র‌্যাব | Ridmik News
র‌্যাব
ঈদকে কেন্দ্র করে ডাকাতির প্রস্তুতি, গ্রেফতার ৯
পাঁচ বছর ধরে সংঘবদ্ধ হয়ে রংপুর ও গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি করে আসছিল একটি চক্র। চক্রটির সদস্য প্রথমে চুরি ও ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িয়ে দফায় দফায় কারাগারে যায়। কারাগারে গিয়ে একে অয়ের সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর তারা কারাগার থেকে বেরিয়ে বড় ডাকাতির পরিকল্পনা করে। এরই ধারাবাহিকতায় পবিত্র ঈদ উল আযহাকে কেন্দ্র করে মহাসড়কে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে গাজীপুর মহানগরীর গাছা থানাধীন ঝাঁজর এলাকা থেকে আন্তঃজেলা ডাকাত চক্রের নয় সক্রিয় সদস্যকে দেশি-বিদেশী অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১। সোমবার (৪ জুলাই) দুপুরে কারওয়ান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলনে র‍্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফট্যান্ট কর্নেল আব্দুল্লাহ আল মোমেন। তিনি বলেন, গ্রেফতাররা একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্রের সক্রিয় সদস্য। এই চক্রের সদস্য সংখ্যা আনুমানিক ১০ থেকে ১২ জন। এই ডাকাত চক্রের সর্দার শহিদুল ইসলাম। তার অন্যতম সহযোগী আন্ডু মিয়া ও আয়নাল মিয়া যারা ডাকাতির পরিকল্পনা এবং অন্যান্য ডাকাতদের সংঘবদ্ধ করে থাকে। তারা গত পাঁচ বছর ধরে একইসঙ্গে সংঘবদ্ধ হয়ে রংপুর এবং গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি করে আসছিল।
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী রজব আলী গ্রেফতার
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক যুদ্ধাপরাধী কিশোরগঞ্জের নেতা কে এম আমিনুল হক ওরফে রজব আলীকে (৬২) রাজধানী থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রাজধানীর কলাবাগান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। শনিবার (৩ জুলাই) রাতে র‌্যাব-এর পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়। রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় কারওয়ান বাজারে র‌্যাব-এর মিডিয়া সেন্টারে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ২০১৮ সালে ৫ই নভেম্বর রজব আলীকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম থানার আলীনগর গ্রামের রজব আলী ১৯৭০ সালে ভৈরব হাজী হাসমত আলী কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়ার সময় ইসলামী ছাত্র সংঘের কলেজ শাখার সভাপতি হন। অভিযোগপত্রে বলা হয়, দেশ স্বাধীন হওয়ার সময় মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে আটক হয়েছিলেন রজব। ১৯৭২ সালে তার বিরুদ্ধে দালাল আইনে তিনটি মামলা হয়েছিল, যাতে তার যাবজ্জীবন সাজা হয়। কিন্তু দালাল আইন বাতিলের সুযোগে ১৯৮১ সালে রজব ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্ত হন। পরে ‘আমি আল বদর বলছি’ নামে একটি বই তিনি প্রকাশ করেন। ওই বইয়ে রজবের মানবতাবিরোধী অপরাধ সংক্রান্ত অভিযোগের আত্মস্বীকৃতি রয়েছে বলে তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়।
সাভারে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতার
ঢাকা জেলার সাভারে চাঞ্চল্যকর বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি সাদ্দাম হোসেনকে (২২) ধামরাই এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪। শনিবার (২ জুলাই) সকালে র‍্যাবের পাঠানো এক প্রেস রিলিজে বলা হয়, ভুক্তভোগী (১৪) একজন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী। সে সাভার মডেল থানাধীন শ্যামপুর এলাকায় তার ভাইয়ের বাসায় থাকতো। ভুক্তভোগীর ভাই-ভাবী একই এলাকার একটি অফিসে চাকরি করতো। প্রতিদিনের মতো তার ভাই-ভাবী গত ১২ জুন দুপুরের খাবারের জন্য অফিস থেকে বাসায় আসে। খাবার খেয়ে কিশোরীকে একা রেখে তারা অফিসে চলে যায়। এই সুযোগে আসামীরা ভুক্তভোগীকে বিভিন্নভাবে ফুসলিয়ে সাভার মডেল থানাধীন শ্যামপুর এলাকার একটি নির্মাণাধীন দোতলা ভবনের নিচতলায় ডেকে নিয়ে হাত-পা বেঁধে জোরপূর্ক ধর্ষণ করে। এ সময় ওই কিশোরীর চিৎকারে স্থানীয়রা আসলে ঘটনাস্থল থেকে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর ভাই একটি মামলা করেন। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল ১লা জুলাই রাতে অভিযান পরিচালনা করে ধামরাই এলাকা থেকে প্রধান আসামি সাদ্দামকে গ্রেফতার করা হয়।
জঙ্গিদের বিষয়ে আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না, সতর্ক আছি: র‌্যাব মহাপরিচালক
জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ দমনে বাংলাদেশের সাফল্য ঈর্ষণীয় উল্লেখ করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক অতিরিক্ত আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেছেন, আমরা আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না, সব সময় সতর্ক আছি। সমন্বিতভাবে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করে জঙ্গিদের নেটওয়ার্ক ও আস্তানা ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছি। শুক্রবার (১ জুলাই) গুলশানের হলি আর্টিসান হামলার ছয় বছর উপলক্ষে ‘দীপ্ত শপথ’ ভাস্কর্যে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ দমনে বাংলাদেশ ঈর্ষণীয় সাফল্য অর্জন করেছে। আমরা জঙ্গিবাদ দমনের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছি। সাইবার জগতে আমরা জঙ্গি কার্যক্রমের বিষয়ে নজরদারি রাখছি। জঙ্গিবাদ দমনে সব আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করছে র‌্যাব। যে কারণে জঙ্গিবাদ এখন সক্ষমতা প্রদর্শন করতে পারছে না। তারপরও আমরা আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না, সবসময় সতর্ক আছি। জঙ্গিদের ডি-রেডিক্যালাইজেশনের কাজ করছে উল্লেখ করে র‌্যাব ডিজি বলেন, আমরা এরইমধ্যে ১৬ জঙ্গিকে ডি-রেডিক্যালাইজেশন করেছি।
শিক্ষক হত্যা, জিতুর ৫ দিনের রিমান্ড
সাভারের শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় প্রধান আসামি আশরাফুল ইসলাম জিতু ওরফে জিতু দাদার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটরাজিব হাসান তার রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে এর আগে আশুলিয়া থানা পুলিশের পক্ষ থেকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে জিতুকে আদালতে উপস্থিত করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোর্ট ইন্সপেক্টর মতিউর রহমান। আশুলিয়া থানার এসআই এমদাদুল হক বলেন, গতকাল বুধবার (২৯ জুন) গাজীপুরের শ্রীপুর থেকে শিক্ষক হত্যার প্রধান আসামি জিতুকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে বৃহস্পতিবার র‌্যাব তাকে আশুলিয়া থানায় হস্তান্তর করে। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় প্রধান আসামি জিতুকে জিঙ্গাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে উপস্থিত করা হয়।
‘বান্ধবীর সামনে হিরোগিরি দেখাতে শিক্ষককে পিটিয়ে মারে ছাত্র’
বান্ধবীর সামনে হিরোগিরি দেখাতে সাভারের শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারের ওপর হামলা করে আশরাফুল আহসান জিতু। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে র‌্যাব বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দুপুর ১২টায় কারওয়ান বাজারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানায়।
রাজধানীতে ২৬ মলম পার্টি-ছিনতাইকারী গ্রেফতার
রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ মলম পার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের ২৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে এলিট ফোর্স র‍্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে অজ্ঞান ও ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত বিষাক্ত মলম, নগদ টাকা ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। মঙ্গলবার (২৮ জুন) দুপুরে র‍্যাব-৩ এর স্টাফ অফিসার (অপস্ ও ইন্ট শাখা) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বীণা রানী দাস এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, প্রতিদিন অজ্ঞানপার্টি ও ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে সর্বস্ব হারিয়ে জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে থাকেন অসংখ্য যাত্রী-পথচারী। এসব ভুক্তভোগীদের বেশির ভাগই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দ্বারস্থ হন না। যার ফলে সংঘবদ্ধ অজ্ঞানপার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের তৎপরতা দিন দিন বেপরোয়াভাবে বাড়ছে। এই চক্রের সদস্যদের প্রায় সবাই মাদকাসক্ত। সাম্প্রতিককালে অজ্ঞানপার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের তৎপরতা বাড়ার বিষয়টি আমলে নিয়ে র‍্যাব-৩ গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। একটি দল রাজধানীর খিলগাঁও, পল্টন, মুগদা, শাহজাহানপুর, শাহবাগ, মতিঝিল এবং হাতিরঝিল থানাধীন এলাকায় সোমবার (২৭ জুন) রাতে অভিযান চালিয়ে এই চক্রের ২৬ সদস্যকে গ্রেফতার করে।
বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসায় র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ মেডিক্যাল টিম
সিলেটে সাম্প্রতিক ভয়াবহ বন্যায় উদ্ধার কার্যক্রমসহ দুর্গতদের মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য র‍্যাব কন্ট্রোল রুম শুক্রবার (২৪ জুন) বন্যার্তদের চিকিৎসায় গঠিত র‍্যাব-৯ এর একটি ভ্রাম্যমাণ মেডিক্যাল টিম সিলেটের বালাগঞ্জ এর প্রত্যন্ত বন্যা কবলিত অঞ্চলে দুর্গতদের মাঝে চিকিৎসা সেবা প্রদান শুরু করেছে। বালাগঞ্জ এর এই অঞ্চলটিতে এখন পর্যন্ত কোন ত্রান বা সাহায্য পৌঁছায়নি। র‍্যাব-৯ এর টিম চিকিৎসা প্রদানের পাশাপাশি উক্ত অঞ্চলের বন্যা কবলিত অসহায় ও নিপীড়িতদের খাদ্যসামগ্রী, স্যালাইন, মোমবাতিসহ প্রয়োজনীয় মানবিক সহায়তা প্রদান করে। প্রত্যন্ত ও বন্যা কবলিত উক্ত এলাকার মানুষকে বন্যার এ সময়ে সুস্থ থাকার জন্য নিরাপদ পানি পানের প্রয়োজনীয়তাসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যবিষয়ক পরামর্শ প্রদান করা হয়। এবং নিরাপদ পানি পান নিশ্চিত করতে পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেটও প্রদান করা হয়। উক্ত মেডিকেল ক্যাম্পেইন ও মানবিক সহায়তা কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন র‍্যাব ফোর্সেস এর আইন ও গনমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈনসহ আরও অনেকেই।
১০ বছর ধরে পলাতক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার
মানিকগঞ্জ সদর থানাধীন পোড়রা এলাকা থেকে মাদক মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ১০ বছরের পলাতক আসামি সেলিম ওরফে বিপ্লবকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।  শুক্রবার (২৪ জুন) সকালে এক প্রেস রিলিজে র‌্যাব জানায়, র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় মানিকগঞ্জ সদর থানাধীন পোড়রা গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি সেলিমকে গ্রেফতার করে। মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১২ সালের ২৮শে সেপ্টেম্বর মানিকগঞ্জ শহরের পোড়রা এলাকা থেকে ৩২ বোতল ফেনসিডিল ও ১০ গ্রাম হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ী সেলিম ওরফে বিপ্লব আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয়। তার নামে মানিকগঞ্জ সদর থানায় একটি মাদক আইনে মামলা হয়। মামলা নম্বর ৪৯(৯)। পরবর্তীতে আসামি সেলিম ৩ মাস কারাভোগের পরে ২০১৩ সালে জামিনে বের হয়ে তার শাস্তি নিশ্চিত জেনে আত্মগোপনে চলে যায়। মামলার বিচারকার্য শেষে আদালত সেলিমকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৯০ এর ১৯(১) এর ৩(খ) ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করে।
যশোরে ট্রাক ভর্তি জেলি দেয়া চিংড়ি মাছ জব্দ
র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের ভ্রাম্যমাণ আদালত যশোরে ট্রাক ভর্তি জেলি দেয়া চিংড়ি মাছ উদ্ধার করেছে। এ সময় চিংড়ি মাছের মালিককে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ও জব্দকৃত মাছ ধ্বংস করা হয়েছে। র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার এম নাজিউর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ভোররাতে যশোর-খুলনা মহাসড়কের রাজারহাট এলাকায় একটি ট্রাকভর্তি চিংড়ি মাছ জব্দ করা হয়। চিংড়ি মাছে ইনজেকশনের মাধ্যমে জেলি পুশ করেছে কিনা তা চেক করে সত্যতা পাওয়া যায়। পরে মৎস্য ও মৎস্যপণ্য (পরিদর্শন ও মাননিয়ন্ত্রণ) আইন ২০২০ এর ৩১ ধারা লঙ্ঘনের অপরাধে চিংড়ি মাছের মালিক মোঃ হোসাঈন সরদারকে (৩৪) ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সাথে মাছগুলো জব্দ করে ধ্বংস করা হয়। মাছের মালিকের বাড়ি মনিরামপুর উপজেলার কপালিয়া গ্রামে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন যশোর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনুপ দাশ, র‌্যাবের স্কোয়াড কমান্ডার, এএসপি এইচ. এম শফিকুর রহমান জেলা মৎস্য অফিসার ফিরোজ আলম প্রমুখ।
টাঙ্গাইলে এসএসসি পাশ করে হয়ে যান ডাক্তার! অতপর কারাদণ্ড
টাঙ্গাইল শহরের দয়াল ক্লিনিক ও হসপিটাল ভবনের তৃতীয় তলার মদিনা হিয়ারিং টেস্ট সেন্টার থেকে এস রহমান লাভলু নামের এক ভূয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে ৩ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়। বুধবার (২২ জুন) দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজা মো. গোলাম মাসুম প্রধান এ দণ্ডাদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত এস রহমান লাভলু মদিনা হিয়ারিং টেস্ট সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজা মো. গোলাম মাসুম প্রধান বলেন, আটক করার পর এসআর আমাদের কাছে স্বীকার করে তিনি কোন ডাক্তার না। সে টাঙ্গাইলের নাগরপুর যধুনাথ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করেছে। এছাড়া তার আর কোন শিক্ষাগত যোগ্যতা নেই। দীর্ঘদিন ধরে মানুষের সাথে প্রতারণা করে তার নামের শুরুতে সে ডাক্তার পদবী ব্যবহার করেছে। ওই ক্লিনিকে তিনি পাইলসও নাক কান গলার চিকিৎসা করেতো। তার চেম্বারের মালামাল সিভিল সার্জন অফিস জব্দ করেছে। পরে তাকে ৩ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।
পদ্মা সেতু উদ্বোধনে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার: র‍্যাব
পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‍্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। বুধবার (২২ জুন) পদ্মাসেতু এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান তিনি। আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, দেশের ১৮ কোটি মানুষ পদ্মা সেতু উদ্বোধনের অপেক্ষার প্রহর গুনছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধনের মাধ্যমে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে মাইলফলক হয়ে থাকবে পদ্মা সেতু। বাংলাদেশের সকল মানুষ পদ্মা সেতু উদ্বোধনে অত্যন্ত উৎসাহ উদ্দীপনায় শামিল হবেন। এই বিশেষ দিনটিকে কেন্দ্র করে পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে র‍্যাব ফোর্সেস সেতুর দুই প্রান্তে সার্ভিস এরিয়া-১ ও সার্ভিস এরিয়া-২ সহ পার্শ্ববর্তী এলাকাসমূহে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করেছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এবং সেতুর নিরাপত্তা জোরদার করতে দুই প্রান্তেই পর্যাপ্ত সংখ্যক র‍্যাব সদস্য মোতায়েন থাকবে। সমাবেশস্থল, টোল প্লাজা, ফলক উন্মোচন ও হেলিপ্যাড এলাকার নিরাপত্তায় র‍্যাবের প্রয়োজনীয় সংখ্যক টহল মোতায়েন থাকবে। এছাড়া অনুষ্ঠান চলাকালীন সার্বিক নিরাপত্তায় র‍্যাবের কন্ট্রোল রুম সার্বক্ষণিক কাজ করবে।
বিয়ের আশ্বাসে প্রাক্তন স্ত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, অভিযুক্ত গ্রেফতার
রমজানের দিন বাড়ির সবাই যখন সেহরি খাবার জন্য তোড়জোড় শুরু করে তখন পাওয়া যাচ্ছিল না রোকসানা আক্তারকে (২২)। চারদিকে যখন সবাই খোঁজাখুঁজি শুরু করে তখন বসতভিটের পাশে নগ্ন অবস্থায় তার নিথর দেহ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় পুলিশ তখন অপমৃত্যু মামলা নিয়ে তদন্তের একপর্যায়ে হত্যা মামলা নেয়। কিন্তু হত্যাকারীকে গ্রেফতার করতে পারছিল না পুলিশ। ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার রোকসানা হত্যার ২ বছর পর অবশেষে প্রাক্তন স্বামী আরিফ হোসেনকে গাজীপুর থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪। মঙ্গলবার (২১ জুন) সন্ধ্যায় র‌্যাব-১৪ থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। এদিন বিকেলে ময়মনসিংহ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের আদালতে প্রাক্তন স্ত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছে আরিফ।
শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা: যেভাবে পালিয়ে ছিলেন ফাঁসির আসামি
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় ৭৬ কেজি ওজনের বোমা পুঁতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি শেখ মো. এনামুল হক ওরফে শেখ মো. এনামুল করিমকে (৫৩) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ ঘটনায় তার জড়িত থাকার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসলে কারি না হওয়া সত্ত্বেও কারি পরিচয়ে গাজীপুরের একটি মসজিদে ৮ বছরের বেশি সময় ইমামতি করেন। গাজীপুরে অবস্থানকালীন এনামুল ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে একটি জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি করেন। পরে ক্যানসার নিরাময় কেন্দ্র নামে একটি প্রতিষ্ঠান খুলে ভুয়া হারবাল চিকিৎসা দেয়া শুরু করেন। তিনি এইডস রোগ নিরাময়ে চিকিৎসা দিতে সক্ষম বলে দাবি করতেন। রোববার (১৯ জুন) দুপুরে কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। তিনি বলেন, গতকাল শনিবার রাতে র‌্যাব সদর দফতর গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানীর উত্তরা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে কোটালীপাড়ায় বোমা পুঁতে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীকে হত্যাচেষ্টা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি শেখ মো. এনামুলকে গ্রেফতার করা হয়।
পিরোজপুরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ঢাকায় গ্রেফতার 'সিরিয়াল রেপিস্ট' শামিম
পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণের ঘটনায় আসামি ‘সিরিয়াল রেপিস্ট’ মো. শামিম হোসেন মৃধাকে (৩২) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৮)। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) দিনগত রাতে রাজধানীর উত্তরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাব জানায়, গত ১১ জুন ভান্ডারিয়ায় এক স্কুলছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই ‘সিরিয়াল রেপিস্ট’ শামিম ঢাকায় পালিয়ে এসে আত্মগোপনে চলে যান। আসামি এর আগেও একাধিক ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের ঘটনার সঙ্গে জড়িত। শুক্রবার (১৭ জুন) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন সংস্থাটির লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। তিনি বলেন, ভান্ডারিয়ায় আলোচিত ধর্ষণকাণ্ডের পর র‌্যাব সদর দফতরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-৮ এর গোয়েন্দা নজরদারির ধারাবাহিকতায় ধর্ষক মো. শামিম হোসেন মৃধাকে গ্রেফতার করা হয়। শামিম ওই ধর্ষণের ঘটনায় প্রাথমিকভাবে নিজের দায় স্বীকার করেছেন।