খালেদা জিয়া | Ridmik News
খালেদা জিয়া
'খালেদা জিয়া সমাবেশে যোগ দিলে আদালত দেখবে'
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিএনপি সমাবেশের নামে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করলে ভুল করবে। ১০ ডিসেম্বর যদি খালেদা জিয়া সমাবেশ যোগ দেন তাহলে আদালত ব্যবস্থা নেবেন।
'খালেদাকে কারাগারে পাঠানোর চিন্তা-ভাবনা নেই'
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আগামী নির্বাচনের আগে কারাগারে পাঠানোর এখনও চিন্তা-ভাবনা নেই। তবে প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে বিষয়টি স্পষ্ট করে বলেছেন-বাড়াবাড়ি করলে..।
'বিএনপি বাড়াবাড়ি করলে খালেদা জিয়াকে আবার জেলে পাঠানো হবে'
প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকারবিরোধী আন্দোলনের নামে বিএনপি যদি বাড়াবাড়ি করে, তবে খালেদা জিয়াকে আবারও জেলে পাঠানো হবে। বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) ‘জেলহত্যা দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর বিষয়ে যা জানালেন আইনমন্ত্রী
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগে কারাগারে পাঠানোর সম্ভাবনা নেই। বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানিয়েছেন তিনি।
খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি
আগের শর্তে ষষ্ঠবারের মতো বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ ৬ মাস বাড়ানো হয়েছে। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, আগের মতো খালেদা জিয়া ঢাকার নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন এবং এই সময়ে তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না। এর আগে রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আবেদনে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি প্রকাশ করেছেন। কাজেই মেয়াদ ৬ মাসের জন্য বৃদ্ধি হয়ে যাবে। আমরা জিও জারি করে দেব। তিনি বলেন, কোর্টে নির্ধারিত যে শর্ত ছিল, সে অনুযায়ী সময়কাল ৬ মাস বৃদ্ধি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে সোমবার প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। গত ১১ সেপ্টেম্বর ষষ্ঠবারের মতো বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করে তার পরিবার। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এ আবেদন জমা দেয়া হয়।
খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন সোমবার
ষষ্ঠবারের মতো বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ ৬ মাস বাড়ানো হচ্ছে। এ বিষয়ে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। মন্ত্রী বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, তার যে আবেদন সেটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সম্মতি প্রকাশ করেছেন। কাজেই মেয়াদ ৬ মাসের জন্য বৃদ্ধি হয়ে যাবে। আমরা জিও জারি করে দেবো। পূর্বে যে শর্ত ছিল, কোর্টে নির্ধারিত যে শর্ত ছিল, সেটা অনুযায়ীই সময়কাল ৬ মাস বৃদ্ধি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে সোমবার প্রজ্ঞাপন হবে।
'বিএনপি নেত্রী ও তাদের মহাসচিবেরই শিষ্টাচার শেখা প্রয়োজন'
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপিনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, তাদের মহাসচিব এবং তার দলের শিষ্টাচার শেখার প্রয়োজন রয়েছে। বুধবার (৩১ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সমসাময়িক বিষয় নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল বেগম জিয়াকে বিদেশ পাঠানো নিয়ে কিছু কথা বলেছেন, সে প্রেক্ষিতে মির্জা ফখরুল সাহেব শিষ্টাচার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আমি ফখরুল সাহেবকে অনুরোধ জানাই, দেশের প্রধানমন্ত্রী যখন বেগম খালেদা জিয়ার পুত্র আরাফাত রহমান কোকো মৃত্যুবরণ করার পর তার দরজায় গিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন, ২০ মিনিট পরেও যখন দরজা খোলেননি এটা কোন ধরনের শিষ্টাচার।’ ‘শুধু তাই নয়, দেশের প্রধানমন্ত্রী যখন তাকে গণভবনে আমন্ত্রণ জানালেন যে আপনি আসুন আপনার সাথে আমরা আলাপ করি। তখন বিএনপিনেত্রী যে ভাষায় কথা বললেন সেটি কোন ধরনের শিষ্টাচার’ প্রশ্ন রেখে ড. হাছান বলেন, ‘দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী আহত হলেন আর সংসদে দাঁড়িয়ে বেগম খালেদা জিয়া বললেন উনাকে কে মারবেন, গ্রেনেড তো উনারাই নিয়ে গিয়েছেন ভ্যানিটি ব্যাগে করে।
হঠাৎ অসুস্থ খালেদা জিয়া
বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া হঠাৎ শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে তাকে আজ হাসপাতালে নেয়া হতে পারে বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) বিএনপির একটি সূত্র এ তথ্য জানায়। সূত্রটি জানায়, বুধবার রাতে তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার শরীরের তাপমাত্রা ওঠানামা করছে এবং ডায়াবেটিসও আগের চেয়ে বাড়ছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তাকে আজ দুপুরে অথবা বিকেলে হাসপাতালে নেয়া হতে পারে বলে জানিয়েছে সূত্রটি। সাম্প্রতিক সময়ে করোনা ও নানা জটিলতার কারণে কয়েক দফা হাসপাতালে যেতে হয়েছে বিএনপির চেয়ারপার্সনকে।
দুই মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন খালেদা জিয়া
বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা মানহানি ও ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগের দুই মামলায় স্থায়ী জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও সাহেদ নুর উদ্দিনের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পী। এর আগে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী ২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর আদালতে নালিশি মামলা দায়ের করেন। দণ্ডবিধির ১৫৩ (ক) ও ২৯৫ (ক) ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়। ২০১৪ সালে পুরান ঢাকায় দর্জিকর্মী বিশ্বজিত হত্যাকাণ্ড নিয়ে খালেদার জিয়ার বক্তব্যকে কেন্দ্র করে ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগে মামলা করেন এ বি সিদ্দিকী।
সিসিইউ থেকে কেবিনে খালেদা জিয়া
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সিসিইউ থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। বুধবার (১৫ জুন) বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গত শুক্রবার গভীর রাতে বুকের ব্যথা নিয়ে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন খালেদা জিয়া। শনিবার দুপুরে খালেদা জিয়ার হৃৎপিণ্ডে এনজিওগ্রাম করে একটি ব্লক অপসারণ করে স্টেন্টিং করা হয়। বিএনপি চেয়ারপারসনের হৃৎপিণ্ডে আরও দুটি ব্লক রয়েছে। তবে সেখানে স্টেন্টিং করার মতো শারীরিক অবস্থা নেই। গত বছরের এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এ নিয়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ দফা বেসরকারি হাসপাতাল এভারকেয়ারে ভর্তি করা হলো। এর আগে ৬ এপ্রিল নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে একই হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল।
সফলভাবে রিং পরানো হয়েছে খালেদা জিয়ার হৃৎপিণ্ডে
বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার হৃৎপিণ্ডের ব্লক অপসারণের পর সফলভাবে রিং বসানো হয়েছে। শনিবার (১১ জুন) দুপুরে জরুরিভিত্তিতে তার এনজিওগ্রাম করা হয়। খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. জাহিদ হোসেন বলেন, খালেদা জিয়ার এনজিওগ্রাম সম্পন্ন হয়েছে। তার হার্টে বেশ কয়েকটি ব্লক ধরা পড়ে। তার মধ্যে একটি ব্লক ছিল ৯৫ শতাংশ। সেটিতে রিং পরানো হয়েছে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শনিবার বিকালে তার গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানান, ৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়লে শুক্রবার রাতে তাকে ঢাকার বসুন্ধরায় এভারকেয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তার হৃদযন্ত্রে সমস্যা ধরা পড়লে এনজিওগ্রাম করার সিদ্ধান্ত হয়। মির্জা ফখরুল বলেন, এনজিওগ্রাম করতে গিয়ে দেখা গেছে যে, তার মেইন আর্টারিটায় ৯৯ পার্সেন্ট ব্লক এবং সেটা চিকিৎসকরা সফলভাবে স্টেন্ট করেছেন, বেলুনিং করে ব্লক দূর করে সেখানে তারা স্টেন্ট বসিয়েছেন।
‘আদালতের অনুমতি নিয়ে বিদেশ যেতে পারবেন খালেদা জিয়া’
চিকিৎসার জন্য বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বিদেশ যেতে চাইলে আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যেতে পারবেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। শনিবার (১১ জুন) দুপুরে রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) হলে প্রতিনিধি সম্মেলন-২০২২ এর উদ্বোধনীয় অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি। কোর্টের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। যদি চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে যেতে হয়, তবে আদালতের মাধ্যমে যেতে হবে।
খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ডের বৈঠক
হাসপাতালে ভর্তি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পরবর্তী চিকিৎসা পদ্ধতি ঠিক করতে বৈঠকে বসবে তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড। শনিবার (১১ জুন) সকালে চিকিৎসকদের বৈঠক বসার কথা রয়েছে। শনিবার ভোরের দিকে খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তির পর সেখানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, খালেদা জিয়া সিসিইউতে আছেন। সকাল সাড়ে ১০টায় চিকিৎসকদের বোর্ডের বৈঠকে তার পরবর্তী পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ম্যাডাম এমনিতে এখন স্ট্যাবল, স্থিতিশীল আছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর, বিশেষ করে এনজিওগ্রাম করার পর বোঝা যাবে সমস্যা কতটা জটিল। এমনিতেই তো তিনি গুরুতর পেসেন্ট। বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন। তার মধ্যে হার্টের সমস্যা হলে তা নিঃসন্দেহে জটিল আকার ধারণ করে।
মধ্যরাতে হাসপাতালে খালেদা জিয়া
শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (১০ জুন) মধ্যরাতে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) তাকে ভর্তি করা হয়। পরবর্তী চিকিৎসা বিষয়ে আজ শনিবার (১১ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় মেডিকেল বোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে, রাতেই সাংবাদিকদের ব্রিফ করে এমনটি জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এর আগে রাত ২টা ৫৫ মিনিটের দিকে হাসপাতালের উদ্দেশ্যে গুলশানের বাসা ফিরোজা ত্যাগ করেন খালেদা। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন মির্জা ফখরুল এবং দলটির প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।
খালেদা জিয়ার গ্যাটকো মামলার শুনানি ১৭ জুলাই
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার চার্জগঠন শুনানির তারিখ পিছিয়েছে। রোববার (৫ জুন) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইনের আদালতে এ মামলার শুনানির দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার প্রধান আসামি খালেদা জিয়া অসুস্থ থাকায় আদালতে হাজির হতে পারেননি। তার পক্ষে আইনজীবী চার্জশুনানি পেছানোর আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে আগামী ১৭ জুলাই শুনানির দিন ধার্য করেছেন। খালেদা জিয়ার অপর আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া এ তথ্য জানান।