি শুরু করার আবেদন জানান।
সাবেক মন্ত্রী মোশাররফের ভাইয়ের জামিন আবেদন
প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ দায়েল করা মামলায় গ্রেফতার সাবেক স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ভাই খোন্দকার মোহতেশাম হোসেন বাবর জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছেন। সোমবার (১৬ মে) সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে আবেদনটির ওপর শুনানি হবে। এর আগে ২০২০ সালের ১৬ মে রাতে ফরিদপুর শহরের গোয়ালচামট মহল্লার মোল্লাবাড়ী সড়কে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহার বাড়িতে দুই দফা হামলা হয়। পরে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন তিনি। ওই ঘটনায় ৭ জুন রাতে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার হন বরকত ও রুবেল। তাদের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও অর্থপাচারের খবর এরপর বেরিয়ে আসতে থাকে, বেশ কয়েকটি মামলাও হয়।
আরেক মামলায় বাছিরের সাজা বৃদ্ধি চেয়ে দুদকের  আপিল
অবৈধ ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় প্রতিষ্ঠানটির সাবেক পরিচালক এনামুল বাছিরকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক (নিম্ন) আদালত। কিন্তু এই সাজা বাড়াতে হাইকোর্টে আপিল আবেদন করেছে দুদক। সোমবার (১৬ মে) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে দুদকের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান এই আবেদন করেন। এর আগে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিচারিক আদালত তাকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন। ওই রায়ের বিরুদ্ধে গত ৬ এপ্রিল খালাস চেয়ে আপিল করেন এনামুল বাছির। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি অবৈধভাবে তথ্যপাচার ও ঘুস লেনদেনের অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া ডিআইজি মিজানের তিন বছর ও দুদকের তৎকালীন পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরের আট বছর (তথ্যপাচারে তিন ও ঘুস লেনদেনে পাঁচ বছর) কারাদণ্ডের রায় দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম। গত ১০ ফেব্রুয়ারি আদালত রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ২৩ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন। ৩ জানুয়ারি আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থনে আসামিরা নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন। এরপর ২৪ জানুয়ারি একই আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করে আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রত্যাশা করেন দুদকের আইনজীবী।
পি কে হালদারকে দেশে আনতে ইন্টারপোলের সঙ্গে দুদকের যোগাযোগ
হাজার হাজার কোটি টাকা পাচারে অভিযুক্ত প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারকে ভারত থেকে দেশে ফিরিয়ে আনতে ইন্টারপোল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তবে তাকে কবে নাগাদ ফেরত পাওয়া যাবে, সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত হতে পারেনি বলে দুদকের ভারপ্রাপ্ত সচিব ও মহাপরিচালক সাঈদ মাহবুব খান জানিয়েছেন। সোমবার (১৬ মে) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয় প্রাঙ্গণে এক ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, আমরা ইতোমধ্যে ইন্টারপোল অথরিটির সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তারা দ্রুতই আমাদের আসামি ফেরত দেয়ার ব্যাপারে পদক্ষেপ নিয়েছে। কত দিনের মধ্যে আনা যাবে, এমন প্রশ্নের জবাবে দুদকের মহাপরিচালক (বিশেষ অনুসন্ধান ও তদন্ত) বলেন, ‘এটা আসলে সুনির্দিষ্টভাবে বলা কঠিন। কী পরিমাণ মামলা সেখানে (ভারতে) হয়েছে, সে মামলাগুলোর বিচারে কত দিন লাগবে বা বিচারের আগে ফেরত আনা যাবে কি যাবে না, সুনির্দিষ্ট করে বলাটা আসলে সঠিক হবে না।’ এক প্রশ্নের জবাবে দুদকের মহাপরিচালক বলেন, পি কে হালদারকে গ্রেফতারে ইন্টারপোলের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী রেড অ্যালার্ট জারি করানো হয়েছিল, সেটি ভারতেও পৌঁছেছে। সেটি কার্যকর করার জন্য এখন ইন্টারপোলের ভারতীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।
এসকে সিনহার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলেন বড় ভাই নরেন্দ্র কুমার
সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলেন তার বড় ভাই নরেন্দ্র কুমার সিনহা। উত্তরায় প্লট জালিয়াতির মামলায় এসকে সিনহার বড়ভাইসহ তিনজনকে আদালতে নিয়েছে দুদক। সোমবার (১৬ মে) সকালে তাদেরকে দুদকে ডাকেন সংস্থাটির উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান। প্রধান বিচারপতির দায়িত্বে থাকাকালীন ক্ষমতার অপব্যবহার করে উত্তরায় রাজউকের প্লট দখলের অভিযোগ উঠে তার বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় ৭ কোটি ৬ লাখ ৫ হাজার ৮৬৫ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। ভাই নরেন্দ্র কুমার সিনহার নামে রাজউক পূর্বাচল প্রকল্পে আরও তিন কাঠার প্লটের জন্য আবেদন করেন সাবেক এই বিচারপতি। এ কারণেই নরেন্দ্র কুমার সিনহাকে আদালতে হাজির করেছে দুদক। নরেন্দ্র কুমার সিনহা ছাড়াও যারা আদালতে উপস্থিত হয়েছেন তারা হলেন, শঙ্খজিৎ সিৎহ ও ইঞ্জিনিয়ার সুজিত।
দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অপরাধের বিরুদ্ধে আমরা জিরো টলারেন্স: হাইকোর্ট
দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অপরাধের বিরুদ্ধে আমরা (সর্বোচ্চ আদালত) জিরো টলারেন্স বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। পিকে হালদারের গ্রেফতারের বিষয়টি নজরে আনা হলে সোমবার (১৬ মে) বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন। বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন মানিক। আদালত বলেন, ‘প্রশান্ত কুমার (পিকে) হালদারকে গ্রেফতার করায় ভারত সরকারকে ধন্যবাদ দেয়া উচিৎ। আমাদের মেসেজ ক্লিয়ার (পরিস্কার বার্তা)। দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অপরাধের বিরুদ্ধে আমরা জিরো টলারেন্স। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না, সে যেই হোক। আমরা এ ব্যাপারে সিরিয়াস।’ এর আগে ২০২০ সালের ৭ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের একই বেঞ্চে পিকে হালদারের দেশে ফেরত আসতে কোনরকম গ্রেফতার না করার নির্দেশনা চেয়ে একটি আবেদন করে তার প্রতিষ্ঠান আইএলএফএসএল। সে আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত জানিয়েছিলেন- পিকে হালদার কবে, কখন, কীভাবে দেশে ফিরতে চান তা আইএলএফএসএল লিখিতভাবে জানালে সে বিষয়ে পরবর্তী আদেশ দেয়া হবে।
সম্রাটের জামিন আটকাতে হাইকোর্টে দুদকের আবেদন
অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের জামিন স্থগিত ও বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার (১৬ মে) দুদক আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজহারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চে আবেদন করা হয়েছে। আগামীকাল মঙ্গলবার (১৭ মে) আবেদনটির ওপর শুনানি হবে। এরআগে, গত ১১ মে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় জামিন পান ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন। জামিন আদেশের পর সম্রাটের আইনজীবী মাহবুবুল আলম দুলাল জানিয়েছিলেন, তার বিরুদ্ধে মোট চারটি মামলা করা হয়। অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলায় ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন তিনি। কারাগারে ছিলেন শুধুমাত্র দুদকের মামলায়। তবে সে মামলাতেও জামিন পাওয়ায় তার মুক্তিতে বাধা নেই।
পি কে হালদারকে বাংলাদেশে হস্তান্তর করা হবে: ইডি
কয়েক হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে অভিযুক্ত এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারকে আজ রোববার পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলা আদালতে তোলা হবে বলে জানিয়েছে ভারতের ডিরেক্টরেট অব এনফোর্সমেন্টের (ইডি) একটি সূত্র। আদালতে তার ৩ দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে উল্লেখ করে সূত্র আরও জানায়, শেষ পর্যন্ত তাকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হবে। সূত্র আরও জানায়, পি কে হালদারকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তরের ২টি কারণ আছে। এর একটি, বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক ইনটেলিজেন্স ইউনিট ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুরোধ এবং দ্বিতীয়টি, তার বিরুদ্ধে যেসব মামলা হয়েছে সেগুলো সেখানকার ব্যাংকগুলোর সঙ্গে সম্পর্কিত। সূত্র মতে, ভারতে অনুপ্রবেশ এবং অবৈধভাবে ভোটার আইডি কার্ড, পারমানেন্ট অ্যাকাউন্ট নম্বর কার্ড ও আধার কার্ড সংগ্রহ করে ভারতীয় নাগরিক হওয়ার কারণে পি কে হালদারের শাস্তি হতে পারে। গত জানুয়ারিতে ইন্টারপোল বাংলাদেশ সরকারের অভিযোগের ভিত্তিতে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালকের বিরুদ্ধে 'সর্বোচ্চ সতর্কতা' জারি করে। পি কে হালদারের সঙ্গে তার আরও ৫ ঘনিষ্ঠ সহযোগীকে গ্রেফতর করেছে। তাদের একজন তার ভাই বলে ইডির কাছে পরিচয় দিয়েছেন।
পি কে হালদারের বিষয়ে যা করার আইনগতভাবে করব: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
পি কে হালদার বাংলাদেশে ওয়ান্টেড ব্যক্তিত্ব। আমরা ইন্টারপোলের মাধ্যমে তাকে অনেক দিন ধরেই চাইছি বলে উল্লেখ্য করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে আমাদের এখনো অফিশিয়ালি কিছু আসেনাই। আমাদের যা কাজ আমরা আইনগতভাবে করব। রোববার (১৫ মে) ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সেমিনারে তিনি কথা বলেন। ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন: ইতিহাসের পুনর্নির্মাণ’ শীর্ষক সেমিনারটির আয়োজন করে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরাম। এর আগে গতকাল শনিবার (১৪ মে) সকালে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পি কে হালদারসহ ছয়জনকে পশ্চিমবঙ্গের অশোকনগর থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার অন্য পাঁচজন হলেন- উত্তম মিত্র, স্বপন মিত্র, সঞ্জীব হালদার, প্রাণেশ হালদার (প্রীতিশ) ও তার স্ত্রী।
পি কে হালদার ৩ দিনের রিমান্ডে
অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বিদেশে পাড়ি জমানো প্রশান্ত কুমার হালদারকে (পি কে হালদার) ভারতের পশ্চিমবঙ্গ থেকে গ্রেফতারের পর তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। প্রদেশের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলা থেকে পি কে হালদারকে শনিবার (১৪ মে) দুপুরের দিকে গ্রেফতারের পর আদালতে তুলে রিমান্ডের আবেদন করা হলে তা মঞ্জুর করা হয়। এদিন ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রণালয়ের তদন্তকারী সংস্থা ইনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার অশোক নগরের একটি বাড়ি থেকে পি কে হালদার ও তার পাঁচ সহযোগীকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে আদালতে তোলে ইডি। এক বিবৃতিতে ইডি বলেছে, হাজার কোটি টাকা পাচারকারী পি কে হালদার নাম পাল্টে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশে বসবাস করতেন। প্রদেশের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার অশোক নগরের একটি বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন তিনি। সেখান থেকে পি কে হালদারসহ মোট ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে ভারতীয় আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।