ইসরাইল | Ridmik News
ইসরাইল
যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে ইসরাইল-ফিলিস্তিন
মিশরের মধ্যস্থতায় ইসরাইল ও ফিলিস্তিন যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। আজ রোববার (৭ আগস্ট) সন্ধ্যা থেকে এ যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব দিয়েছিল কায়রো। মিশরীয় নিরাপত্তা বাহিনীর একটি সূত্র রয়টার্সকে জানায়, ইসরাইল যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবে রাজি হয়েছে। রোববার স্থানীয় সময় রাত ৮টা থেকে এটি কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানান মিশরের মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতি প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত ফিলিস্তিনি এক কর্মকর্তা। তবে ফিলিস্তিনের গাজায় সক্রিয় ইসলামিক জিহাদের মুখপাত্র বা কেউ এমন ঘোষণা দেননি। ইসরাইলের সরকারি কর্তৃপক্ষের কেউও এমন যুদ্ধবিরতির কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানাননি।
গাজায় ইসরাইলি হামলার নিন্দা জানিয়েছে সৌদি আরব
গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলের জাবালিয়া শহরে ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলায় নিহত বেড়ে ২৯ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন আরও দুই শতাধিক। মিডিল ইস্ট মনিটর এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, শনিবার (৬ আগস্ট) গভীর রাতে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে ইসরাইলি হামলার নিন্দা জানায়। ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ফিলিস্তিনি জনগণের পাশে দাঁড়াবে সৌদি আরব। চলমান উত্তেজনা বন্ধের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশটি। ফিলিস্তিনের বেসামরিক নাগরিকদের প্রয়োজনীয় সুরক্ষা প্রদান এবং এই সংঘাতের অবসানের জন্য সমস্ত প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানানো হয়েছে। ইসরাইলের সঙ্গে সৌদি আরবের কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকলেও মধ্যপ্রাচ্যের বিষয়ে সৌদির এই বক্তব্য গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
ইসরাইলি বিমান হামলায় নিহত বেড়ে ২৪
গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলের জাবালিয়া শহরে ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলায় নিহত বেড়ে ২৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে, অন্তত ৬ জন শিশু রয়েছেন। আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজা উপত্যকায় শুক্রবার (৫ আগস্ট) থেকে ইসরাইল বিমান হামলা শুরু করে। শনিবারও জাবালিয়াসহ গাজা উপত্যকাজুড়ে বেসামরিক মানুষজন ও স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে ইহুদি রাষ্ট্রটি। এক বিবৃতিতে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গাজা উপত্যকায় দুই দিন ধরে চলমান ইসরাইলি বিমান হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪–এ দাঁড়িয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৬ জন শিশু ও একজন নারী রয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ২০৩ জন ফিলিস্তিনি। তবে ইসরাইল এই হামলার তথ্য অস্বীকার করে বলেছে, ফিলিস্তিনি জিহাদিদের রকেট হামলা ব্যর্থ হওয়ায় বিস্ফোরণে এতে প্রাণহানি হয়েছে।
গাজায় বিমান হামলা: ইসরাইলকে যে হুঁশিয়ারি দিল ইরান ও তুরস্ক
ফিলিস্তিনের স্বাধীম অঞ্চল গাজা উপত্যকায় দখলদার ইসরাইলের বিমান হামলায় এক শিশু এবং এক নারীসহ অন্তত ১০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। শনিবার (৬ আগস্ট) ভয়াবহ বিমান হামলার ব্যাপারে ইসরাইলকে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান ও তুরস্ক। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই হামলার জন্য ইসরাইলকে চড়া মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেছে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী (আইআরজিসি)। গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলার প্রসঙ্গে আইআরজিসি প্রধান মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেন, ইসরাইলিদের সাম্প্রতিক অপরাধের জন্য আরও একবার চড়া মূল্য দিতে হবে। বর্তমানে ইরানে থাকা ইসলামিক জিহাদ নেতা জিয়াদ আল-নাখালার সঙ্গে বৈঠকের পর সালামির এই বিবৃতি এসেছে। এদিকে ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের বিমান হামলার ‘তীব্র’ নিন্দা জানিয়ে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইসরাইলকে ‘আত্মনিয়ন্ত্রণ ও কাণ্ডজ্ঞান’ প্রয়োগের আহ্বান জানায়। একই সঙ্গে নতুন করে যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগে অবিলম্বে এসব হামলা বন্ধের উপরও জোর দিয়েছে প্রভাবশালী এ দেশটি।
হামলার প্রতিক্রিয়ায় ইসরাইলে শতাধিক রকেট ছুড়ল ইসলামিক জিহাদ
বিমান হামলার প্রতিক্রিয়া জানাতে ইসরাইলে শতাধিক রকেট ছুড়েছে প্যালেস্টাইনিয়ান ইসলামিক জিহাদ (পিআইজে)। যদিও এর অধিকাংশই আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আয়রন ডোম ভূপাতিত করেছে, দাবি তেল আবিবের। শনিবার (৬ আগস্ট) বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। এর আগে গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় ১০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এর মধ্যে ইসলামিক জিহাদের কমান্ডার তাইসির আল-জাবারিও রয়েছেন। রয়েছে পাঁচ বছরের এক মেয়ে শিশুও। হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনায় গাজা ও ইসরায়েলের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ইসরাইল বলছে, পিআইজের ‘তাৎক্ষণিক হুমকির’ পরিপ্রেক্ষিতে গাজায় হামলা চালানো হয়েছে। অন্যদিকে হামলার ‘প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া’ হিসেবে শুক্রবার রাতে ইসরাইলে শতাধিক রকেট ছুড়েছে পিআইজে। এর অধিকাংশই আয়রন ডোম ভূপাতিত করেছে বলে দাবি ইসরাইলের। যদিও রাতে ইসরাইলের বিভিন্ন শহরে সাইরেনের শব্দ শোনা গেছে। ইসরাইল ডিফেন্স ফোর্স (আইডিএফ) জানায়, এটি গাজায় একাধিক জঙ্গি অবস্থানে রকেট হামলা পুনরায় শুরু করেছে।
ইসরাইলের বিরুদ্ধে একটি অভিযানই যথেষ্ট: ইরানি জেনারেল
দখলদার ইসরাইলের বিরুদ্ধে একটি ‘বায়তুল মুকাদ্দাস’ অভিযানই যথেষ্ট বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর (আইআরজিসি) প্রধান কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি। শুক্রবার (৫ আগস্ট) ইরানের বার্তা সংস্থা পার্সটুডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। ইরানি এই জেনারেল বলেন, লেবাননে এক লাখের বেশি ক্ষেপণাস্ত্র প্রস্তুত রয়েছে। এসব ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইসরাইলকে জাহান্নামে পরিণত করা সম্ভব। লেবাননের হিজবুল্লাহ এখন অনেক বড় শক্তি। তারা প্রস্তুত এবং দৃঢ় প্রত্যয়ী। ইসরাইল হিসাব-নিকাশে ভুল করলে তাদের বিরুদ্ধে একটি ‘বায়তুল মুকাদ্দাস’ অভিযানই যথেষ্ট। যুক্তরাষ্ট্র প্রসঙ্গে হোসেইন সালামি বলেন, বিশ্বের মোট সামরিক বাজেটের ৫০ শতাংশই হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের। তবে বলা যায় বর্তমানে মুসলিম বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের সরাসরি উপস্থিতির ইতি ঘটেছে। সিরিয়ায় ফোরাতের পূর্ব উপকূলের একাংশ এবং ইরাকের দুই-তিনটি ঘাঁটি ছাড়া আর কোথাও তাদের সরাসরি উপস্থিতি নেই বললেই চলে। বিশ্বের মুসলমানেরা তথাকথিত বৃহৎ শক্তিগুলোর হাড় ভেঙে দিয়েছে। উল্লেখ্য, ইরাকের সাদ্দাম বাহিনীর বিরুদ্ধে ১৯৮২ সালের এপ্রিল মাসে ইরানিরা যে সফল অভিযান চালিয়েছিল তার নাম ছিল ‘বায়তুল মুকাদ্দাস’ অভিযান। এক মাসব্যাপী এই অভিযানের মাধ্যমে খোররামশাহরসহ পাঁচ হাজার ৩৮ বর্গকিলোমিটার এলাকা পুনরুদ্ধার করেছিল ইরান।
ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলায় শিশুসহ নিহত ১০
ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলায় শিশুসহ কমপক্ষে ১০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৫৫ জন। নিহতের সংখ্যা বাড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গতকাল শুক্রবার (৫ আগস্ট) তেল আবিবের দাবি, ফিলিস্তিনের ইসলামিক জিহাদ গোষ্ঠী পিআইজের শীর্ষস্থানীয় এক নেতার আস্তানায় হামলা চালানো হয়। যদিও ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ বলছে, গাজার একটি আবাসিক ভবনে ওই বিমান হামলা চালানো হয়েছে। এদিকে গাজায় হামলার জবাবে ইসরাইলে শতাধিক রকেট হামলা চালিয়েছে পিআইজে।সংবাদ সংস্থা আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুরে গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালায় ইসরাইলি বাহিনী। এতে হতাহতের পাশাপাশি ব্যাপক ক্ষতি হয় একাধিক আবাসিক ভবনেরও। পরে হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করে ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বিভাগ।
গাজায় ইসরাইলের বিমান হামলা, কুদস ব্রিগেডের কমান্ডারসহ নিহত ৮
ফিলিস্তিনের একমাত্র স্বাধীন অঞ্চল গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরাইলের বিমান বাহিনী। শুক্রবার (৫ আগস্ট) এ হামলায় প্রতিরোধ আন্দোলন ইসলামিক জিহাদের একজন কমান্ডার এবং ছোট একটি মেয়ে শিশুসহ অন্তত আটজন নিহত ৪৪ জন আহত হয়েছেন। ইসলামিক জিহাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাদের আল কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার তায়াসির আল-জাবারি বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন। গাজা সিটির ফিলিস্তিন টাওয়ারে ছিলেন তিনি। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, অন্তত চার জন নিহত হয়েছেন। যার মধ্যে পাঁচ বছরের একটি শিশু আছে। তাছাড়া আরও ২৩ জন আহত হয়েছেন। গাজা সিটিতে অবস্থিত সেই ভবনটির সাত তলা থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডলি বের হতে দেখা যায়। ফিলিস্তিনির একজন সিনিয়র কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে কয়েকদিন ধরে ইসরাইল-ফিলিস্তিনের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। এর মধ্যে এ হামলা চালানো হলো। গণমাধ্যম আল জাজিরাকে ওই ভবনের একজন বাসিন্দা জানিয়েছেন, দুপুরের পর হামলা হয়। ওইখানে অনেক বেসামরিক মানুষ বসবাস করেন। গাজা উপত্যকায় গত ১৫ বছরে চারবার যুদ্ধ করেছে ইসরাইল ও হামাস। বিমান হামলার কারণে ফের যুদ্ধের শঙ্কা দেখা দিয়েছে।
কৃত্রিম ভ্রূণ তৈরির দাবি ইসরাইলি বিজ্ঞানীদের!
ইসরাইলের একদল বিজ্ঞানী দাবি করেছেন, তারা বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম ভ্রূণ তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন। কৃত্রিম এই ভ্রূণের জন্য শুক্রাণু ও ডিম্বাণুর নিষিক্তকরণের প্রয়োজন হবে না। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। ইসরাইলের ওয়েইজম্যান ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীরা গবেষণায় দেখেছেন, ইঁদুরের স্টেম সেল একত্রিত করে ভ্রণের প্রাথমিক আকৃতির মতো কাঠামো দেওয়া যেতে পারে। ওই ভ্রুণে অন্ত্রের নালী থেকে শুরু করে মস্তিষ্কের প্রাথমিক গঠন ও হৃদস্পন্দনও থাকবে। গবেষণায় কিছু কোষকে রাসায়নিক দিয়ে প্রক্রিয়াজাত করা হয়, যা জেনেটিক প্রোগ্রাম চালু করে প্লাসেন্টা বা কুসুমের থলিতে পরিণত হয়, অন্য অঙ্গ ও টিস্যু ছাড়াই এই ভ্রুণ বিকাশ লাভ করে অভ্যন্তরীণ গঠন এবং কোষের জেনেটিক প্রোফাইলের পরিপ্রেক্ষিতে প্রাকৃতিক ইঁদুরের ভ্রুণের সঙ্গে তুলনা করলে কৃত্রিম ভ্রূণের ৯৫ শতাংশ মিল রয়েছে। একে কৃত্রিম ভ্রূণ বলা হচ্ছে কারণ নিষিক্ত ডিম্বাণু ছাড়াই এই ভ্রুণ তৈরি করা হয়। প্রাকৃতিক ভ্রূণের বিকাশের সময় অঙ্গ এবং টিস্যু কীভাবে গঠন করে সে সম্পর্কে বোঝার জন্য আরও গবেষণা প্রয়োজন।
ফের ইসরাইলকে বয়কটের ডাক দিল আরব লিগ
ইসরাইলের দখলদারিত্ব রুখতে দেশটিকে আরও শক্তভাবে বয়কটের ডাক দিয়েছেন আরব লিগের সহকারি মহাসচিব সাঈদ আবু আলি। মিশরের রাজধানী কায়রোর আরব লিগের এক সভা থেকে তিনি এই ডাক দিয়েছেন। সাঈদ বলেন, 'ফিলিস্তিনি জনগণ ও তাদের জানমালের ওপর ইসরাইল কর্তৃপক্ষের চলমান আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নিতেই এই বৈঠক ডাকা হয়েছিল। এই চলমান আগ্রাসনের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ব্যবস্থা নেয়া জরুরি। বিশেষ করে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ও আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার তাদের দায়িত্ব পাল করা উচিত, সবার দ্বৈত অবস্থান থেকেও সরে আসতে হবে।' এছাড়াও ইসরাইলের ওপর অর্থনৈতিকসহ নানা ধরনের চাপ প্রয়োগের আহ্বান জানান তিনি।
মোসাদের হয়ে গোয়েন্দাগিরি, ইরানে সুইডেনের নাগরিক গ্রেফতার!
ইসরাইলের কুখ্যাত গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হয়ে গোয়েন্দাগিরির অভিযোগে এক সুইডিশ নাগরিককে গ্রেফতার করেছে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশ ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। শনিবার (৩০ জুলাই) দেশটি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সুইডেনের ওই নাগরিককে দীর্ঘদিন নজদারিতে রাখার পরই গ্রেফতার করেছে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেয়া বিবৃতিতে সুইডেনের ওই নাগরিকের নাম, বয়স কিংবা বিস্তারিত কোন তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। ইরানের দাবি, গ্রেফতার হওয়া ওই ইরান ও সুইডেনের দ্বৈত নাগরিকত্ব লাভ করা ব্যক্তির ইসরাইল ভ্রমণের রেকর্ড আছে। চলতি বছরের মে মাসে দুই ফরাসি নাগরিককেও গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে গ্রেফতার করেছে ইরান। এছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে ইসরাইলি গোয়েন্দা মোসাদ সংশ্লিষ্ট কয়েকজনকে গ্রেফতারের করেছে দেশটি। গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী বিজ্ঞানী ও বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর ঊর্ধতন কর্মকর্তারা মোসাদের গোপন হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়ায় স্থানীয় এজেন্টদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে ইরান।
ইহুদি এজেন্সি বন্ধের রুশ হুমকিতে বিপাকে ইসরাইল
ইহুদিদের ইসরাইলে ভ্রমণ ও অভিবাসনে সহায়তা করে এমন একটি সংস্থার কার্যক্রম বন্ধের আদেশ দিয়েছে রাশিয়ার আদালত। এর ফলে নড়েচড়ে বসেছে ইসরাইলের প্রশাসন। ইসরাইলের কর্মকর্তারা রুশ আদালতের এমন সিদ্ধান্ত আটকাতে ইতোমধ্যে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা শুরু করেছেন।
ইসরাইলকে বর্ণবাদী রাষ্ট্র ঘোষণার দাবি দ. আফ্রিকার
ইসরাইলকে বর্ণবাদী রাষ্ট্র ঘোষণার দাবি জানিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। সে সাথে ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের উল্লেখযোগ্য অংশ ক্রমাগত দখল করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দেশটির সরকার। বুধবার (২৭ জুলাই) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার বরাত দিয়ে জানা যায়, একইসঙ্গে পশ্চিম তীর ভূখণ্ডে নতুন বসতি গড়ে তোলা 'আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের উজ্জ্বল উদাহরণ' হিসেবেও উল্লেখ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজধানী প্রিটোরিয়ায় অনুষ্ঠিত আফ্রিকায় ফিলিস্তিনি মিশন প্রধানদের দ্বিতীয় বৈঠকে দক্ষিণ আফ্রিকার আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও সহযোগিতা মন্ত্রী নালেদি পান্ডর ইসরায়েলকে বর্ণবাদী রাষ্ট্র ঘোষণার দাবি জানান। তিনি বলেন, ফিলিস্তিনিদের বর্তমান অবস্থার সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদী নিপীড়ন ও নির্যাতনের নিজস্ব ইতিহাসের অভিজ্ঞতার মিল রয়েছে। নিপীড়িত দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে, আমরা জাতিগত বৈষম্য, নিপীড়ন ও বঞ্চনার প্রভাবগুলো নিজেরাই অনুভব করেছি এবং ফিলিস্তিনিদের আরেকটি প্রজন্ম এখন সেই পরিস্থিতিতে থাকলেও আমরা তাদের পাশে দাঁড়াতে পারছি না। পান্ডর বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বাস করে, ইসরাইলকে একটি বর্ণবাদী রাষ্ট্র হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা উচিত এবং দেশটি জাতিসংঘের সদস্য থাকার মতো প্রয়োজনীয় শর্তগুলো পূরণ করে কি না তা যাচাই করার জন্য জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ (ইউএনজিএ)-এর একটি কমিটি গঠন করা উচিত।
ইসরাইলি ‌গোয়েন্দাদের নেটওয়ার্ক ধ্বংস করলো ইরান
মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশ ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান দেশটিতে গোপনে পরিচালিত একটি ইসরাইলি গুপ্তচরদের নেটওয়ার্ক ধ্বংস করে দিয়েছে। ইরানের বিপ্লব রক্ষা বাহিনী বা আইআরজিসি গোয়েন্দাদের হাতে নেটওয়ার্কটি ধরা পড়ার সেটি ধ্বংস করে দেয়া হয়। শনিবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় ইরানের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন গণমাধ্যম তাসনিম নিউজ দেশটির তথ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ খবর জানিয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোসাদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ ছিল এই গুপ্তচর নেটওয়ার্কটির। এটি ইরানে ‘অভূতপূর্ব নাশকতা ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম’ চালানোর পরিকল্পনা করছিল। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গ্রেফতারকৃত গুপ্তচররা ইরাকের স্বায়ত্তশাসিত কুর্দি অঞ্চল দিয়ে পশ্চিম সীমান্ত দিয়ে ইরানে প্রবেশ করেছিল। নেটওয়ার্কটি ইরানের পিপলস মুজাহেদিন অর্গানাইজেশনের সঙ্গে মিলে কাজ করতো।পিপলস মুজাহেদিন হলো একটি রাজনৈতিক গোষ্ঠী যারা ইরানের সুপ্রিম লিডার আলী খামেনেয়ির শাসনের বিরোধিতা করে।
ইসরাইলকে রাশিয়ার সতর্কতা!
রাশিয়ায় কার্যক্রম পরিচালনা করা এক ইহুদি এজেন্সি বন্ধ করে দিয়ে ইসরাইলকে সতর্ক বার্তা পাঠিয়েছে রাশিয়া। গত সপ্তাহে রাশিয়ায় বসবাস করা ইহুদিদের ইসরাইলে আনার এই ইহুদি এজেন্সির কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়ার নির্দেশ দেশটির একটি আদালত। আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিচার মন্ত্রণালয় এজেন্সিটির কার্যক্রম বন্ধ করে দিতে অনুরোধ করেছে। কারণ তারা নিয়ম ভেঙেছে। তবে সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ইহুদি এ এজেন্সির কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়ে ইসরাইলের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইয়ার লাপিদকে মূলত সতর্ক বার্তা পাঠালো রাশিয়া। কারণ ইয়ার লাপিদ ইউক্রেন যুদ্ধের ইস্যু নিয়ে রাশিয়ার বিরুদ্ধে একটু বেশি সরব হয়েছেন। এদিকে রাশিয়ার আদালত এমন নির্দেশ দেয়ার পর বিষয়টির সমালোচনা করেছেন অবৈধ ইহুদি রাষ্ট্রটির প্রধানমন্ত্রী ইয়ার লাপিদ। রোববার (২৪ জুলাই) ইসরাইলের সিনিয়র কর্মকর্তাদের সঙ্গে একটি বৈঠকে তিনি বলেছেন, রাশিয়ার এমন কার্যক্রম দুই দেশের সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে। তবে কূটনৈতিকভাবে বিষয়টি সমাধানের জন্য একটি দলকে প্রস্তুত থাকতে বলেছেন তিনি।